মাধ্যমিক ভূগোল সহায়ক – প্রশ্ন উত্তর | ভারতের নদনদী (আঞ্চলিক ভূগোল – দ্বিতীয় অধ্যায়)

2294

ভারতের নদনদী (আঞ্চলিক ভূগোল – দ্বিতীয় অধ্যায়)

1 . উত্তর ও দক্ষিণ ভারতের জলবিভাজিকা কাকে বলে ?
উত্তরঃ বিন্ধ্য পর্বতকে ।

2 . ভারতের প্রধান নদীর নাম কী ?
উঃ গঙ্গা ।

3 . গঙ্গা নদীর দৈর্ঘ্য কত ?
উত্তরঃ ২৫১০ কিমি ।

4 . গঙ্গার গতিপথকে কয়টি ভাগে ভাগ করা যায় ? কী কী ?
উত্তরঃ তিন ভাগে । উচ্চগতি , মধ্যগতি ও নিম্নগতি ।

5 . গঙ্গার উৎপত্তি কোথায় ?
উত্তরঃ কুমায়ন হিমালয়ের অন্তর্গত গঙ্গোত্রী হিমবাহের গােমুখ তুষার গুহা থেকে গঙ্গার উৎপত্তি ।

6 . গঙ্গার উচ্চগতি কোথা থেকে কোথা পর্যন্ত বিস্তৃত ?
উত্তরঃ গােমুখ তুষার গুহা থেকে হরিদ্বার পর্যন্ত ।

7 . গঙ্গার মধ্যগতি কোথা থেকে কোথা পর্যন্ত বিস্তৃত ?
উত্তরঃ হরিদ্বার থেকে বিহারের রাজমহল পর্যন্ত ।

8 . গঙ্গার নিম্নগতি কোথা থেকে কোথা পর্যন্ত বিস্তৃত ?
উত্তরঃ বিহারের রাজমহল থেকে মােহনা পর্যন্ত ।

9 . দেবপ্রয়াগের কাছে কোন নদী গঙ্গায় এসে মিশেছে ?
উঃ অলকানন্দা ।

10 . ভাগীরথী ও অলকানন্দার মিলিত প্রবাহের নাম কী ?
উত্তরঃ গঙ্গা ।

11 . পৃথিবীর বৃহত্তম ব – দ্বীপের নাম কী ?
উত্তরঃ গঙ্গা – ব্রহ্মপুত্রের মােহনার ব – দ্বীপ ।

12 . গঙ্গার প্রধান উপনদীর নাম কী ?
উত্তরঃ যমুনা ।

13 . যমুনার উৎপত্তি কোথায় ?
উত্তরঃ কুমায়ুন হিমালয়ের যমুনােত্রী হিমবাহ থেকে ।

14 . যমুনার তিনটি উপনদীর নাম লেখ ।
উত্তরঃ চম্বল , বেতােয়া , কেন ।

15 . গঙ্গার বামতীরের উপনদী গুলির নাম লেখ ।
উত্তরঃ রামগঙ্গা , গােমতী , ঘর্ঘরা , গণ্ডক , কোশী ।

16 . গঙ্গার ডানতীরের উপনদী গুলির নাম লেখ ।
উত্তরঃ যমুনা শােন ।

17 . গঙ্গার তীরে অবস্থিত চারটি শহরের নাম লেখ ।
উত্তরঃ কোলকাতা , পাটনা , এলাহাবাদ , কানপুর ।

18 . উত্তর-পশ্চিম ভারতের প্রধান নদীর নাম কী ?
উত্তরঃ সিন্ধু নদ ।

19 . সিন্ধুর উৎপত্তি কোথায় ?
উত্তরঃ তিব্বতের সিন – খা – বাদ হিমবাহ থেকে ।

20 . সিন্ধুর পাঁচটি উপনদীর নাম লেখ ।
উত্তরঃ শতদ্রু , বিপাশা , বিতস্তা , চন্দ্রভাগা , ইরাবতী ।
21 . কাশ্মীর উপত্যকার মধ্য দিয়ে কোন নদী প্রবাহিত হয়েছে ?
উত্তরঃ ঝিলাম বা বিতস্তা নদী ।

22 . কোন নদীর তীরে হরপ্পা ও মহেঞ্জোদারাে সভ্যতা গড়ে উঠেছিল ?
উত্তরঃ সিন্ধু নদের তীরে ।

23 . উত্তর – পূর্ব ভারতের প্রধান নদীর নাম কী ?
উত্তরঃ ব্রহ্মপুত্র ।

24 . ব্রহ্মপুত্রের উৎপত্তি কোথায় ?
উত্তরঃ তিব্বতের রাক্ষসতাল মানস সরােবরের কাছে চেমায়ুং দুং হিমবাহ থেকে ।

25 . তিব্বতে ব্রহ্মপুত্র নদের নাম কী ?
উত্তরঃ সাংপাে ।

26 . কোন কোন নদীর মিলিত ধারার নাম ব্ৰহ্মপুত্র ?
উত্তরঃ ডিবং , ডিহং ও লােহিত নদীর মিলিত ধারার নাম ব্রহ্মপুত্র ।

27 . ব্রহ্মপুত্রের দুটি উপনদীর নাম লেখ ।
উত্তরঃ সুবনশিরি ও ভরলী ।

28 . লুনি কোথায় পড়েছে ?
উত্তরঃ কচ্ছের রাণ অঞ্চলে ।

29 . রাজস্থানের প্রধান নদীর নাম কী ?
উত্তরঃ লুনি ।

30 . প্রবাহের দিক অনুসার দক্ষিণ ভারতের নদী গুলিকে প্রধান কী কী ভাগে ভাগ করা যায় ?
উত্তরঃ পূর্ববাহিনী নদী ও পশ্চিমবাহিনী নদী ।

31 . কয়েকটি পূর্ববাহিনী নদীর নাম লেখ ।
উত্তরঃ সুবর্ণরেখা , মহানদী , গােদাবরী , কৃষ্ণা , কাবেরী প্রভৃতি ।

32 . কোন নদীর গতিপথে বিখ্যাত হুড্র জলপ্রপাতের সৃষ্টি হয়েছে ?
উত্তরঃ সুবর্ণরেখা নদীর গতিপথে ।

33 . দক্ষিণ ভারতের প্রধান নদীর নাম কী ?
উত্তরঃ গােদাবরী ।

34 . শিবসমুদ্রম জলপ্রপাত কোন নদীর তীরে অবস্থিত ?
উত্তরঃ কাবেরী নদীর গতিপথে ।

35 . সবরমতী নদী কোথা থেকে উৎপন্ন হয়ে কোথায় পড়েছে ?
উত্তরঃ আরাবল্লী পর্বত থেকে উৎপন্ন হয়ে গুজরাটের কাম্বে উপসাগরে পড়েছে ।

36 . ভারতের সর্বোচ্চ জলপ্রপাত গেরসােপ্পা কোন নদীতে অবস্থিত ?
উত্তরঃ কর্ণাটকের সরাবতী নদীর গতিপথে ।

37 . গঙ্গার নদী অববাহিকার আয়তন কত ?
উত্তরঃ ৮.৩৮ লক্ষ বর্গ কিমি ।

38 . ভারতের দুটি হ্রদের নাম লেখ ।
উত্তরঃ রাজস্থানের সম্বর ও কাশ্মীরের ডাল ।

39 . গঙ্গা ছাড়া ভারতের আর চারটি নদীর নাম লেখ যাদের মােহনায় ব – দ্বীপ আছে ?
উত্তরঃ মহানদী , গদাবরী , কৃষ্ণা , কাবেরী নদীর মােহনায় ব – দ্বীপ আছে ।

40 . ব্রহ্মপুত্র নদ কোন অঞ্চলে সাংপাে নামে পরিচিত ?
উত্তরঃ তিব্বতে ।

41 . ভারতের একটি অন্তর্বাহিনী নদীর নাম লেখ । উত্তরঃ লুনি ।

42 . দক্ষিণ ভারতের দীর্ঘতম নদী কোনটি ?
উত্তরঃ গােদাবরী ।

43 . ভারতের বৃহত্তম নদী কোনটি ?
উত্তরঃ গঙ্গা ।

44 . ভারতের সর্বোচ্চ জলপ্রপাতটির নাম কী ? এটি অন্য কী নামে পরিচিত ?
উত্তরঃ গেরসােপ্পা । একে মহাত্মা গান্ধী প্রপাত বা যােগপ্রপাতও বলে ।

45 . নর্মদা নদীর উৎস কোথায় ?
উত্তরঃ মধ্যপ্রদেশের মহাকাল বা মৈকাল পর্বতের অমরকণ্টক শৃঙ্গ থেকে নর্মদা নদীর উৎপত্তি হয়েছে ।

46 . অন্তর্বাহিনী নদী কাকে বলে ?
উত্তরঃ যেসব নদী কোন দেশ বা মহাদেশের উচ্চভূমি বা পার্বত্য অঞ্চলে উৎপন্ন হয়ে ঐ দেশ বা মহাদেশরই কোন হ্রদ , সাগর বা জলাভূমিতে গিয়ে পড়ে অথবা মরুভূমিতে গিয়ে শুকিয়ে যায় সেগুলিকে বলে অন্তর্বাহিনী নদী ।


ভারতের প্রধান নদনদী

  
    





●সিন্ধু●

•মোট দৈর্ঘ্য-2880 কিমি,ভারতে 709কিমি
•উৎপত্তিস্থল-তিব্বতের মানস সরোবরের নিকট সিন কা বাব নামক জলধারা,লাদাখের কাছে দিয়ে ভারতে প্রবেশ
•উপনদী-শতুদ্র,বিপাশা,বিতস্তা,চন্দ্রভাগা,ইরাবতী,চেনা
•পতিত হয়েছে-আরব সাগর


●গঙ্গা(ভারতের দীর্ঘতম)●

•মোট দৈর্ঘ্য-2510 কিমি, ভারতে 2017 কিমি
•উৎপত্তিস্থল-কুমায়ুন হিমালয়ের গঙ্গোত্রি হিমবাহের গোমুখ গুহা
•বামতীরের উপনদী-রামগঙ্গা,গোমতী,ঘর্ঘরা,গন্ডক,কোশী
•ডানতীরের উপনদী-যমুনা ও শোন
•পাশে অবস্থিত-হরিদ্বার;কানপুর,এলাহাবাদ,বারানসী,পাটনা,ভাগলপুর,কলকাতা(হুগলী নদী)
•মুর্শিদাবাদের ধুলিয়ানের কাছে ভাগ হয়েছে
•অলকানন্দা ও ভাগিরথী মিলেছে দেবপ্রয়াগে
•পতিত হয়েছে-বঙ্গোপোসাগরে

●ব্রহ্মপুত্র(উৎপত্তিস্থলে সাংপো)●

•মোট দৈর্ঘ্য-2580 কিমি(ভারতে 885 কিমি)
•উৎপত্তিস্থল-চেমায়ুং দুম হিমবাহ
•উপনদী-সুবর্ণষিড়ি,মানস,তিস্তা,তোর্সা
•পাশে অবস্থিত-ডিব্রুগড়,তেজপুর,গৌহাটি,
• পৃথিবীর উচ্চতম নদী বা Sky River নামে পরিচিত
•পতিত হয়েছে-যমুনা নাম নিয়ে গঙ্গায়(বাংলাদেশ)
●যমুনা●

•মোট দৈর্ঘ্য- 1376কিমি
•উৎপত্তিস্থল-যমুনেত্রী হিমবাহ
•উপনদী-চম্বল,কেন,বেতোয়া
•পাশে অবস্থিত-দিল্লী,মথুরা,আগ্রা
•পতিত হয়েছে-এলাহাবাদের কাছে গঙ্গায়
•গঙ্গার দীর্ঘতম উপনদী

●চেনাব●

•উৎপত্তিস্থল-হিমাচল প্রদেশের কুলু
•পাশে অবস্থিত-সালাল প্রোজেক্ট
•পতিত হয়েছে-সিন্ধু(সিন্ধুর বৃহত্তম উপনদী)

●শতুদ্র●

•মোট দৈর্ঘ্য – ভারতে 1060 কিমি
•উৎপত্তিস্থল-তিব্বতের রাকা হ্রদ
•পাশে অবস্থিত-ভাকরা নাঙ্গাল,লুধিয়ানা
•পতিত হয়েছে-সিন্ধু
•শিপকিলা গিরিপথ দিয়ে ভারতে প্রবেশ

●ঝিলম/বিতস্তা●

•মোট দৈর্ঘ্য-424 কিমি, ভারতে 400 কিমি
•উৎপত্তিস্থল-পীরপঞ্জালের পাদদেশে ভেরানাগ এ
•পাশে অবস্থিত – শ্রীনগর
•পতিত হয়েছে-সিন্ধু(চেনাব)

●বিপাশা●

•মোট দৈর্ঘ্য-460 কিমি
•উৎপত্তিস্থল-কুলু পর্বতের কাছে রোটাং পাস
•পাশে অবস্থিত-মানালী
•পতিত হয়েছে-হারিকের কাছে শতুদ্রতে

●ইরাবতী●

•মোট দৈর্ঘ্য-725 কিমি
•উৎপত্তিস্থল-রোটাংপাস
•পতিত হয়েছে-চেনাব(সিন্ধু)

●শোন●

•উৎপত্তিস্থল-অমরকন্টক
•পতিত হয়েছে-গঙ্গা
•উত্তর বাহিনী

●দামোদর●

•মোট দৈর্ঘ্য-514 কিমি
উপনদী-বরাকর
•উৎপত্তিস্থল-ঝাড়খন্ডের পালামৌ জেলার ছোটোনাগপুরের মালভূমি
•পতিত হয়েছে-ভাগীরথী
•বাংলার দুঃখ

●সূবর্নরেখা●

•মোট দৈর্ঘ্য-477 কিমি
•উৎপত্তিস্থল- ছোটোনাগপুর মালভূমি
•পাশে অবস্থিত-জামশেদপুর
•পতিত হয়েছে-বঙ্গোপোসাগর
•হুড্রু জলপ্রপাত(ঝাড়খন্ড) অবস্থিত

●লুনী(অন্তর্বাহিনী নদী)●

•মোট দৈর্ঘ্য-450 কিমি
•উৎপত্তিস্থল-আজমীরের নিকট আনাসাগর হ্রদ
•পতিত হয়েছে-কচ্ছের রন

●সবরমতী●

•মোট দৈর্ঘ্য-416 কিমি
•উৎপত্তিস্থল-আরাবল্লী
•পাশে অবস্থিত-আমেদাবাদ,গান্ধীনগর
•পতিত হয়েছে-কাম্বে উপসাগর

●ব্রাহ্মনী●

•মোট দৈর্ঘ্য-705 কিমি
•উৎপত্তিস্থল-ছুটোনাগপুর মালভূমি
•পাশে অবস্থিত-রাউরকেল্লা
•পতিত হয়েছে-বঙ্গোপোসাগর

●মহানদী●

•মোট দৈর্ঘ্য-885 কিমি
•উৎপত্তিস্থল-দন্ডকারন্যের কাছে সিয়াগার পাহাড়
•পাশে অবস্থিত– কটক,হিরাকুদ প্রজেক্ট
•পতিত হয়েছে-বঙ্গোপোসাগর

●কৃষ্ণা●

•মোট দৈর্ঘ্য-1290 কিমি
•উৎপত্তিস্থল-পশ্চিমঘাট পর্বতের মহাবালেশ্বর
•উপনদী-সীমা,ভীমা , তুঙ্গাভদ্রা,মুসী,ঘাটপ্রভা,মালপ্রভা,কয়না
•পাশে অবস্থিত-নাগার্জুন সাগর,বিজয়ওয়াড়া
•পতিত হয়েছে-বঙ্গোপোসাগর

●কাবেরী(পবিত্র নদী)●

•মোট দৈর্ঘ্য-805 কিমি
•উৎপত্তিস্থল-ব্রহ্মগিরি পর্বত(কর্ণাটক)
•উপনদী-হেরাঙ্গী,হেমবতী,সিমলা,ভবানী
•পাশে অবস্থিত-
মেত্তুর প্রজেক্ট(তামিলনাডু),
শিবসমুদ্রম(কর্নাটক),তিরুচিরাপল্লী,
মাইসোর
•পতিত হয়েছে-বঙ্গোপোসাগর

●গোদাবরী(দক্ষিন ভারতের গঙ্গা)●

•মোট দৈর্ঘ্য-1465 কিমি
•উৎপত্তিস্থল- নাসিকের কাছে ত্রিম্বক মালভূমি
•উপনদী-প্রংহিতা,ইন্দ্রাবতী,
•পাশে অবস্থিত-নাসিক
•পতিত হয়েছে-বঙ্গোপোসাগর

●নর্মদা(পশ্চিমবাহিনী)●

•দৈর্ঘ্য-1310 কিমি
•উৎপত্তি-মহাকালপর্বতের অমরকন্টক(মধ্যপ্রদেশ)
•উপনদী-তাওয়া,হিরণ
•পাশে অবস্থিত–জব্বলপুর,সর্দার সরোবর প্রজেক্ট, ধুয়াধুর জলপ্রপাত
•পতিত হয়েছে-কাম্বে উপসাগর

●তাপ্তি(পশ্চিমবাহিনী)●

•মোট দৈর্ঘ্য- 724 কিমি
•উৎপত্তিস্থল-মহাদেব পর্বতের মূলতাই শৃঙ্গ
•উপনদী-পূর্ণা,ভোগর,বেতুল
•পাশে অবস্থিত-সুরাট,কাকড়াপাড়া,উকাই(গুজরাট)
•পতিত হয়েছে-কাম্বে উপসাগর ।

সৌজন্যে:- ভূগোল শিক্ষা     
www.bhugolshiksha.com