Madhyamik Physical Science Suggestion 2020 WBBSE | মাধ্যমিক ভৌত বিজ্ঞান সাজেশন 2020

14739

Madhyamik Physical Science Suggestion 2020মাধ্যমিক ভৌত বিজ্ঞান সাজেশন 2020

পশ্চিমবঙ্গ মাধ্যমিক ভৌত বিজ্ঞান পরীক্ষার সাজেশন দেওয়া হল নিচে। এই সাজেশন গুলি আগামী 2020 সালের মাধ্যমিক ভৌত বিজ্ঞান পরীক্ষার জন্য খুব ইম্পর্টেন্ট. তোমরা যারা মাধ্যমিক ভৌত বিজ্ঞান পরীক্ষার সাজেশন খুঁজে চলেছো, তারা নিচে দেওয়া প্রশ্নপত্র ভালো করে পড়তে পারে. এই পরীক্ষা তে কোশ্চেন গুলো আসার সম্ভাবনা খুব বেশি. তোমাদের যদি এই কোশ্চেন এর ব্যাপারে কোন সাজেশন থাকে তাহলে আমাদের অবশ্যই কমেন্টের মাধ্যমে জানিও।

Madhyamik Physical Science Suggestion 2020 – ভৌত বিজ্ঞান  ও পরিবেশ

প্রশ্নমান-১
১. বহুবিকল্পভিত্তিক প্রশ্ন। :
১.১. সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি বায়ুমণ্ডলের কোন স্তরে শোষিত হয়
(b) স্ট্রাটোস্ফিয়ার
(a) ট্রপোস্ফিয়ার (d) থার্মোস্কিয়ার।
(c) মেসোস্কিয়ার
উঃ। (b)
১.২. অগ্নবৃষ্টির জলে উপস্থিত থাকে
(a) H2CO3, ও H2SO4. (b) H2SO4 ও HNO3,
(c) HCOOH ও H2SO4 (d) H2CO3, ও HNO3
উঃ। (b)
১.৩. পরমশূন্য উন্নতায় গ্যাসের-
(a) আয়তন শূন্য কিন্তু চাপ সর্বাধিক
(b) আয়তন ও চাপ উভয়ই শূন্য
(c) আয়তন সর্বাধিক কিন্তু চাপ শূন্য
(d) আয়তন ও চাপ সর্বাধিক
উঃ। (b)
১.৪. SIতে চাপের একক হল
(a) N/m2 (b) bar
(c) torr (d) dyne/cm’
উঃ। (a)
১.৫. বাস্তব গ্যাসের আদর্শ আচরণ থেকে বিচূতির কারণ =
(a) আদর্শ গ্যাসের অণুগুলি বিন্দু ভর
(b) আদর্শ গ্যাসের অণুগুলির আত্তরাণবিক বল শূন্য
(c) a ও b উভয়ই
(d) গ্যাস অণুগুলি স্থিতিস্থাপক নয়
উঃ। (c)
১.৬. বাষ্প ঘনত্বের একক হল
(a) gcm
(c) একক নেই
(b) Kg
(d) vg
উঃ। (C)
১.৭ কোনটিতে অণুর সংখ্যা সবচেয়ে কম ?
. (a) 2g WH (b) 4g N ,
(c) 8g 0, (d) 16g C0,
উঃ। (b)
১৯. তাপ পরিবাহিতাকের মান নির্ভর করে ।
(a) দৈর্ঘ্যের ওপর
(b) ওপর
উয়তার পার্থক্যের
(c) দৈর্ঘ্য ও উয়তার পার্থক্যের ওপর
(d) উপাদানের প্রকৃতির ওপর।
উঃ। (d)
১.১০. জলকে ০°C থেকে 10°C পর্যন্ত উত্তপ্ত করলে ওই জলের আয়তন
(a) বৃদ্ধি পায়।
(b) হ্রাস পায়।
(c) প্রথমে বৃদ্ধি, পরে হ্রাস পায়।
(d) প্রথমে হ্রাস ও পরে বৃদ্ধি পায়
উঃ।
(d)
২. অতি সংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর : প্রশ্নমান-১
২.১ পাস্কাল (Pa) কীসের একক?
উ। চাপের একক।
২.২. প্রতিমোল গ্যাস অণুর গড় গতিশক্তির মান । কত?
উঃ। 3/2 RT।
২.২. 50g একটি গ্যাসের STP-তে আয়তন 56 লিটার। গ্যাসটির আণবিক ভর
কত?
উঃ। 200.
২.৫. কোন রাসায়নিক বিক্রিয়ায় তাপ শোষিত হলে তাকে কী বলে?
উঃ। তাপগ্রাহী বিক্রিয়া
২.৬. a ও n , এর মধ্যে সম্পর্কটি লেখো।
0
উঃ। ৩ c = 5;
২.৭. গ্যাসের চাপ গুণাঙ্কের ক্ষেত্রে খুবরাশি কী কী ?
উঃ। গ্যাসের ভর ও আয়তন।
২.৮. CGS পদধতিতে তাপ পরিবাহিতাকে একক কী?
উঃ। Calcm-1 .n . -1 .s- .
২.৯. কোন লেন্সকে অপসারী লেন্স বলে?
উঃ। অবতল লেন্সকে।
২.১০: বিবর্ধক কাচ হিসেবে কোন প্রকারের লেন্স নেওয়া হয়?
উঃ। উত্তল লেন্স।

৩. সংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর : প্রশ্নমান-২
৩১. একটি দর্পণ সমতল, অবতল এবং উত্তল কোন প্রকৃতির তা কীভাবে
বুঝবে?
উঃ। কোন দর্পণের কাছে একটি পেন রাখলে যদি সমান মাপের প্রতিবিম্বদেখা যায়, তাহলে বুঝতে হবে যে দর্পন সমতল। যদি প্রতিবিম্ব বিবর্ধিত এবং সেনশীৰ্ব হয় তবে দর্শনটি অবতল। আবার যদি প্রতিবিম্ব সমশীর্ষ এবং হোলে হয় তবে দর্শনটি হবে উত্তল।

৩.২. চিত্রের সাহায্যে প্রমাণ করো প্রিজমের মধ্য দিয়ে আলোর
সময় নির্গত বনি সর্বদাই ভূমিতলের দিকে বেকে যায়।
উট। ABC একটি প্রিজমের প্রধান ছেদ। Po প্রিজমের আপতিত রাআর
রশ্নিটি ল্য মাধ্যমে ( বায় থেকে ঘনমধাম থেকে লঘূ মাধ্যমে প্রতিসৃত হত।

৩.৩. ফিউজ তার কাকে বলে? ফিউজ তারকে বর্তনীতে কীভাবে মুক্ত করা হয় ?
উ: % মিশিয়ে দিয়ে তৈরি উচ্চরোধ
উঃ। 75% লেড ও 25টিন প্রাপ্ত সংকর ধাতু
বিশিষ্টনিন্ম গলনাঙ্কের এবং স্বল্প দৈর্ঘ্যের সরু যে পরিবাহী তারটিকে বৈদ্যুতিক লাইনে লাইভ তারের সঙ্গে চিনামাটির হোল্ডারের সাহায্যে যুক্ত করা হয়, তাকে ফিউজ তার বলে।ফিউজ তারকে বর্তনীর লাইভ বা ফিউজ তারের সঙ্গে শ্রেণি সমবায়ে যুক্ত করা হয়।

৩.৪. জনক পরমাণু ও দুহিতা পরমাণু কাকে বলে?
উঃ। তেজস্ক্রিয় মৌলের যে পরমাণুর তেজস্ক্রিয় বিঘটন হয় তাকে জনক।পরমাণু এবং ওই পরমাণুর নিউক্লিয়াস থেকে তেজস্ক্রিয় রশ্মি নির্গত হওয়ায় পর যে নতুন মৌলের পরমাণু উৎপন্ন হয় তাকে দুহিতা পরমাণু বলে।

৩.৫. সূযের বিপুল শক্তির উৎস কী সংক্ষেপে লেখো ?
উঃ। সূর্যের বিপুল শক্তির উৎস হল নিউক্লিয়া সংযোজন।
সূর্যের গ্যাসীয় উপাদানের মধ্যে হাইড্রোজেনের পরিমাণ বেশি। ৭টি হাইড্রোজেন। পরমাণুর (¥H) নিউক্লিয়াস সংযুক্ত হয়ে 2টি হিলিয়াম ও 2টি পজিট্রন উৎপন্ন করে। উৎপন্ন পদার্থগুলির ভরের সমষ্টি ৭টি হাইড্রোজেনের ভরের তুলনায় কম। এই ভর হ্রাস শক্তিতে রূপান্তরিত হয়যা সূর্যের শক্তির প্রধান উৎস। সূর্যে প্রতি মিনিটে প্রায় 2 কোটি টন হাইড্রোজেন হিলিয়ামে রূপান্তরিত হচ্ছে ও বিপুল তাপশক্তি উৎপন্ন হচ্ছে।

৩.6, ধাতুর তড়িৎ বিশোধন বলতে কী বোঝ?
উঃ। তড়িদ বিশ্লেষণ প্রক্রিয়ার সাহায্যে সাধারণ পদ্ধতিতে নিষ্কাশিত অবিশদ্ধ।ধাতু থেকে অশুদ্ধিগুলি দূর করে বিশুদ্ধ ধাতু তৈরির পদ্ধতিকে তড়িৎবিশে বলে।

৩.৭, তড়িৎ রাসায়নিক শ্ৰেণি কাকে বলে?
উঃ। হাইড্রোজেন-এর ইলেকট্রন বর্জনের প্রবণতা শূন্য ধরে নিয়ে । অন্যান ধাতুগুলিকে তাদের ইলেকট্রন ত্যাগের প্রবণতা উলম্ব বরাবর সাজালে শ্রেণি পাওয়া যায় তাকেই তড়িৎ রাসায়নিক শ্রেণি বলে।

৩.৮. অ্যানোড মাড কী? তড়িৎ বিশ্লেষণ পদ্ধতিতে কপার ধাতুর বিশোধনে ক্যাথোড। অ্যানোড ও তড়িৎবিশ্লেষ্যগুলি লেখো?
উঃ। ধাতুর তড়িৎ পরিশোধনের সময় ব্যবহৃত অ্যানোডের নীচে অথিৰ।
ধাতুর অশুদ্ধিগুলি (Ag, Au, P) কাদার মতো জমা হয়। একে অ্যানোড মান্ত বলে। তড়িৎ বিশ্লেষণ পদ্ধতিতে কপার ধাতুর বিশোধনে অশুদ্ধ কপারের মোট দণ্ডকে অ্যানোডরূপে ও বিশুদ্ধ পাতলা কপারের পাতকে ক্যাথোডৰূপে এবা লঘু H,so, যুক্ত Cuso, দ্রবণ তড়িৎ বিশ্নেয্যরূপে নেওয়া হয়।

৩.৯. পেটা লোহার ব্যবহার লেখো।
উঃ। (i)তড়িৎ চুম্বকের সজ্জা তৈরিতে রট আয়রন ব্যবহৃত হয়।
(ii) তার, শেকল, পেরেক, রড প্রভৃতি তৈরিতে পেটা লোহা ব্যবহৃত হয়।

৩.১০. কলঙ্কহীন ইস্পাত কাকে বলে? এরূপ নামকরণের কারণ কী?
উঃ। আদ্র বায়ুতে লোহায় মরচে ধরে, কিন্তু ওর সংকর ধাতু স্টেইনলে
স্টিলে ধরে না। তাই একে কলঙ্কহীন ইস্পাত বলে।

৩.১১. ওজোন স্তরকে ওজোন ছত্র বলার তাৎপর্য ব্যাখ্যা করো।
উঃ। বায়ুমণ্ডলে স্ট্যাটোস্ফিয়ারের অন্তর্গত ওজোন স্তরকে ওজোন ছত্ৰ বলে । হাতা যেমন রোদ বৃষ্টি থেকে আমাদের রক্ষা করে, ওজোন স্তর তেমন থেকে আগত ক্ষতিকারক অতিবেগুনী রশ্মির পৃথিবীতে আগমনকে প্রতিরোধ করে। তাই ওজোন স্তরকে ওজোন ছত্র বলে।

৩.১২. জৈব গ্যাস ও বায়োগ্যাস কাকে বলে?
উঃ। মানুষ ও প্রাণীর মলমূত্ৰ, শাকসবজির খোসা, কৃষিকার্যের ফলে।
বর্জ্য, রান্নাঘরে অব্যবহৃত জৈব অবশেষ, কচুরিপানা, বৃহদাকার প্রকোষ্ঠে।মিথোনো জৈবিক ব্যাকটেরিয়ার সাহায্যে জৈবরাসায়নিক বিক্রিয়া ঘটি “বায়োগ্যাস বলে।

৩.১৩. জলাশয়ের তলা থেকে বায়ু বুদবুদ ওপরে উঠলে আয়তনে ৰাড়ে কেন?
উঃ। কারণ জলের তলার দিকের তুলনায় ওপরের দিকে চাপ কম। সেক্ষেত্রে চাপ যত কম হয় আয়তন তত বেশি হয়। সেই কারণে বুদবুদের আয়তন বাড়ে।

৩.১৪বয়েলের সূত্র বিবৃত করার সময় নির্দিষ্ট ভরের গ্যাসের কথা উল্লেখ করা হয় কেন ?
উঃ। কারণ গ্যাসের চাপ ও আয়তন গ্যাসের ভরের ওপর নির্ভরশীল। গ্যাসের ভর অপরিবর্তিত হলে চাপ ও আয়তন পরিবর্তিত হবে।

৩.১৫. তাপমোচী বিক্রিয়ায় বিক্রিয়কের তুলনায় বিক্রিয়াজাত পদার্থের ভর সামান্য কম হয় না বেশি হয়?
উঃ। কম হয়।

৩.১৬. দ্বি-ধাতব পাত কী?
উঃ। দুটি সমান দৈর্ঘ্যের ভিন্ন ধাতব পাতকে রিভেট করে যুক্ত করে দিলে যে পাত পাওয়া যায়, তাকে দ্বি-ধাতব পাত বলে।

৩.১৭. শীতকালে পাখিরা পালক ফুলিয়ে রাখে কেন?
উঃ। পাখিরা পালক ফুলিয়ে রাখলে পালকের কাকে বায়ু আবদ্ধ থাকে। বায়ু তাপের কুপরিবাহী হওয়ায় পাখিদের শরীরের তাপ বাইরে পরিবাহিত হয় না। ফলে শরীর গরম থাকে। এই কারণে শীতকালে পাখিরা পালক ফুলিয়ে রাখে।

৪.১. ইলেকট্রিক বালবের ফিলামেন্টের আর সরু ও পেচালো হয় কেন?
উঃ। পরিবাহিতে উৎপন্ন তাপ (H) পরিবাহীর রোধ সমানুপাতিক। আবার
পরিবাহীর রোধ (R) পরিবাহীর দৈর্ঘ্যের (০ সমানুপাতিক এবং প্রস্থচ্ছেদের
ক্ষেত্রফলের ব্যস্তানুপাতিক। অর্থাৎ পরিবাহী সরু এবং দীর্ঘ হলে পরিবাহীর রোধ বৃদ্ধি বৃদ্ধি পায়। ইলেকট্রিক বালবের ফিলামেন্টে ত তাপ ও আলো উৎপন্ন করার জন্য ফিলামেন্ট উচ্চ রোধ বিশিষ্ট হওয়া বাওঁনীয়। এই কারণে তারটি সরু এবং দীর্ঘ হয়। অল্প স্থানে রাখার জন্য তারটি পেচানো হয়।

৪.২. অ্যাম্পিয়ারের সন্তরণ নিয়মটি বিবৃত করো।
উঃ। অ্যাম্পিয়ারের সন্তরণ নিয়ম : তড়িৎবাহী তার বরাবর কোনো ব্যক্তি
তারের নীচে অবস্থিত চুম্বক শলাকার দিকে মুখ করে তড়িৎপ্রবাহের অভিমুখে।সাঁতার কাটতে থাকলে, ব্যক্তিটির প্রসারিত বাম হাতটি যেদিকে থাকবে চুম্বকশলাকার উত্তর মেরু সেদিকে বিক্ষিপ্ত হবে অর্থাৎ চুম্বক ক্ষেত্রের দিক নির্দেশ করবে।

৪.৩. মেন্ডেলিফের পর্যায় সূত্রটি বিবৃত করো। মেভেলিফের পর্যায় সারণীতে ।
কয়টি পর্যায় ও কয়টি শ্রেণি বর্তমান?
উঃ। মেভেলিফের পর্যায় সূত্র : বিভিন্ন মৌলের ভৌত ও রাসায়নিক ধর্ম
সমূহ তাদের পারমাণবিক গুরুত্ব বাড়ার সঙ্গে পর্যায়ক্রমে-পুনরাবৃত্ত হয়।মেডেলিফের পর্যায় সারণীতে «টি পর্যায় ও 9টি শ্রেণি আছে।. সব

৪.৪. আকরিক খনিজ কিন্তু সব খনিজ আকরিক নয়-উত্তিটির ব্যাখ্যা
করো।
উঃ। ভূগর্ভে ভূত্বকে প্রাপ্ত প্রকৃতিজাত পদার্থসমূহ মধ্যে এক
বা যাদের বা একাধিক প্রধানত যৌগরূপে অন্যান্য অশুদ্ধির সঙ্গে মিশ্রিত থাকে তাদের সংশ্লিষ্ট ধাতুর খনিজ বলে। আবার যে সমস্ত খনিজ থেকে সহজে এবং লাভজনক উপায়ে উচ্চমানের ধাতু নিষ্কাশন করা যায় তাদের আকরিক বলে। অর্থাৎ সমস্ত খনিজ থেকে সহজে ও সুলভে ধাতু নিষ্কাশন সম্ভব হয় না। তাই সমস্ত আকরিক খনিজ কিন্তু সব খনিজ আকরিক নয়। যেমন হিমটাইট (Fe,o) এবং আয়রন পাইরাইটিস (Fes) উভয়ই আয়রনের খনিজ কিন্তু হিমাইট থেকে সহজে আয়রন নিষ্কাশন সম্ভব হয় বলে হিমাটাইট আকরিক কিন্তু আয়রন পাইরাইটিস থেকে তা সম্ভব হয় বলে আয়রন পাইরাইটিস আয়রনের।

৪.৫. তড়িৎবিশ্লেষণ প্রক্রিয়ার কোন প্রকৃতির ধাতু নিষ্কাশন করা হয় এবং কেন ?
উঃ। তড়িৎ বিশ্লেষণ প্রক্রিয়ায় সক্রিয়তা সারির ওপরের ধাতুগুলি অর্থাৎ তীব্র।ধনাত্মক তড়িৎধৰ্মী ধাতুগুলিকে নিস্কাষণ করা হয়
সক্ৰিয় ধাতুগুলির আবিত্ৰজনের প্রতি তীব্ৰ আসক্তি থাকায় এদের অক্সাইড খুবস্থায়ী। তাই এই অক্সাইডগুলিকে কার্বন দ্বারা বিজারিত করে ধাতু নিষ্কাশনসম্ভব হয় না। উপযুক্ত তড়িদ্বার সহ ধাতুগুলির গলিত হাইড্রক্সাইড বা ক্লোরাইডলবনের তড়িৎ বিশ্লেষণ করলে সংশ্লিষ্ট ধাতু ক্যাথোডে জমা হয়। অর্থাৎআকরিক থেকে ধাতু নিষ্কাশিত হয়।

৪.৬. গ্যালভানাইজেশন কী? মরচে নিবারণে এই প্রক্রিয়া করা হয় কেন?
উঃ। গ্যালভাইনাইজেশন : মরিচা নিবারণের জন্য আয়রণজাত দ্রব্যের ওপর।গলিত জিংকের প্রলেপ দেওয়া হয়। একে জিংক গ্যালভানাইজেশন বলে। আয়রন অপেক্ষাজিংক অধিক তড়িৎ ধনাত্মক ধাতু। তাই জিংক ও আয়রন একই সঙ্গে উপস্থিত থাকলে আদ্র বায়ুতে আয়রনের আগে জিংক জারিত হয়। ফলে আয়রনের মরচে পড়া বাধাপ্রাপ্ত হয়। তাই মরচে নিৰারণে গ্যালভানাইজেশন করা হয়।

Madhyamik Physical Science Suggestion 2020 – পরিবেশের জন্য ভাবনা

‘ক’ বিভাগ

১.বহু বিকল্পভিত্তিক প্রশ্ন। প্রতিটি প্রশ্নের নীচে চারটি করে বিকল্প উত্তর দেওয়া আছে। যেটি ঠিক সেটি লেখোঃ

(১.১) কোন্‌ স্তরটিকে ‘শান্তমন্ডল’ বলা হয় –

(ক) ট্রোপোস্ফিয়ার (খ) স্ট্র্যাটোস্ফিয়ার (গ) মেসোস্ফিয়ার (ঘ) থার্মোস্ফিয়ার

উত্তরঃ (খ) স্ট্র্যাটোস্ফিয়ার

(১.২) বেতার তরঙ্গকে প্রতিফলিত করে বায়ুমন্ডলের কোন্‌ স্তর –

(ক) স্ট্র্যাটোপজ (খ) ওজোনোস্ফিয়ার (গ) আয়ণোস্ফিয়ার (ঘ) মেসোস্ফিয়ার

উত্তরঃ (গ) আয়ণোস্ফিয়ার

(১.৩)  কোন্‌টি গ্রিনহাউস গ্যাস –

(ক) O2 (খ) N2 (গ) O3 (ঘ) H2

উত্তরঃ (গ) O3

(১.৪) নীচের কোন্‌টি জীবাশ্ম জ্বালানি –

(ক) কয়লা (খ) খনিজ তেল (গ) প্রাকৃতিক গ্যাস (ঘ) সবগুলি

উত্তরঃ সবগুলি

(১.৫) ‘স্থিতিশীল উন্নয়ন ‘ বলতে বোঝোয় –

(ক) বর্তমানের উন্নতি (খ) ভবিষ্যতের উন্নতি (গ) ভবিষ্যতকে সুরক্ষিত রেখে বর্তমানের উন্নতি (ঘ) বর্তমানের উন্নতি রুদ্ধ করে ভবিষ্যতের উন্নতি

উত্তরঃ (গ) ভবিষ্যতকে সুরক্ষিত রেখে বর্তমানের উন্নতি

(১.৬) জীবাশ্ম জ্বালানিগুলির মধ্যে সবচেয়ে কম দূষণ ঘটায় –

(ক) ডিজেল (খ) কয়লা (গ) কেরোসিন (ঘ) প্রাকৃতিক গ্যাস

উত্তরঃ (ঘ) প্রাকৃতিক গ্যাস

(১.৭) গ্রিনহাউস প্রভাব সৃষ্টিতে CO2 গ্যাসের অবদান প্রায় –

(ক) 30% (খ) 20% (গ) 50% (ঘ) 60%

উত্তরঃ (গ) 50%

(১.৮) অ-পুনর্নবীকরনযোগ্য শক্তির উৎস হল –

(ক) বায়ুশক্তি (খ) পেট্রোলিয়াম শক্তি (গ) পারমানবিক শক্তি (ঘ) সৌর

শক্তি

উত্তরঃ (খ) পেট্রোলিয়াম শক্তি

(১.৯) নীচের কোন্‌টি পরিবেশ-বান্ধব জ্বালানি –

(ক) কয়লা (খ) ডিজেল (গ) বায়োগ্যাস (ঘ) কেরোসিন

উত্তরঃ (গ) বায়োগ্যাস

(১.১০) বায়ুশক্তি সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয় কোন্‌ দেশে –

(ক) জার্মানি (খ) ভারতবর্ষ (গ) USA (ঘ) ডেনমার্ক

উত্তরঃ (ক) জার্মানি

‘খ’ বিভাগ

২. নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাওঃ

(২.১) বায়ুমন্ডলের কোন্‌ স্তরটি শীতলতম?

উত্তরঃ মেসোস্ফিয়ার

(২.২) বিশুদ্ধ শুষ্ক বাতাসে কার্বন-ডাই-অক্সাইডের শতকরা ভাগ কত?

উত্তরঃ 0.032%

(২.৩) অতিবেগুনি রশ্মি চোখের কী ক্ষতি করে?

উত্তরঃ কর্নিয়া ক্ষতিগ্রস্ত হয় এবং অসময়ে ছানি পড়ে

(২.৪) CFC এর পুরো নাম কী?

উত্তরঃ ক্লোরোফ্লরোকার্বন

(২.৫) কোন্‌ জ্বালানির তাপনমূল্য সবচেয়ে বেশি?

উত্তরঃ হাইড্রোজেন

(২.৬)  ‘পৃথিবীর ছাতা'(Umbrella of the Earth) বলা হয় বায়ুমন্ডলের কোন্‌ স্তরকে।

উত্তরঃ  বায়ুমন্ডলের ওজোন স্তরকে।

(২.৭) শূন্যস্থান পূরন করোঃ

ট্রোপোস্ফিয়ার ও স্ট্র্যাটোস্ফিয়ারের সীমানা নির্দেশক অঞ্চলটিকে বলা হয়_____________।

উত্তরঃ ট্রোপোপজ

(২.৮) শূন্যস্থান পূরন করোঃ

মিথেন হাইড্রেট একপ্রকার কঠিন _____________ যৌগ।

উত্তরঃ ক্ল্যাথরেট

(২.৯) সত্য না মিথ্যা লেখোঃ

বিজ্ঞানী জো ফোরম্যান সর্বপ্রথম লক্ষ করেন আন্টার্কটিকার উপরিভাগে ওজোন স্তরটি ক্রমশ পাতলা হয়ে যাচ্ছে।

উত্তরঃ সত্য

(২.১০) সত্য না মিথ্যা লেখোঃ

জেট বিমানের বর্জ্য গ্যাসে প্রচুর নাইট্রিক অক্সাইড থাকে।

উত্তরঃ সত্য

‘গ’ বিভাগ

৩. নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাওঃ

(৩.১) ওজোন ছিদ্র বা ওজোন গহ্বর কী?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.২) ‘গ্রিনহাউস প্রভাব’ বলতে কী বোঝো?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৩) গ্লোবাল ওয়ার্মিং কাকে বলে?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৪) ‘জীবাশ্ম জ্বালানি’ বলতে কী বোঝো?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৫) মানুষের দ্বারা সৃষ্ট বা ব্যবহৃত কয়েকটি রাসায়নিক পদার্থের নাম করো যেগুলি ‘ওজোন গহ্বর’ সৃষ্টির জন্য দায়ী?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৬) ‘স্থিতিশীল উন্নয়ন’ বলতে কী বোঝো?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৭) মেরুজ্যোতি কীভাবে সৃষ্টি হয়?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৮) বায়ুমন্ডলের কটি ভাগ করা হয় ও কী কী?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৯) ‘পেট্রোপ্ল্যান্ট’ কাদের বলা হয়?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.১০) মিথেন হাইড্রেট কী?

উত্তরঃ নিজে করো।

Madhyamik Physical Science Suggestion 2020 – গ্যাসের আচারন

‘ক’ বিভাগ

১.) বহু বিকল্প ভিত্তিক প্রশ্ন । প্রতিটি প্রশ্নের নীচে চারটি করে বিকল্প উত্তর দেওয়া আছে । যেটি সঠিক সেটি লেখো :-

১.১) বাস্তব গ্যাসগুলি আদর্শ গ্যাসের মতো আচরন করে –

ক.) উচ্চচাপ ও নিন্ম উষ্ঞতায় । খ.) নিম্নচাপ ও উচ্চ উষ্নতায় । গ.) নিম্নচাপ ও নিম্ন উষ্নতায় । ঘ.) উচ্চচাপ ও উচ্চ উষ্নতায় ।

* উত্তর :- নিম্নচাপ ও উচ্চ উষ্নতায় ।

১.২) CGS পদ্ধতি ও SI- তে ক্ষেএফলের একক হল –

ক.) m2,cm2  খ.) m3,cm3 গ.) cm3,m3 ঘ.) cm2,m2 .

* উত্তর :- cm2,m2

১.৩) ফারেনহাহট স্কেলে পরমশূন্য উষ্নতার মান হল –

ক.) -452.4*F খ.) -462.4*F গ.) -459.4*F ঘ.) -463.4*F

* উত্তর :- -459.4*F

১.৪) জলের মোলার ভর –

ক) 16g খ.) 18g গ.) 20g ঘ.) 22g

*উত্তর :- 18g

১.৫) বয়েলের সুএে ধ্রুবক হল –

ক.) শুধুমাএ গ্যাসের ভর । খ.) শুধুমাএ গ্যাসের তাপমাএা । গ.) গ্যাসের ভর ও চাপ । ঘ.) গ্যাসের ভর ও উষ্নতা ।

*উত্তর :-  গ্যাসের ভর ও উষ্নতা ।

১.৬) একটি অক্সিজেন  অনুর ভর –

ক.) 5.31×10-23g.  খ.) 10.62×10-23g. গ.) 15.93×10-23g.  ঘ.) 2.65×10-23g .

*উত্তর :-5.31×10-23g

১.৭) পরম স্কেলে জলের হিমাঙ্ক হল –

ক.) 0k খ.) 273k গ.) 373k ঘ.) 173k

*উত্তর :- 273 ।

১.৮) ঘরের তাপমাএা 76 cm  পারদ চাপে কোনো নির্দিষ্ট ভরের গ্যাসের আয়তন 1L । তপমাএা অপরিবর্তিত রাখলে 38cm পারদ চাপে ওই গ্যাসের আয়তন হবে –

ক.) 1.5 খ.) 2L গ.) 3L ঘ.) 4L .

*উত্তর :- 2L

১.৯) সর্বজনীন গ্যাস ধ্রুবকের মাএিয় সঙ্কেত হল –

ক.)  ML2TN-10-1 খ.) ML2T-2N-1O-1 গ.) ML2T-2N-1 ঘ.) ML2T-1N-1O-1

*উত্তর :- ML2T-2N-1O-1

১.১০) স্খির উষ্নতায় নির্দিষ্ট ভরের কোনো গ্যাসের চাপ 1/4 ভাগ করা হলে আয়তন বাড়বে –

ক.) 2গুন । খ.) 3গুন । গ.) 4গুন । ঘ.) 5গুন ।

*উত্তর :- 3 গুন ।

‘খ’ বিভাগ

নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাও :-

২.১) কোন যন্ত্রের সাহায্যে কোনো পাএে আবদ্ধ বায়ুর   চাপ মাপা হয় ?

*উত্তর:- ম্যানোমিটার ।

২.২) চার্লসের সূএে ধ্রুবক গুলি কী কী ?

*উত্তর:- গ্যাসের ভর ও উষ্ঞতা

২.৩) পরম স্কেলে জলের স্ফুটনাঙ্ক কত ?

*উত্তর:- 373K

২.৪) সেলসিয়াস স্কেলে 400K উষ্ঞতার মান কত ?

*উত্তর:- (400-273)০C=127০C

২.৫) STP-তে 22.4L কোনো গ্যাসে অনুর সংখ্যা কত ?

*উত্তর:-6.022×10²³ টি ।

২.৬) STP-তে কোনো গ্যাসিয় পদার্থের মোলার। আয়তনের সীমাস্থ মান কত ?

*উত্তর:- 22.4L বা 22400mL.

২.৭)সত্য না মিথ্যা লেখো :-

বয়েল ও চার্লসের সূএের সমন্বয় সূএের গানিতিক রুপ PV/T= ধ্রুবক

*উত্তর:- সত্য

২.৮)সত্য না মিথ্যা লেখোঃ

30*C উষ্ঞতা 300K উষ্ণতা অপেক্ষা বেশি ।

*উত্তর:- সত্য

২.৯) শূন্যস্থান পুরন করো :-

কোনো আবদ্ধ গ্যাসের উষ্ঞতা বৃদ্ধি করলে অনুগুলির গতিশক্তি ………….পায় ।

*উত্তর:- বৃদ্ধি

২.১০)শূন্যস্থান পুরন করোঃ

ডালটনের পরমানুবাদ ও গে-লুসাকের গ্যাস আয়তন সূএের মধ্যে সংযোগ স্থাপন করে…………প্রকল্প।

*উত্তর:- অ্যাভোগাড্রো

‘গ’ বিভাগ

(৩) নিন্মলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাওঃ

(৩.১) পরম শূণ্য উষ্ণতা কাকে বলে?

উত্তরঃ স্থির চাপে -273*C উষ্ণতায় যে কোনো গ্যাসের আয়তন শূন্য হয়ে যাবে। এই উষ্ণতাকে পরম শূন্য উষ্ণতা বলা হয়।

(৩.২) বয়েলের সূত্র অনুয়ায়ী গ্যাসের pV-p লেখচিত্র আঁকো।

উত্তরঃ বয়েলের সূত্রানুয়ায়ী, স্থির উষ্ণতায় নির্দিষ্ট ভরের কোনো গ্যাসের ক্ষেত্রে pV=ধ্রূবক হয়। গ্যাসের  চাপ p-কে ভুজ এবং চাপ ও আয়তনের গুনফল (pV) কে কোটি ধরে যে লেখচিত্র পাওয়া যায় তা নীচের ছবিতে দেখানো হয়েছে। লেখচিত্রের প্রকৃতি হল সরলরেখা। এটি চাপ অক্ষের সমান্তরাল হয়।
(৩.৩) চার্লসের সূত্রটি লেখো।

উত্তরঃ চাপ স্থির থাকলে নির্দিষ্ট ভরের কোনো গ্যাসের আয়তন প্রতি 1*C উষ্ণতা বৃদ্ধি বা হ্রাস করলে 0*C উষ্ণতায় ওই গ্যাসের আয়তনের 1/273 অংশ যথাক্রমে বৃদ্ধি বা হ্রাস পায়।

(৩.৪) -273*C উষ্ণতাকে পরম শূন্য উষ্ণতা বলা হয় কেন?

উত্তরঃ চার্লসের সূত্র থেকে পরম শূন্য উষ্ণতার যে ধারণা পাওয়া যায়, তা গ্যাসের প্রকৃতির ওপর নির্ভর শীল নয়। অর্থাৎ , যে কোনো গ্যাসের ক্ষেত্রেই এটি প্রযোজ্য। এর চেয়ে কম উষ্ণতায় গ্যাসের আয়তন ঋণাত্মক হয় যা বাস্তবে সম্ভব নয়। এই কারনে -273*C উষ্ণতাকে পরম শূন্য উষ্ণতা বলা হয়।

(৩.৫) ফারেনহাইট স্কেলে পরম শূন্য উষ্ণতার মান নির্ণয় করো।

উত্তরঃ সেলসিয়াস স্কেলে পরম শূন্য উষ্ণতা (C)= -273*C।

মনে করি, ফারেনহাইট স্কেলে পরমশূন্য উষ্ণতার পাঠ=F।

.’.C/5=F-32/9 এই সমীকরন থেকে পাই,

273/5=F-32/9

বা, 5F-160=-2457

বা, 5F=-2297

বা, F=-459.4*F

(৩.৬) অ্যাভোগাড্রো প্রকল্পটি লেখো।

উত্তরঃ একই চাপ ও উষ্ণতায় সম-আয়তনবিশিষ্ট সকল গ্যাসেই(মৌলিক বা যৌগিক)

সমান সংখ্যক অনু বর্তমান।

(৩.৭) গে-লুসাকের গ্যাস আয়তন সূত্রটি লেখো।

উত্তরঃ গ্যাসীয় বিক্রিয়ায় অংশগ্রহণকারী বিক্রিয়ক গ্যাসগুলি সমচাপ ও উষ্ণতায়

তাদের আয়তনের সরল অনুপাতে বিক্রিয়া করে এবং বিক্রিয়াজাত পদার্থ যদি গ্যাসীয়

হয় তাহলে একই চাপ ও উষ্ণতায় বিক্রিয়াজাত পদার্থের আয়তন বিক্রিয়কগুলির

আয়তনের সঙ্গে সরল অনুপাতে থাকবে।

(৩.৮) সর্বজনীন গ্যাস ধ্রূবক কাকে বলে?

উত্তরঃ 1 মোল আদর্শ গ্যাসের ক্ষেত্রে pV/T এর মান বা R সকল গ্যাসের ক্ষেত্রে

সমান, এই মান গ্যাসের প্রকৃতির ওপর নির্ভর করে না। এই R ধ্রূবককে মোলার গ্যাস

ধ্রূবককে মোলার গ্যাস ধ্রূবক বা সর্বজনীন গ্যাস ধ্রূবক বলা হয়।

‘ঘ’ বিভাগ

(৪) নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাওঃ

(৪.১) বয়েলের সূত্রটি লেখো ও ব্যাখ্যা করো।

উত্তরঃ উষ্ণতা স্থির থাকলে নিদির্ষ্ট ভরের কোনো গ্যাসের আয়তন, ওই গ্যাসের চাপের

সঙ্গে ব্যস্তানুপাতে পরিবর্তিত হয়।

কোনো নিদির্ষ্ট ভরের গ্যাসের উষ্ণতা অপরিবর্তিত থাকলে, গ্যাসের চাপ  আয়তনের

গুনফল ধ্রূবক হয়।

নিদির্ষ্ট ভরের কোনো গ্যাসের উষ্ণতা স্থির থাকলে, P1 চাপে গ্যাসের আয়তন V1

এবং P2 চাপে গ্যাসের আয়তন V2 হলে বয়েলের সূত্রানুয়ায়ী,

P1V1=P2V2

(৪.২) বয়েল ও চার্লসের সূত্রের সমন্বিত রূপটি প্রতিষ্ঠা করো।

উত্তরঃ মনে করি, ভরের কোনো গ্যাসের T পরম উষ্ণতায় চাপ p ও আয়তন V।

বয়েলের সূত্রানুয়ায়ী, V’a’1/P(যখন গ্যাসের ভর ও T স্থির)

চার্লসের সূত্রানুয়ায়ী, V’a’T(যখন গ্যাসের ভর ও P স্থির)

যৌগিক ভেদের সূত্রানুয়ায়ী, V’a’T/P(যখন গ্যাসের ভর স্থির কিন্তু  TওP উভয়ই পরিবর্তনশীল)

বা, V=KT/P বা, pV=KT বা, pV/T=K….(1)

যেখানে K হল ভেদ ধ্রূবক। কোনো নিদির্ষ্ট ভরের গ্যাসের প্রাথমিক চাপ, আয়তন ও পরম তাপমাত্রা যথাক্রমে p1, V1, T1 এবং অন্তিম চাপ, আয়তন ও পরম তাপমাত্রা যথাক্রমে p2,V2 ও T2 হলে (1) নং সমীকরনে পাই, p1V1/T1=K এবং p2V2/T2=K।

.’. p1V1/T1=p2V2/T2

এই সমীকরনটি হল বয়েল ও চার্লসের সূত্রের সমন্বিত রূপ।

(৪.৩) আদর্শ গ্যাস ও বাস্তব গ্যসের তিনটি পার্থক্য লেখো।

উত্তরঃ আদর্শ গ্যাস ও বাস্তব গ্যাসের প্রধান তিনটি পার্থক্য গুলি হল-

প্রথমত, আদর্শ গ্যাস যে কোনো চাপ ও উষ্ণতায়  pV=nRT সমীকরন মেনে চলে, কিন্তু বাস্তব গ্যাস নিম্নচাপ বা উচ্চ উষ্ণতা ব্যতীত pV=nRT সমীকরন মেনে চলে না।

দ্বিতীয়ত, আদর্শ গ্যাসের অনুগুলির আয়তনকে অগ্রাহ্য করা হয়, তবে বাস্তব গ্যাসের অনুগুলির আয়তন ক্ষুদ্র হলেও তা গ্রাহ্য করা হয়।

তৃতীয়ত, আদর্শ গ্যাসের অনুগুলির মধ্যে কোনো আকর্ষণ বল নেই, কিন্তু বাস্তব গ্যাসের অনুগুলির মধ্যে আকর্ষণ বল আছে।

(৪.৪) 27oC উষ্ণতায় কোনো গ্যাসের আয়তন 3L। চাপ স্থির রেখে উষ্ণতা 127oC করা হলে গ্যাসটির আয়তন হয় 4L। পরম শূন্য উষ্ণতার মান নির্ণয় করো।

উত্তরঃ মনে করি, পরম শূন্য উষ্ণতা = T0oC’

.’.গ্যাসটির প্রাথমিক উষ্ণতা(T1)=(27-To)K ও আয়তন(V1)=3L এবং গ্যাসটির অন্তিম উষ্ণতা

(T2)=(127-To) K ও আয়তন(V2)=4L।

যেহেতু গ্যাসটির চাপ স্থির, সেহেতু চার্লসের সূত্রানুয়ায়ী, V1/T1=V2/T2 বা, 3/27-To=4/127-To

বা, 381-3To=108-4To বা, To=-273

.’.পরম শূন্য উষ্ণতার মান হল -273oC।

Madhyamik Physical Science Suggestion 2020 – রাসায়নিক গননা

‘ক’ বিভাগ

(১) বহু বিকল্পভিত্তিক প্রশ্ন। প্রতিটি প্রশ্নের নীচে চারটি করে বকল্প উত্তর দেওয়া আছে। যেটা ঠিক সেটি লেখোঃ

(১.১) ভর ও শক্তির তুল্যতা সমীকরণটি হল –

(ক) E2=mc (খ) E= mc2 (গ) E=m2c (ঘ) E=mc

উত্তরঃ (গ) E=mc2

(১.২) ভরের সংরক্ষণ সূত্রের প্রবর্তক হলেন –

(ক) ডালটন (খ) প্রাউস্ট  (গ) ল্যঁভয়সিয়ে (ঘ) আরহেনিয়াস

উত্তরঃ (গ) ল্যঁভয়সিয়ে

(১.৩) বায়ুর গড় বাষ্পঘনত্ব –

(ক) ১৪.৪ (খ) ১৬.৫ (গ) ১৭.২ (ঘ) ২০.১

উত্তরঃ (ক) ১৪.৪

(১.৪) E=mc2 সমীকরণের সাথে কোন্‌ বিজ্ঞানীর নাম যুক্ত –

(ক) নিউটন (খ) প্ল্যাঙ্ক (গ) অ্যাভোগাড্রো (ঘ) আইনস্টাইন

উত্তরঃ (ঘ) আইনস্টাইন

(১.৫) ১ মোল নাইট্রোজেন, ৩ মোল হাইড্রোজেনের সাথে যুক্ত হলে উৎপন্ন হবে –

(ক) ১ মোল NH3 (খ) ২ মোল NH3 (গ) ৩ মোল

NH3 (ঘ) ৪ মোল NH3

উত্তরঃ (খ) ২ মোল NH3

(১.৬) E=mc2 সমীকরনে E, m ও c হল  যথাক্রমে –

(ক) ভর, শক্তি, শূন্য মাধ্যমে আলোর বেগ (খ) শূন্য মাধ্যমে আলোর বেগ ভর, শক্তি (গ) শক্তি, ভর, শূন্য মাধ্যমে আলোর বেগ (ঘ) শক্তি, শূন্য মাধ্যমে আলোর বেগ, ভর

উত্তরঃ (গ) শক্তি, ভর, শূন্য মাধ্যমে আলোর বেগ

(১.৭) কোনো গ্যাস বায়ুর চেয়ে ভারী বোঝা যায় –

(ক) জলীয়বাষ্পে  (খ) বাষ্পঘনত্বে (গ) চাপে (ঘ) ভরে

উত্তরঃ (খ) বাষ্পঘনত্বে

(১.৮) রাসায়নিক সমীকরন থেকে কোন্‌ বিষয়টি জানা যায় না –

(ক) বিক্রিয়ক ও বিক্রিয়াজাত পদার্থের মোলসংখ্যা (খ) STP তে

বিক্রিয়ক ও বিক্রিয়াজাত পদার্থের আয়তন (গ) বিক্রিয়ক ও বিক্রিয়াজাত পদার্থের গাঢ়ত্ব (ঘ) বিক্রিয়ক ও বিক্রিয়াজাত পদার্থের ভর

উত্তরঃ (গ) বিক্রিয়ক ও বিক্রিয়াজাত পদার্থের গারত্ব

(১.৯) ৪ মোল জল উৎপন্ন করতে কত মোল H2 ও কত মোল O2 বিক্রিয়া করবে –

(ক) ২ মোল H2 ও ১ মোল O2 (খ) ৪ মোল H2 ও 2 মোল O2 (গ) ৮ মোল H2 ও ৪ মোল O2 (ঘ) ১৬ মোল H2 ও ৮ মোল

O2।

উত্তরঃ (খ) ৪ মোল H2 ও ২ মোল O2

(১.১০) ৩৬ গ্রাম জল তৈরি করতে হাইড্রোজেন লাগবে-

(ক) ২ গ্রাম (খ) ৩ গ্রাম (গ) ৪ গ্রাম (ঘ) ৫ গ্রাম

উত্তরঃ (গ) ৪ গ্রাম

‘খ’ বিভাগ

(৪) নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাওঃ

(৪.১) “রাসায়নিক বিক্রিয়ায় ভরের সংরক্ষন হয়” – ব্যাখ্যা করো।

উত্তরঃ রাসায়নিক বিক্রিয়ক পদার্থ, বিক্রিয়াজাত পদার্থে রূপান্ত্রিত হয়। বিক্রিয়ার পূর্বে বিক্রিয়ক  পদার্থের ভর যা ছিল, বিক্রিয়ার পরে বিক্রিয়াজাত পদার্থের ভর তার সমান হয়।

অর্থাৎ, যদি  X এবং Y বিক্রায়া করে A এবং B উৎপন্ন করে, তবে রাসায়নিক বিক্রিয়াটির ক্ষেত্রে— X+Y(ভর) = A+B(ভর)।

(৪.২) মোমবাতির দহনের ফলে ভরের হ্রাস পেলও কিভাবে ভরের সংরক্ষণ ঘটে?

উত্তরঃ এক্ষেত্রে মোমবাতি জ্বালার সময় বাতাসের অক্সিজেনের সঙ্গে যুক্ত হয়ে কার্বণ ডাই অক্সাইড গ্যাস ও জলীয় বাষ্প উৎপন্ন করে, যেগুলি উৎপন্ন হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বাতাশে মিশে যায়। উৎপন্ন CO2 ও H2O এর ভর মাপা সম্ভব হলে দেখা যেত, মোমবাতি এবং তার সাথে যুক্ত O2 এর মোট ভর উৎপন্ন CO2 ও H2O এর মোট ভরের সমান।

(৪.৩) রাসায়নিক সমীকরণের কয়েকটি সীমাবদ্ধতা উল্লেখ করো?

উত্তরঃ রাসায়নিক সমীকরণের প্রধান সীমাবদ্ধতা গুলি হল —

প্রথমত,  বিক্রিয়ক ও বিক্রিয়াজাত পদার্থগুলির গাঢ়ত্ব জানা যায় না।

দ্বিতীয়ত, বিক্রায়াটির গতিবেগ সম্বন্ধে বা বিক্রিয়াটির সম্পূর্ণ হতে কত সময়ের প্রয়োজন তা জানা যায় না।

তৃতীয়ত, বিক্রিয়াটি সম্পূর্ণ হয়েছে কিনা তা জানা যায় না।

(৪.৪) 9.6 গ্রাম অক্সিজেন প্রস্তুত করতে কত গ্রাম পটাশিয়াম ক্লোরেট প্রয়োজন? [ K=39,Cl=35.5]

উত্তরঃ পটাশিয়াম ক্লোরেটের তাপীয় বিয়োজনে O2 প্রস্তুতির বিক্রিয়ার রাসায়নিক সমীকরণটি হল–  2KClO3—->2KCl+3O2

ওপরের সমীকরণ অনুসারে , 96g O2 প্রস্তুত করতে KClO3 প্রয়োজন=245g

.’. 9.6 g O2 প্রস্তুত করতে প্রয়োজনীয়  KClO3 এর পরিমান= 245*9.6/96g=24.5g।

(৪.৫) 20 গ্রাম ক্যালশিয়াম কার্বনেটকে উত্তপ্ত করলে কত ভরের ক্যালশিয়াম অক্সাইড পাওয়া যাবে? এক্ষেত্রে STP তে কত আয়তন CO2 উৎপন্ন হবে? ধরে নাও ক্যালশিয়াম কার্বনেটের সম্পূর্ন বিয়োজন হয়েছে?[Ca=40, C=12, O=16]

উত্তরঃ CaCO3—>CaO+CO2

100g CaCO3 কে উত্তপ্ত করলে CaO পাওয়া যায়=56g

.’. 20g CaCO3 কে উত্তপ্ত করলে CaO পাওয়া যায়=56*20/100g=11.2g

.’.CO2 উৎপন্ন হবে=(20-11.2)g=8.8g

STP তে 44g CO2 এর আয়তন=22.4L

STP তে 8.8g CO2 এর আয়তন=22.4*8.8/44=4.48L

(৪.৬) 15.9g গ্রাম কপার সালফেট ও 10.6g সোডিয়াম কার্বনেট বিক্রিয়া করে 14.2g সোডিয়াম

সালফেট ও 12.3g কপার কার্বনেট উৎপন্ন করে। দেখাও যে, এই তথ্যগুলি রাসায়নিক বিক্রিয়ায় ভরের সংরক্ষনকে সমর্থন করে?

উত্তরঃ প্রদত্ত বিক্রিয়ায় বিক্রিয়কগুলির মোট ভরঃ

কপার সালফেটের ভর     = 15.9 g

সোডিয়াম কার্বনেটের ভর = 10.6 g

——————————-

বিক্রিয়কগুলির মোট ভর  = 26.5 g

বিক্রিয়াজাত পদার্থগুলির মোট ভরঃ

সোডিয়াম সালফেটের ভর = 14.2 g

কপার কার্বনেটের ভর        = 12.3 g

——————————–

বিক্রিয়াজাত পদার্থের মোট ভর =26.5 g

প্রদত্ত বিক্রিয়ায়, বিক্রিয়কগুলির মোট ভর = বিক্রিয়াজাত পদার্থগুলির মোট ভর

(৪.৭) 7 গ্রাম হাইড্রোজেন গ্যাস প্রস্তুত করতে কত গ্রাম অবিশুদ্ধ জিংক প্রয়োজন? অবিশুদ্ধ জিংকে 88% জিংক বর্তমান।[ Zn=65.5]

উত্তরঃ Zn+H2SO4—>ZnSO4+H2

উপরের সমীকরণ অনুসারে,

2g H2 উৎপন্ন করতে Zn প্রয়োজন=65.5g

.’. 7g H2 উৎপন্ন করতে Zn প্রয়োজন=65.5/2*7g=229.25g

এখন, 88g বিশুদ্ধ Zn আছে 100g অবিশুদ্ধ Zn এর নমুনায়

.’. 229.25g বিশুদ্ধ Zn আছে 100*229.25/88g = 260.51g অবিশুদ্ধ Zn

Madhyamik Physical Science Suggestion 2020 – তাপ

‘ক’ বিভাগ

১. বহুবিকল্প ভিত্তিক প্রশ্ন । প্রতিটি প্রশ্নের নীচে চারটি করে বিকল্প উত্তর দেওয়া আছে । যেটি সঠিক সেটি লেখো :-

(১.১) নীচের কোনটি তাপের সুপরিবাহী –

(a)কর্ক (b)গ্রাফাইট (c)কাঠ (d) বায়ু

*উত্তর:- (b)গ্রীফাইট

(১.২) আয়তন প্রসারন গুনাঙ্কের মাএিয় সংকেত কী –

(a)L³0-¹ (b)0-² (c)0-¹

*উত্তর:- (c) 0-¹

(১.৩) হীরে –

(a)তাপ ও তড়িতের সুপরিবাহী (b)তাপ ও তড়িতের কুপরিবাহী (c)তাপের কুপরিবাহী, তড়িতের সুপরিবাহী (d)তাপের সুপরিবাহী, তড়িতের কুপরিবাহী ।

*উত্তর:- (d)তাপের সুপরিবাহী, তড়িতের কুপরিবাহী ।

(১.৪) গ্যাসের প্রসারনের সময় প্রাথমিক উষ্ঞতা ধরা হয় –

(a)যে কোনো উষ্ঞতা (b)0k (c)0*C (d)4*C

*উত্তর:- (c) 0*C

(১.৫) একটি ধাতব পাতের মাঝে একটি ছিদ্র আছে । তাপমাএা বৃদ্ধি করলে –

(a)ছিদ্রের ব্যাসার্ধ হ্রাস পাবে (b) ছিদ্রের ব্যাসার্ধ বৃদ্ধি পাবে (c) ছিদ্রের ব্যাসার্ধ অপরিবর্তিত থাকবে (b)কোনোটিয় নয় ।

*উত্তর:- (b) ছিদ্রের ব্যাসার্ধ বৃদ্ধি পাবে ।

(১.৬) নিম্নলিখিত তরল গুলির মধ্যে কোন তরলের ব্যতিক্রান্ত প্রসারন দেখা যায় –

(a)পারদ (b)কেরোসিন (c)গ্লিসারিন (d)জল

*উত্তর:- (d)জল

(১.৭) 4m দৈর্ঘ্যের কোনো ধাতব দন্ডের তাপমাএা 2*C বৃদ্ধি করলে দৈর্ঘ্য বৃদ্ধি হয়- 88×10-6m । দন্ডের d-হল-(a)9×10-6*C-¹ (b)10×10-6*C-¹ (c)11×10-6*C-¹ (d)12×10-6*C-¹

*উত্তর:- (c)11×10-6*C-¹

(১.৮) নিম্নলিখিত ধাতুগুলির মধ্যে কোন ধাতুর পরিবাহিতা সবচেয়ে বেশি –

(a)তামা (b)অ্যালুমিনিয়াম (c)রুপো (d)সোনা

*উত্তর:- (c)রুপো ।

(১.৯)তাপীয় রোধের মাএিয় সংকেত হল –

(a)M-¹L-²T-³0-¹ (b)M-¹L-³T-³0 (c)ML-²T-³0 (d) M-¹L-²T-³0

*উত্তর:- (d) M-¹L-²T-³0

(১.১০) কঠিনের দৈর্ঘ্য প্রসারন নির্ভর করে –

(a)প্রাথমিক দৈর্ঘ্যের উপর (b)উষ্নতা বৃদ্ধির ওপর (c)উপাদানের উপর (d)সবকটির উপর ।

*উত্তর:- (d)সবকটির উপর ।

(খ)-বিভাগ

(২) নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাও :-

(২.১) তাপের সুপরিবাহী একটি তরল পদার্থের উদাহরন দাও ।

*উত্তর:- পারদ

(২.২) দ্বিধাতব পাতের একটি ব্যবহার লেখো ।

*উত্তর:- থার্মোস্ট্যাট হিসেবে।

(২.৩) হিরে না তামা – কোনটি তাপ পরিবাহিতা বেশি ?

*উত্তর:- হিরের প্রায় পাঁচ গুন

(২.৪) তরলের কোন প্রসারন গুনাঙ্ক পাএের প্রসারনের উপর নির্ভর করে ?

*উত্তর:-আপাত প্রসারন গুনাঙ্ক

(২.৫) এমন একটি পদার্থের নাম লেখো-যার তড়িত পরিবাহিতা অত্যান্ত কম হলেও তাপ পরিবাহিতা অত্যান্ত বেশি ?

*উত্তর:- হিরে

(২.৬) কঠিনের তাপীয় প্রসারন কয় প্রকার ও কী কী ?

*উত্তর:- তিন প্রকার –  দৈর্ঘ্য, ক্ষেএ, আয়তন-প্রসারন ।

(২.৭) হিরের তাপ পরিবাহিতার মান কত ?

*উত্তর:- 5.2380cal.cm-¹s-¹k-¹

(২.৮) শূন্যস্থান পুরন করো :-

কোনো কঠিন পদার্থের দৈর্ঘ্য প্রসারন…………× দৈর্ঘ্য প্রসারন গুনাঙ্ক ×উষ্ঞতা বৃদ্ধি ।

*উত্তর:- প্রাথমিক দৈর্ঘ্য ।

(২.৯) শূন্যস্থান পুরন করো :-

গ্যাসের আয়তন-প্রসারন গুনাঙ্কের মান হল………….. ।

*উত্তর:- 1/273*C-¹

(২.১০) সত্য না মিথ্যা লেখো :-

গ্যাসপূর্ন বেলুনে তাপ দিলে এর আয়তন ও চাপ উভয়ই বৃদ্ধি পায় ।

*উত্তর:- সত্য ।

‘ঘ’ বিভাগ

(৪) নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাওঃ

(৪.১) কঠিনের দৈর্ঘ্য প্রসারন গুণাঙ্ক বলতে কী বোঝ? লোহার দৈর্ঘ্য প্রসারন গুণাঙ্ক 12*10-6/oC বলতে কী বোঝ?

*উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.২) লোহার আয়তন প্রসারন গুণাঙ্ক 36*10-6/oC বলতে কী বোঝ? ঢালাই এর সময় কেন লোহার রডই ব্যবহার করা হয়, অন্য ধাতুর রড নেওয়া হয় না কেন?

*উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৩) অভিন্ন আকারের একটি তামার পাত এবং একটি লোহার পাতকে রিভেট করে যুক্ত করা হল। এই সংস্থাটিকে উত্তপ্ত অথবা শীতল করলে কী ঘটবে? দ্বিধাতব পাতের একটি ব্যবহার লেখো।

*উত্তরঃ নিজে করো ।

(৪.৪) তাপ পরিবহনের ক্ষেত্রে স্থিতপূর্ব অবস্থা বলতে কী বোঝ? একটি পরীক্ষার সাহায্যে দেখাও যে, বিভিন্ন পদার্থের তাপ পরিবহনের  ক্ষমতা বিবিন্ন।

*উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৫) শীতকালে একই উষ্ণতায় থাকা একটি কাঠের চেয়ার এবং একটি লোহার চেয়ার হাত দিলে লোহার চেয়ারটি বেশি ঠান্ডা মনে হয় কেন? কী শর্তে একটি লোহার চেয়ার ও একটি কাঠের চেয়ার সমান উষ্ণ বলে অনুভূত হবে?

*উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৬) কঠিনের ক্ষেত্রে প্রসারন গুণাঙ্ক কাকে বলে? কঠিন পদার্থের আয়তন প্রসারন গুণাঙ্ক বলতে কী বোঝ?

*উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৭) তরলের আপাত প্রসারন গুণাঙ্ক বলতে কী বোঝ? তরলের প্রকৃত প্রসারন কাকে বলে?

*উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৮) তাপ পরিবহনের ক্ষেত্রে স্থিতাবস্তা কাকে বলে? তাপ পরিবাহিতাংক কাকে বলে?

*উত্তরঃ নিজে করো।

Madhyamik Physical Science Suggestion 2020 – আলো

‘ক’ বিভাগ

(১) বহু বিকল্প ভিত্তিক প্রশ্ন । প্রতিটি প্রশ্নের নিচে চারটি করে বিকল্প উত্তর দেওয়া আছে । যেটা সঠিক সেটা লেখো ।

(১.১) বায়ু থেকে কোনো স্বচ্ছ তরলে আলোর প্রতিসরনে আপতন কোন 60* ও প্রকিসরন কোন 45* হলে চ্যুতি কোন –

(a) 10* (b) 30* (c) 15* (d) 20*

*উত্তর:- (c) 15*

(১.২)সাদী আলো বিশুদ্ধ বর্নালির প্রান্তিক বর্ন দুটি হল –

(a) লাল ও সবুজ (b) বেগুনি ও কমলা (c) নীল ও আকাশি (d) লাল ও বেগুনি ।

*উত্তর:- (d) লাল ও বেগুনি

(১.৩) আলোর প্রতিসরনে অপরিবর্তিত থাকে –

(a) আলোর গতিবেগ (b) তরঙ্গ দৈর্ঘ্য (c) কপাঙ্ক (d) বিস্তার

*উত্তর:- (c) কপাঙ্ক

(১.৪) দাঁতের ডাক্তাররা কোন দর্পন ব্যাবহার করে ?

(a)  সমতল (b) অবতল (c) উত্তল (d) অধিবৃত্তিয় ।

*উত্তর:- (b) অবতল

(১.৫) মানব চক্ষুর যে অংশে কোন বস্তুর প্রতিবিম্ব গঠিত হয় সেটি হল –

(a) রেটিনায় (b) আয়রিসে (c) কর্নিয়ায় (d) অক্ষিলেন্সে ।

*উত্তর:- (a) রেটিনায়

(১.৬) মোটর বাইকে ভিউ-ফাইন্ডার হিসেবে যে দর্পন ব্যবহার হয় তা হল –

(a) সমতল (b) অবতল (c) উত্তল (d) অধিবৃত্তীয় ।

*উত্তর:- (c) উত্তল ।

(১.৭) প্রিজমে আপতন কোন বাড়লে চ্যুতি কোন –

(a) বাড়ে (b) কমে (c) প্রথমে কমে পরে বাড়ে (d) প্রথমে বাড়ে পরে কমে ।

*উত্তর:- (c) প্রথমে কমে পরে বাড়ে ।

(১.৮) সুস্থ চোখের নিকট বিন্দুর দূরত্ব প্রায় –

(a) 20cm (b) 25cm (c) 30cm (d) 50cm

*উত্তর:- (b) 25cm

(১.৯) অবতল লেন্সের সামনে কোনো বস্তু থাকলে প্রতিবিম্ব দূরত্ব –

(a) সর্বদা বস্তুু দূরত্বের চেয়ে বেশি হবে (b) সর্বদা বস্তুু দূরত্বের চেয়ে কম হবে (c) বস্তু দূরত্বের বেশি বা সমান হবে (d) বস্তু দূরত্বের সমান বা কম হবে ।

*উত্তর:- (b) সর্বদা বস্তুু দূরত্বের চেয়ে কম হবে ।

(১.১০) বায়ুর সাপেক্ষে জলের প্রতিসারঙ্ক 4/5 হলে জলের সাপেক্ষে বায়ুর প্রতিসারঙ্ক কত হবে ?

(a) 3/4 (b) 4/3 (c) 3/5 (d) 5/3

*উত্তর:- a) 3/4

‘খ’ বিভাগ

(২) নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাও :-

(২.১) আলোকরশ্মি প্রতিসারনে আপাতন 0* হলে প্রতিসারন কোনের মান কত ?

*উত্তর:- 0*

(২.২) সোলার কুকারে কোন ধরনের দর্পন ব্যবহৃত হয় ?

*উত্তর:- অবতল ।

(২.৩) শূন্যস্থানে আলোর বেগ কত ?

*উত্তর:- 3×108m/s

(২.৪) কত তরঙ্গদৈর্ঘ্যের আলো দর্শনের অনুভুতি যোগায় ?

*উত্তর:- 4000A-8000A

(২.৫) আলো কী ধরনের তরঙ্গ ?

*উত্তর:- তড়িতচুম্বকীয় তির্যক ।

(২.৬) ক্যামেরায় বস্তুর সদবিম্ব্ না অসদবিম্ব্ গঠিত হয় ?

*উত্তর:- সদবিম্ব্

(২.৭) সত্য না মিথ্যা লেখো :-

প্রিযম বর্ন সৃষ্টি করে না ।

*উত্তর:- সত্য ।

(২.৮) শূন্যস্থান পুরন করো :-

ক্যামেরার অভিলক্ষ হিসেবে ব্যবহৃত হয় ………..লেন্স ।

*উত্তর:- উত্তল

(২.৯) সত্য না মিথ্যা লেখো :-

পাতলা লেন্সের আলোক কেন্দ্রের মধ্য দিয়ে গেলে তার কোনো পার্শ্বসরন কিংবা চ্যুতি হয় না ।

*উত্তর:- সত্য ।

(২.১০) শূন্যস্থান পুরন করো :-

সবুজ পাতায় সূর্যালোক আপতিত হলে ………… আলো  ব্যতীত সব আলো পাতা শোষন করে ।

*উত্তর:- সবুজ ।

‘গ’ বিভাগ

৩. নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাওঃ

(৩.১) আলোর প্রতিসরন কাকে বলে?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.২) কোনো মাধ্যমের প্রতিসরাংক বলতে কী বোঝ?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৩) দৃশ্যমান বর্নালি কাকে বলে?

উত্তরঃ নিজে করো ।

(৩.৪) পরিপূরক বর্ণ কাকে বলে?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৫) আলোর বিক্ষেপণ বলতে কী বোঝ?

উত্তরঃ নিজে করো।

‘ঘ’ বিভাগ

৪. নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাওঃ

(৪.১) চিত্রসহ লেন্সের আলোককেন্দ্রের সংজ্ঞা দাও।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.২) বিবর্ধক কাঁচ হিসেবে উত্তল লেন্সের কার্যনীতি চিত্রসহ লেখো।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৩) মানুষের চোখের সঙ্গে ক্যামেরার কাজের তুলনা কর।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৪) বর্ণালি কাকে বলে? সাদা আলোর বর্ণালি রঙের ক্রম কীধরনের থাকে?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৫) গ্লিসারিনের মধ্যে কাঁচদন্ড ডোবালে তা আর দেখা যায় না কেন?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৬) X,Y ও  অতিবেগুনি রশ্মির একটি করে ব্যবহার লেখো।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৭) সূর্যোদয় বা সূর্যাস্তের সময় সূর্যকে লাল দেখায় কেন?

উত্তরঃ নিজে করো।

Madhyamik Physical Science Suggestion 2020 – চল তড়িৎ

“ক” বিভাগ

(১) বহু বিকল্প ভিত্তিক প্রশ্ন । প্রতিটি প্রশ্নের নীচে চারটি করে বিকল্প উত্তর দেওয়া আছে ।  যেটি সঠিক সেটি লেখো :-

(১.১) 3 ওহম ও 6 ওহম রোধের সমান্তরাল সমবায়ের তুল্য রোধ –

(ক)2ওহম (খ)4ওহম (গ)9ওহম (ঘ)3ওহম

*উত্তর:- (ক)2ওহম

(১.২) তড়িৎ আধানের SI একক হল –

(ক)ভোল্ট (খ)কুলম্ব (গ)ওহম (ঘ) ওয়াট

*উত্তর:- (খ)কুলম্ব

(১.৩) 240V-60W বাতির রোধ –

(ক)480ওহম (খ)960ওহম (গ)240ওহম (ঘ)720 ওহম ।

*উত্তর:- (খ)960ওহম ।

(১.৪) রোধাঙ্কের SI একক হল –

(ক)ওহন-সেমি (খ)ওহম-সেমি-¹ (গ)ওহম-মিটার-¹ (ঘ) ওহম-মিটার ।

*উত্তর:- (ঘ) ওহম-মিটার ।

(১.৫) লাইভ তারের রং –

(ক)লাল (খ)কালো (গ)সবুজ (ঘ)আকাশি ।

*উত্তর:- (ক)লাল ।

(১.৬) 1 BOT হল –

(ক)1ওয়াট-ঘন্টা (খ)1কিলোওয়াট ঘন্টা (গ)100ওয়াট-ঘন্টা (ঘ)1মেগাওয়াট-ঘন্টা ।

*উত্তর:- (খ)1কিলোওয়াট ঘন্টা ।

(১.৭) নাইব্রোম হল –

(ক)Ni, Cr, Al এর সংকেত ধাতু (খ) Ni,Cr, Fe এর সংকেত ধাতু (গ)Al, Cr, Fe এর সংকেত ধাতু (ঘ)Ni, Cr, Fe এর সংকেত ধাতু .

*উত্তর:- (খ) Ni,Cr, Fe এর সংকেত ধাতু ।

(১.৮) ফ্লেমিং বামহস্ত নিয়মে বৃদ্ধাঙ্গুষ্টটি নির্দেশ করে –

(ক) চৌম্বকক্ষেএের দিক (খ) তড়িৎক্ষেএের দিক (গ) পরিবাহীর গতির অভিমুখ (ঘ) কোনোটিই নয় ।

*উত্তর:- (গ) পরিবাহীর গতির অভিমুখ ।

(১.৯) যান্ত্রিক শক্তি থেকে তড়িৎশক্তি উৎপন্ন করা যায়  –

(ক) বার্লের চক্রে (খ) বৈদ্যুতিক মোটরে (গ) বৈদ্যুতিক জেনারেটরে (ঘ) ট্রান্সফর্মারে ।

*উত্তর:- (গ) বৈদ্যুতিক জেনারেটরে ।

(১.১০) ফ্যরাডের সুত্র দুটি বিবৃত করে –

(ক) চৌম্বকক্ষেএ (খ) তড়িৎক্ষেএ (গ) তড়িৎচৌম্বকীয় আবেশ (ঘ) তড়িৎচৌম্বকীয় ক্ষেএ ।

*উত্তর:- (গ) তড়িৎচৌম্বকীয় আবেশ ।

‘খ’ বিভাগ

২. নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাওঃ

(২.১) তড়িৎ প্রবাহের মাত্রীয় সংকেত কী?

উত্তরঃ l

(২.২) তড়িতের সুপরিবাহী এরূপ একটি অধাতুর নাম লেখো।

উত্তরঃ কার্বন

(২.৩) R মানের দুটি রোধ সমান্তরাল সমবায় যুক্ত। তুল্য রোধ কত?

উত্তরঃ R/2

(২.৪) 220v – 100w ও 220v – 50w বাল্‌ব দুটির মধ্যে কোন্‌টির রোধ বেশি?

উত্তরঃ 220v – 50w

(২.৫) কোন্‌ যন্ত্রের সাহায্যে তড়িৎ প্রবাহ পরিমাপ করা হয়?

উত্তরঃ অ্যানিমিটার

(২.৬) বাড়ির অয়্যারিং এর কাজ সাধারনত কোন্‌ ধাতুর তার ব্যবহার করা হয়?

উত্তরঃ তামা

(২.৭) শূন্যস্থান পুরন করোঃ

বৈদ্যুতিক বাল্‌বের ফিলামেন্ট ……… নির্মিত।

উত্তরঃ টাংস্টেন

(২.৮) শূন্যস্থান পুরন করোঃ

1 BOT =……w.h

উত্তরঃ 1000

(২.৯) সত্য না মিথ্যা কেখোঃ

বার্লো চক্রের ঘূর্ণ্নের সময় তড়িৎশক্তি যান্ত্রিক শক্তিতে রূপান্তরিত হয়।

উত্তরঃ সত্য

(২.১০) সত্য না মিথ্যা লেখোঃ

সমান্তরাল সমবায়ের ক্ষেত্রে তুল্য রোধের মান সমবায়ের প্রতিটি রোধের মানের চেয়ে ছোটো হয়।

উত্তরঃ সত্য

‘গ’ বিভাগ

৩. নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাওঃ

(৩.১) রোধাংকের সংজ্ঞা দাও।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.২) ফ্লেমিং এর বামহস্ত নিয়মটি বিবৃত করো।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৩) অ্যাম্পিয়ারের সন্তরন নিয়মটি লেখো।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৪) কিলোওয়াট-ঘন্টা বা BOT এর সংজ্ঞা দাও।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৫) ওহমের সূত্রটি লেখো।

উত্তরঃ নিজে করো।

‘ঘ’ বিভাগ

৪. নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাওঃ

(৪.১) কুলম্বের সূত্রটি লেখো ও ব্যাখ্যা করো।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.২) হ্রস্ব বর্তনী বা শর্ট সার্কিট কী? এই ক্ষেত্রে ফিউজ তারের ভূমিকা লেখো।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৩) তড়িৎ প্রবাহের তাপীয় ফল সংক্রান্ত জুলের সূত্রটি লেখো।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৪) dc অপেক্ষা ac এর তিনটি সুবিধা লেখো।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৫) বাড়ির বৈদ্যুতিক বর্তনীতে আর্থিং করা হয় কেন?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৬) কোনো বৈদ্যুতিক বাতির গায়ে 220v-100w লেখা আছে। এর অর্থ কী?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৭) তড়িৎ চুম্বকের শক্তি কিভাবে বাড়ানো যায়?

উত্তরঃ নিজে করো।

Madhyamik Physical Science Suggestion 2020 – পরমানুর নিউক্লিয়াস

‘ক’ বিভাগ

১. বহু বিকল্পভিত্তিক প্রশ্ন। প্রতিটি প্রশ্নের নীচে চারটি করে বিকল্প উত্তর দেওয়া আছে। যেটা ঠিক সেটা লেখোঃ

(১.১) সূর্যের শক্তির মূল উৎস হল –

(ক) নিউক্লীয় সংযোজন ও নিউক্লীয় বিয়োজন (খ) নিউক্লীয় বিভাজন (গ) নিউক্লীয়

সংযোজন (ঘ) কোনোটিই নয়।

উত্তরঃ (গ) নিউক্লীয় সংযোজন

(১.২) কোন্‌ রশ্মির ভেদন ক্ষমতা সর্বাধিক? –

(ক) a রশ্মি (খ) B রশ্মি (গ) x রশ্মি (ঘ) y রশ্মি

উত্তরঃ (ঘ) y রশ্মি

(১.৩) সূর্যের বাইরের পৃষ্ঠের তাপমাত্রা প্রায় –

(ক) 600oC (খ) 6000oC (গ) 60000oC (ঘ) 10000oC

উত্তরঃ (খ) 6000oC

(১.৪) সূর্য ও বিভিন্ন নক্ষত্রে উৎপন্ন শক্তির উৎস –

(ক) y বিকিরন (খ) a-B-y বিকিরন (গ) নিউট্রন বিভাজন (ঘ) নিউক্লিয় সংযোজন

উত্তরঃ (ঘ) নিউক্লিয় সংযোজন

(১.৫) 1 MeV= কত J? –

(ক) 1.6*10-13 (খ) 3.2*10-13 (গ) 4.8*10-13 (ঘ) 6.4*10-13

উত্তরঃ (ক) 1.6*10-13

(১.৬) পারমানবিক চুল্লিতে ভারী জল ব্যবহার হয় –

(ক) জ্বালানি রূপে (খ) প্রোজেক্টাইল রূপে (গ) মডারেট রূপে (ঘ) শীতক রূপে

উত্তরঃ (গ) মডারেট রূপে

(১.৭) নিউক্লিয় রিঅ্যাকটরে শক্তির রূপান্তরটি হল –

(ক) পারমানবিক শক্তি -> তাপশক্তি -> (খ) তাপশক্তি -> তড়িৎ

শক্তি (গ) তড়িৎশক্তি ->পারমানবিক শক্তি (ঘ) পারমানবিক শক্তি -> তাপশক্তি -> তড়িৎ শক্তি

উত্তরঃ (ঘ) পারমানবিক শক্ত -> তাপশক্তি -> তড়িৎ শক্তি

(১.৮)জীবাশ্মের বয়স নির্ণয়ের যে তেজস্ক্রিয় আইসোটোপ ব্যবহার করা হয় তা হল –

(ক) 60 CO (খ) 131 l (গ) 12 P (ঘ) 14 C

উত্তরঃ (ঘ) 14 C

(১.৯) নীচের কোন্‌টি তেজস্ক্রিয় নয়? –

(ক) 32P (খ) 14C (গ) 40K (ঘ) 23Na

উত্তরঃ (ঘ) 23Na

(১.১০) তেজস্ক্রিয়তা আবিষ্কার করেন –

(ক) বেকারেল (খ) মাদাম কুরি (ঘ) পিয়ের কুরি (ঘ) রাদারফোর্ড

উত্তরঃ (ক) বেকারেল

‘খ’ বিভাগ

২. নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাওঃ

(২.১) তিনটি স্বাভাবিক তেজস্ক্রিয় মৌলের নাম লেখো।

উত্তরঃ ক) পোলানিয়াম খ) রেডিয়াম গ) ইউরেনিয়াম

(২.২) নিউক্লিয়ার রিঅ্যাকটরে ভারী জলের ভূমিকা কী?

উত্তরঃ নিউট্রের উচ্চ গতি কমাতে।

(২.৩) কোন্‌ মৌলের নিউক্লিয়ন প্রতি বন্ধন শক্তি সর্বোচ্চ?

উত্তরঃ 62 Ni

(২.৪) a,B,y রশ্মির মধ্যে কোন্‌টি ভরহীন?

উত্তরঃ y

(২.৫) কোন্‌ প্রক্রিয়াকে কাজে লাগিয়ে পরমানু বোম তৈরি করা হয়?

উত্তরঃ নিউক্লিয় বিভাজন

(২.৬) তেজস্ক্রিয়তার একটি ব্যবহারিক প্রয়োগ লেখো।

উত্তরঃ ক্যানসারের চিকিৎসার জন্য

(২.৭) শূন্যস্থান পুরন করোঃ

……… তাপমাত্রায় নিউক্লীয় বিভাজন ঘটে।

উত্তরঃ সাধারন

(২.৮) শূন্যস্থান পুরন করোঃ

শক্তির অপর একটি রূপ হল ……… ।

উত্তরঃ ভর

(২.৯) সত্য না মিথ্যা লেখোঃ

নিউট্রন ও প্রোটনের অনুপাত 1.5:1 এর বেশি হলেই মৌলটি তেজস্ক্রিয়তা প্রদর্শন করে।

উত্তরঃ সত্য

(২.১০) সত্য না মিথ্যা লেখোঃ

কোনোরকম ভৌত বা রসায়নিক প্রক্রিয়াই তেজস্ক্রিয় নিঃসরন প্রভাবিত করতে পারে না।

উত্তরঃ সত্য

‘ঘ’ বিভাগ

৪. নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তরঃ

(৪.১) a,B ও y রশ্মিকে ভেদন ক্ষমতার ঊর্ধ্বক্রম অনুসারে সাজাও। কোন্‌টি সব থেকে বেশি তড়িৎ আধান যুক্ত?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.২) নিউক্লিয় বিভাজনের দুটি বৈশিষ্ট্যের উল্লেখ করো।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৩) প্রাকৃতিক তেজস্ক্রিয়তা কী? নিউক্লিয় সংযোজনের দুটি বৈশিষ্ট্যের উল্লেখ করো।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৪) কীভাবে X রশ্মি উৎপন্ন করা যায়? তেজস্ক্রিয়তার একটি ক্ষতিকর প্রভাব উল্লেখ করো।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৫) তেজস্ক্রিয়তা একটি নিউক্লিয় ঘটনা – ব্যাখ্যা করো। ডায়োডের একটি ব্যবহার উল্লেখ করো।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৬) তাপীয় আয়ন নিঃসরন কাকে বলে? এই নীতির উপর ভিত্তিকরে তৈরি একটি যন্ত্রের নাম লেখো।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৭) a,B ও y রশ্মির মধ্যে কার ভেদন ক্ষমতা সবচেয়ে বেশি? নিউক্লিয় বিভাজন কাকে বলে?

উত্তরঃ নিজে করো।

Madhyamik Physical Science Suggestion 2020 – পর্যায়-সারনি এবং মৌলদের ধর্মের পর্যাবৃত্ততা

‘ক’ বিভাগ

১. বহুবিকল্প ভিত্তিক প্রশ্ন। প্রতিটি প্রশ্নের নীচে চারটি করে বিকল্প উত্তর দেওয়া আছে। যেটি ঠিক সেটি লেখোঃ

(১.১) কোন্‌ বিজ্ঞানীকে ‘পর্যায়-সূত্রের জনক’ বলা হয় –

(ক) ডোবেরিনার (খ) নিউল্যান্ডস (গ) লোথার মেয়ার (ঘ) মেন্ডেলিফ।

উত্তরঃ (ঘ) মেন্ডেলিফ

(১.২) মৌলের রাসায়নিক ধর্ম নির্ভর করে –

(ক) প্রোটন সংখ্যার ওপর (খ) নিউট্রন সংখ্যার ওপর (গ) ভরসংখ্যার ওপর (ঘ) পারমানবিক ওজনের ওপর।

উত্তরঃ (ক) প্রোটন সংখ্যার ওপঅপর

(১.৩) মেন্ডেলিফের আদি পর্যায়-সারনিতে যে মৌলগুলির অস্তিত্ব ছিল না সেগুলি হল –

(ক) সন্ধিগত মৌল (খ) ক্ষারধাতু (গ) নিষ্ক্রিয় গ্যাস (ঘ) হ্যালোজেন মৌল।

উত্তরঃ (গ) নিষ্ক্রিয় গ্যাস

(১.৪) সর্বাপেক্ষা তড়িৎ-ঋণাত্মক মৌলটি হল –

(ক) F (খ) Cl (গ) Br (ঘ) l

উত্তরঃ (ক) F

(১.৫) আধুনিক পর্যায়-সূত্রের ভিত্তি হল মৌলের –

(ক) পারমানবিক গুরত্ব (খ) পরমানু-ক্রমাঙ্ক (গ) ভরসংখ্যা (ঘ) নিউট্রন সংখ্যা

উত্তরঃ (খ) পরমানু ক্রমাঙ্ক

(১.৬) প্রদত্ত মৌলগুলির মধ্যে কোন্‌টি সন্ধিগত মৌল হয়?

(ক) Fe (খ) Co (গ) Ca (ঘ) Cr

উত্তরঃ (গ) Ca

(১.৭) কোন্‌ মৌলটি হ্যালোজেন –

(ক) Na (খ) Li (গ) Br (ঘ) Cd

উত্তরঃ (গ) Br

(১.৮) পর্যায়-সারনির কোনো নির্দিষ্ট পর্যায়ের বাম দিক থেকে ডান দিকে গেলে আয়নীয় বিভব ক্রমশ –

(ক) বাড়ে (খ) কমে (গ) অপরিবর্তিত থাকে (ঘ) প্রথিমে কমে, তারপর বাড়ে

উত্তরঃ (ক) বাড়ে

(১.৯) নীচের কোন্‌টি ক্ষার ধাতু সমূহের ক্ষেত্রে পারমানবিক ব্যাসার্ধের সঠিক ক্রম –

(ক) Na<Rb<K<Cs (খ) Na<K<Rb<Cs (গ) K<Na<Cs<Rb (ঘ) Na<Cs<K<RB

উত্তরঃ (খ) Na<K<Rb<Cs

(১.১০) একটি ক্ষারীয় মৃত্তিকা ধাতু হল –

(ক) Cu (খ) Na (গ) Mg (ঘ) K

উত্তরঃ (গ) Mg

‘খ’ বিভাগ

২. নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাওঃ

(২.১) কোন্‌ মৌলটির মেন্ডেলিফ ‘দুষ্ট মৌল’ (Rogue element) বলেছেন?

উত্তরঃ হাইড্রোজেনকে

(২.২) কোন্‌ ক্ষার ধাতুটি তেজস্ক্রিয়?’

উত্তরঃ ফ্রান্সিয়াম

(২.৩) সবচেয়ে হালকা হ্যালোজেন মৌল কোন্‌টি?

উত্তরঃ ফ্লুরিন

(২.৪) মেন্ডেলিফের ভবিষ্যদ্‌বানী অনুসারে পরবর্তিকালে আবিষ্কৃত হয়েছে এমন একটি মৌলের নাম করো?

উত্তরঃ জার্মেনিয়াম

(২.৫) Cl,F,l,Br কে তড়িৎ-ঋনাত্মকতার ঊর্ধ্বক্রমে সাজাও।

উত্তরঃ F>Cl>Br>l

(২.৬) কোন্‌ পর্যায়ে মৌল্গুলি সব তেজস্ক্রিয়?

উত্তরঃ সপ্তম পর্যায়ের

(২.৭) শূন্যস্থান পূরন করোঃ

শূন্য শ্রেনির মৌলগুলি রাসায়লিকভাবে ______________।

উত্তরঃ নিষ্ক্রিয়

(২.৮) শূন্যস্থান পূরন করোঃ

সবচেয়ে ভারী প্রাকৃতিক মৌল হল ___________।

উত্তরঃ ইউরেনিয়াম

(২.৯) সত্য না মিথ্যা লেখোঃ

মেন্ডেলিফের পর্যায়-সারনির অষ্টমশ্রেনীতে কোনো উপশ্রেনী নেই।

উত্তরঃ সত্য

(২.১০) সত্য না মিথ্যা লেখোঃ

হাইড্রোজেন ও হ্যালোজেন উভয়ই দ্বি-পরমানুক মৌল।

উত্তরঃ সত্য

‘ঘ’ বিভাগ

৪. নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাওঃ

(৪.১) মেন্ডেলিফের পর্যায় সারনির তিনটি ত্রুটি আলোচনা করো।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.২) মেন্ডেলিফের পর্যায়-সূত্রটি বিবৃত করো।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৩) আধুনিক পর্যায়-সূত্রটি বিবৃত করো।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৪) A,BওC মৌলগুলির পারমানবিক সংখ্যা হল যথাক্রমে 6,8ও10। C হল নিষ্ক্রিয় গ্যাস মৌল। কোন্‌ মৌলটির অপরা তড়িৎ-ধর্মিতা সবচেয়ে বেশি? কোন্‌ মৌলটির পরমানুর আকার সবচেয়ে কম? B মৌলটি পর্যায়সারনীর কোন্‌ শ্রেনিতে অবস্থিত?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৫) A,BওC মৌল্গুলির পারমানবিক সংখ্যা যথাক্রমে 3,11ও19। মেন্ডেলিফের পর্যায়-সারনিতে মৌল তিনটি অবস্থান কোন্‌ শ্রেনীতে? এদের মধ্যে কোন্‌ মৌলের ধাতব গুন সবচেয়ে বেশি? B এর সঙ্গে ক্লোরিনের বিক্রিয়ায় সমযোজী না তড়িৎযোজী যৌগ উৎপন্ন হয়।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৬) A,B,Cও D মৌল চারটির পরমানু-ক্রমাংক যথাক্রমে 3,9,11ও17। এদের মধ্যে সর্বাপেক্ষা তড়িৎ-ঋনাত্মক মৌল ও সর্বাপেক্ষা তড়িৎ ধনাত্মক মৌল কোন্‌গুলি?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৭) ধরি, দুটি মৌলের চিহ্ন AওB এবং এদের পারমানবিক সংখ্যা যথাক্রমে 7ও20। মেন্ডেলিফের পর্যায়-সারনিতে AওB এর অবস্থান নির্দেশ করো।

উত্তরঃ নিজে করো।

Madhyamik Physical Science Suggestion 2020 – অয়নীয় ও সমযোজী বন্ধন

‘ক’ বিভাগ

১. বহুবিকল্প ভিত্তিক প্রশ্ন। প্রতিটি প্রশ্নের নীচে চারটি বিকল্প উত্তর দেওয়া আছে। যেটি ঠিক সেটি লেখোঃ

(১.১) কোন্‌টি জলে অদ্রাব্য –

(ক) MgCl2 (খ) NaSO4 (গ) CHCl3 (ঘ) HCL

উত্তরঃ (গ) CHCl3

(১.২) নাইট্রোজেন অনুতে বন্ধন সৃষ্টিকারী ইলেকট্রন সংখ্যা –

(ক) 2 (খ) 4 (গ) 6 (ঘ) 8

উত্তরঃ (গ) 6

(১.৩) একটি পোলার দ্রাবকের উদাহরন হল –

(ক) বেঞ্জিন (খ) ইথার (গ) ক্লোরোর্ফম (ঘ) জল

উত্তরঃ (ঘ) জল

(১.৪) সমযোজী দ্বি-বন্ধনযুক্ত যৌগ কোন্‌টি? –

(ক) OF2 (খ) N2 (গ) C2H4 (ঘ) C2H2

উত্তরঃ (গ) C2H4

(১.৫) আয়নীয় বন্ধনের ধারনা দেন বিজ্ঞানী –

(ক) ডালটন (খ) লুইস (গ) আরহেনিয়াস (ঘ) কোসেল

উত্তরঃ (ঘ) কোসেল

(১.৬) একটি সমযোজী ত্রি-বন্ধনযুক্ত যৌগ হল –

(ক) H2O (খ) CH4 (গ) CCL4 (ঘ) C2H2

উত্তরঃ (ঘ) C2H2

(১.৭) সমযোজী বন্ধনের ধারনা দেন বিজ্ঞানী –

(ক) লুইস (খ) আরহেনিয়াস (গ) কেলভিন (ঘ) অ্যাভোগাড্রো

উত্তরঃ (ক) লুইস

(১.৮) প্রদত্ত কোন্‌টি আয়নীয় যৌগ? –

(ক) HCL (খ) CH4 (গ) MgCl2 (ঘ) NH3

উত্তরঃ (গ) MgCl2

(১.৯) যোজ্যতার ইলেকট্রনীয় তত্বের প্রবক্তা হলেন –

(ক) লুইস ও কোসেল (খ) বর্ণ ও হেবার (গ) প্রাউস্ট (ঘ) অ্যাভোগাড্রো

উত্তরঃ (ক) লুইস ও কোসেল

(১.১০) X(Z=20), Y(Z=17) মৌল দুটি দ্বারা উৎপন্ন যৌগের সংকেত হল –

(ক) XY (খ) XY2 (গ) X2Y2 (ঘ) X2Y

উত্তরঃ (খ) XY2

‘খ’ বিভাগ

২. নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাওঃ

(২.১) নোব্‌ল গ্যাস মৌলগুলির অস্তিত্ব কে আবিষ্কার করেন?

উত্তরঃ র‍্যালে ও ব্যামজে

(২.২) জল ও ইথানলের মধ্যে কোন্‌টি বেশি উদ্‌বায়ী?

উত্তরঃ ইথানল

(২.৩) একটি অধ্রুবীয় দ্রাবকের উদাহরন দাও।

উত্তরঃ বেঞ্জিন

(২.৪) একটি কঠিন অনুদ্‌বায়ী সমযোজী যৌগের উদাহরন দাও।

উত্তরঃ চিনি

(২.৫) ড্যাশ (Dash) চিহ্নের সাহায্যে C2H2 অনুর সমযোজী বন্ধনগুলি দেখাও।

উত্তরঃ C2H2 অনু : H-C= C-H

(২.৬) একটি পদার্থের উদাহরন দাও যার কালাসে সমযোজী বন্ধন বর্তমান।

উত্তরঃ হীরের কেলাসে C-C সমযোজী বন্ধন বর্তমান

(২.৭) শূন্যস্থান পূরন করো ঃ

একই প্রকারের 4 টি বন্ধন আছে এমন সমযোজী  পদার্থের উদাহরন হল __________।

উত্তরঃ মিথেন

(২.৮) শুন্যস্থান পূরন করোঃ

কঠিন অবস্থায় তড়িৎ পরিবহন করে এমন সমযোজী বন্ধনযুক্ত পদার্থ হল__________।

উত্তরঃ গ্রাফাইট

(২.৯) সত্য না মিথ্যা লেখোঃ

সমস্ত নিষ্ক্রিয় গ্যাস মৌলের শেষ ইলেকট্রনীয় কক্ষে  8 টি ইলেকট্রন থাকে।

উত্তরঃ সত্য

(২.১০) সত্য না মিথ্যা লেখোঃ

ইথিলিন অনুতে কোনো নিঃসঙ্গ ইলেকট্রন জোড় থাকে না।

উত্তরঃ সত্য

‘গ’ বিভাগ

৩. নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাওঃ

(৩.১) অষ্টক সূত্র কাকে বলে?

উত্তরঃ নিজে লেখো।

(৩.২) দ্বৈত সূত্র বলতে কী বোঝো?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৩) প্রদত্ত কোন্‌গুলি তড়িৎযোজী এবং কোন্‌গুলি সমযোজী যৌগ লেখোঃ-

LiH,H2O,NH3,CHCl3 N2

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৪) লুইস-ডট চিত্র অঙ্কন করোঃ-

NH3,CO2,H2O,CH4,CaCl2

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৫) আয়নীয় যৌগ ও সমযোজী যৌগের মধ্যে প্রধান পার্থক্যগুলি লেখো।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৬) একটি উদাহরন দিয়ে দেখাও যে আয়নীয় যৌগের অকটেট পূর্তি ছাড়াও আয়নীয় যৌগ গঠিত হতে পারে।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৭) তড়িৎযোজী ও সমযোজী যৌগের দুটি পার্থক্য লেখো।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৮) ধরো, দুটি মৌলের চিহ্ন A ও B এবং এদের পারমানবিক সংখ্যা 7 ও 20। A মৌলটির দুটি পরমানু পরস্পর যুক্ত হয়ে অনুগঠনকরলে অনুটির মধ্যে কী প্রকৃতির বন্ধন তৈরি হয়? অনুটির ইলেকট্রন-ডট গঠন দেখাও।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৯) দুটি মৌল A ও B এর ইলেকট্রন-বিন্যাস যথাক্রমে K(2) L(7) ও  K(2) L(8) হলে, A ও B মৌলদুটি যৌগ গঠন করলে উৎপন্ন যৌগের সংকেত কী হবে? কী ধরনের রাসায়নিক বন্ধনের মাধ্যমে যৌগটি গঠিত হবে?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.১০) লুইস-ডট গঠনের সাহায্যে দেখাও CaO তে সমযোজী,না তড়িৎযোজী বন্ধন গঠিত হয়? [Ca-এর পারমানবিক সংখ্যা 20]

উত্তরঃ নিজে করো।

Madhyamik Physical Science Suggestion 2020 – তড়িৎপ্রবাহ ও রাসায়নিক বিক্রিয়া

‘ক’ বিভাগ

১. বহু বিকল্পভিত্তিক প্রশ্ন। প্রতিটি প্রশ্নের নীচে চারটি করে বিকল্প উত্তর দেওয়া আছে। যেটি ঠিক সেটি লেখোঃ

(১.১) এদের মধ্যে কোন্‌টি তড়িৎ-অবিশ্লেষ্য পদার্থ? –

(ক) NH4OH এর জলীয় দ্রবন (খ) লঘু NHO3 এর দ্রবন (গ) কার্বন টেট্রাক্লোরাইড (ঘ) গলিত সোডিয়াম ক্লোরাইড

উত্তরঃ (ক) NH4OH এর জলীয় দ্রবন

(১.২) একটি তীব্র তড়িৎ বিশ্লেষ্য পদার্থের উদাহরন হল –

(ক) H2CO3 (খ) HNO3 (গ) NH4OH (ঘ) HCOOH

উত্তরঃ (খ) HNO3

(১.৩) একটি অধাতব তড়িৎ পরিবাহী হল –

(ক) ফুলারিন (খ) কোক (গ) হীরক (ঘ) গ্রাফাইট

উত্তরঃ (ঘ) গ্রাফাইট

(১.৪) রূপার অলংকারে সোনার প্রলেপ দিতে তড়িৎ বিশ্লেষ্য হিসেবে ব্যবহৃত হয় –

(ক) সামান্য বোরিক অ্যাসিড মিশ্রিত

NiSO4 দ্রবন (খ) পটাশিয়াম আর্জেন্টিসায়ানাইড দ্রবন (গ) পটাশিয়াম অরোসায়ানাইড দ্রবন (ঘ) কপার সালফেট দ্রবন

উত্তরঃ (গ) পটাশিয়াম অরোসায়ানাইড দ্রবন

(১.৫) তড়িৎ বিশ্লেষ্য পদার্থ তড়িৎ পরিবহন করে –

(ক) কঠিন অবস্থায় (খ) গলিত অবস্থায় (গ) জলীয় দ্রবনে (ঘ) সবগুলি

উত্তরঃ (ঘ) সবগুলি

(১.৬) তড়িৎ বিশ্লেষ্য প্রক্রিয়ায় ক্যাথোড –

(ক) জারন ঘটে (খ) বিজারন ঘটে (গ) বিয়োজন ঘটে (ঘ) সংযোজন ঘটে

উত্তরঃ (খ) বিজারন ঘটে

(১.৭)  তড়িৎ লেপনের উদ্দেশ্য হল –

(ক) ধাতব বস্তুকে আবহাওয়াজনিত ক্ষয় থেকে রক্ষা করা (খ) ধাতব বস্তুর সৌন্দর্য

বৃদ্ধি করা (গ) ধাতব বস্তুর ওজন বৃদ্ধি করা (ঘ) সবগুলি

উত্তরঃ (ঘ) সবগুলি

(১.৮) যে পাত্রে তড়িৎ বিশ্লেষণ করা হয় তা হল –

(ক) ভোল্টামিটার (খ) পোটেনসিওমিটার (গ) গ্যালভানোমিটার (ঘ)

ভোল্টমিটার

উত্তরঃ (ক) ভোল্টামিটার

(১.৯) তড়িৎ বিশ্লেষনের ব্যাবহারিক প্রয়োগ হল –

(ক) তড়িৎলেপন (খ) তড়িৎ-বিশোধন (গ) ধাতু নিষ্কাশন (ঘ) সবগুলি

উত্তরঃ (ঘ) সবগুলি

(১.১০) অ্যাসিড মিশ্রিত জলের তড়িৎবিশ্লেষনে ক্যাথোড ও অ্যানোড উৎপন্ন গ্যাসের আয়তনের অনুপাত – (ক) 1:2 (খ) 2:1 (গ) 1:1 (ঘ) 2:3

উত্তরঃ (খ) 2:1

‘খ’ বিভাগ

২. নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাওঃ

(২.১) তড়িৎ-অপরিবাহী অধাতব কঠিন মৌলের উদাহরন দাও।

উত্তরঃ সালফার

(২.২) ভোল্টামিটার কাকে বলে?

উত্তরঃ তড়িৎ বিশ্লেষন করা যন্ত্রকে

(২.৩) ক্রায়োলাইট, ফ্লুওস্পার ও অ্যালুমিনার মিশ্রনের গলনাঙ্ক কত?

উত্তরঃ 900oC

(২.৪) একটি তরল পদার্থের নাম করো যা তড়িৎ পরিবহন করে অথচ তড়িৎবিশ্লেষ্য নয়?

উত্তরঃ পারদ

(২.৫) ইলেকট্রনীয় পরিবাহীর উদাহরন দাও।

উত্তরঃ তামা, নিকেল

(২.৬) একটি জৈব পদার্থের নাম লেখো যার জলীয় দ্রবন তড়িতের পরিবাহী।

উত্তরঃ অ্যাসিটিক অ্যাসিড

(২.৭) শুন্যস্থান পূরন করোঃ

একটি নিষ্ক্রিয় তড়িদ্দ্বারের উদাহরন হল ____________।

উত্তরঃ প্ল্যাটিনাম

(২.৮) শুন্যস্থান পূরন করোঃ

জলের তড়িৎবিশ্লেষনের পূর্বে যে অ্যাসিডটি কয়েক ফোঁটা যোগ করা উচিত সেটি হল __________।

উত্তরঃ H2SO4

(২.৯) সত্য না মিথ্যা লেখোঃ

তড়িৎবিশ্লেষ্য দ্রবনের তিড়িৎ পরিবহনকালে যে-কোনো মুহূর্তে ক্যাটায়ন ও অ্যানায়ন মোট আধান সমান থাকে।

উত্তরঃ সত্য

(২.১০) সত্য না মিথ্যা লেখোঃ

তড়িৎ-লেপন পদ্ধতিতে যে বস্তুর ওপর ধাতব প্রলেপ দেওয়া হয় তাকে ক্যাথোড রূপে ব্যবহার করা হয়।

উত্তরঃ সত্য

‘ঘ’ বিভাগ

৪. নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাওঃ

(৪.১) নীচের পদার্থগুলির মধ্যে তড়িৎবিশ্লেষ্য ও তড়িৎ অবিশ্লেষ্য পদার্থকে চিহ্নিত করোঃ –

চিনির জলীয় দ্রবন, গলিত NaCl, তরল HCl, পারদ,কেরোসিন, গলিত KCl, গলিত কস্টিক পটাশ, গ্রাফাইট

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.২) লোহার ওপর তামার প্রলেপ দিতে তড়িৎবিশ্লেষ্য ও ক্যাথোড হিসেবে কী কী ব্যবহৃত হয়?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৩) পারদ ও অম্নায়িত জলের মধ্যে কোন্‌টি তড়িৎবিশ্লেষ্য ও কেনো?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৪) লোহার চামচের ওপর নিকেলের তড়িৎলেপন করতে অ্যানোড ও তড়িৎবিশ্লেষ্য হিসেবে কী কী নিতে হবে?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৫) তড়িৎবিশ্লেষন পদ্ধতিতে অ্যালুমিনিয়াম ধাতু নিষ্কাশনে তড়িৎ বিশ্লেষ্য, ক্যাথোড ও অ্যানোড হিসেবে কী কী ব্যবহৃত হয়?

উত্তরঃ নিজে করো।

Madhyamik Physical Science Suggestion 2020 – পরীক্ষাগার ও রাসায়নিক শিল্পে অজৈব রসায়ন

‘ক’ বিভাগ

১. বহু বিকল্প ভিত্তিক প্রশ্ন। প্রতিটি প্রশ্নের নীচে চারটি করে বিকল্প উত্তর দেওয়া আছে। যেটি ঠিক সেটি লেখোঃ

(১.১) পরীক্ষাগারে হাইড্রোজেন সালফাইড গ্যাস প্রস্তুতিতে লঘু HCl সাধারনত ব্যবহৃত হয় না , কারন –

(ক) HCl জারক দ্রব্য (খ) HCl বিজারক দ্রব্য (গ) HCl খুব ধীরে বিক্রিয়া করে (ঘ) HCl উদ্‌বায়ী।

উত্তরঃ (ঘ) HCl উদ্‌বায়ী

(১.২) নেসলার বিকারকের সঙ্গে বিক্রিয়া করে বাদামি বর্ণের অধঃক্ষেপ উৎপন্ন করে –

(ক) NH3 (খ) HCl (গ) HNO3 (ঘ) NaOH

উত্তরঃ (ক) NH3

(১.৩) হেবার পদ্ধতিতে অ্যামোনিয়া প্রস্তুতির সময় N2 ও  H2 গ্যাসকে যে আয়তন অনুপাতে মেশানো হয়, তা হল –

(ক) 2:3 (খ) 3:1 (গ) 1:3 (ঘ) 3:2

উত্তরঃ (গ) 1:3

(১.৪) লাইকার অ্যামোনিয়ার আপেক্ষিক গুরুত্ব –

(ক) 0.80 (খ) 0.88 (গ) 1.1 (ঘ) 1.84

উত্তরঃ (খ) 0.88

(১.৫) ঘুমের ওষুধ বারবিটিউরেট প্রস্তুতিতে ব্যবহৃত হয় –

(ক) অ্যামোনিয়া (খ) নাইট্রিক অ্যাসিড (গ) হাইড্রোজেন সালফাইড (ঘ) ইউরিয়া

উত্তরঃ (ঘ) ইউরিয়া

(১.৬) কোল্ড স্টোরেজে হিমায়করূপে ব্যবহৃত হয় –

(ক) H2S (খ) SO2 (গ) NH3 (ঘ) N2O

উত্তরঃ (গ) NH3

(১.৭) প্রকৃতিতে প্রাপ্ত যে যৌগে N2 আবদ্ধ থাকে –

(ক) সোরা (খ) বক্সাইট (গ) চিলি সল্টপিটার (ঘ) হেমোটাইট

উত্তরঃ (গ) চিলি সল্টপিটার

(১.৮) চোখের কর্নিয়া সংরক্ষনে ব্যবহৃত হয় –

(ক) NO (খ) H2S (গ) N2 (ঘ) NO2

উত্তরঃ (গ) N2

(১.৯) নাইট্রোজেন মাটিতে আবদ্ধ থাকে –

(ক) N2 হিসেবে (খ) NH3 হিসেবে (গ) ধাতব নাইট্রেট যৌগরূপে (ঘ) কোনোটিই নয়

উত্তরঃ (গ) ধাতব নাইট্রট যৌগরূপে

(১.১০) অয়েল অব ভিট্রিয়ল নামে পরিচিত –

(ক) HCl (খ) H2SO4 (গ) HNO3 (ঘ) NH3

উত্তরঃ (খ) H2SO4

‘খ’ বিভাগ

২. নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাওঃ

(২.১) অ্যামোনিয়ার বাষ্পঘনত্ব কত?

উত্তরঃ 8.5

(২.২) ইউরিয়াতে শতকরা কতভাগ নাইট্রোজেন থাকে?

উত্তরঃ 46%

(২.৩) পরীক্ষাগারে H2S প্রস্তুতিতে লঘু HCl ব্যবহার করলে কী অসুবিধা হবে?

উত্তরঃ হাইড্রোক্লোরিক অ্যাসিড বাষ্পে মিশে যায়

(২.৪) উত্তপ্ত CuO এর উপর দিয়ে কোন্‌ গ্যাস চালনা করলে N2 উৎপন্ন হয়?

উত্তরঃ NH3

(২.৫) ধূমায়মান সালফিউরিক অ্যাসিড বা ওলিলিয়াম রাসায়নিক সংকেত কী?

উত্তরঃ H2S2O7

(২.৬) ফেরিক লবনের জলীয় দ্রবণে অ্যামোনিয়া গ্যাস চালনা করলে কী বর্ণের অধঃক্ষেপ উৎপন্ন হবে?

উত্তরঃ বাদামি

(২.৭) শুন্যস্থান পূরন করোঃ

ধূমায়মান সালফিউরিক অ্যাসিডের রাসায়নিক নাম ____________।

উত্তরঃ পাইরোসালফিউরিক অ্যাসিড

(২.৮) শুন্যস্থান পূরন করোঃ

________ গ্যাস আর্দ্র বাতাসে সাদা ধোঁয়া সৃষ্টি করে।

উত্তরঃ HCl

(২.৯) সত্য না মিথ্যা লেখোঃ

উত্তরঃ N2 ও H2 থেকে NH3 এর শিল্পে প্রস্তুতিতে বর্তমান ফেরিক অক্সাইড অনুঘটক ব্যবহার করা হয়।

উত্তরঃ সত্য

(২.১০) সত্য না মিথ্যা লেখো :

কৃত্রিম সিল্ক বা রেয়ন প্রস্তুতিতে ইউরিয়া ব্যবহৃত হয়।

উত্তরঃ সত্য

‘গ’ বিভাগ

৩. নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাওঃ

(৩.১) গাঢ় H2SO4 দ্বারা H2S কে শুষ্ক করা যায় না কেন?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.২) আমাদের চারপাশে কোথাও অ্যামোনিয়া গ্যাস নির্গত হলে সবার আগে জলের ঝাপটা দেওয়া উচিত, অ্যাসিডের ঝাপটা নয় কেন?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৩) অ্যামোনিয়া গ্যাস শুষ্ক করতে ঘন H2SO4 ব্যবহার করা হয় কেন?

উত্তরঃ নিজ্র করো।

(৩.৪) উত্তপ্ত সোডিয়ামের ওপর NH3 গ্যাস চালনা করলে কী ঘটে সমিত সমীকরনসহ লেখো।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৫) উত্তপ্ত কিউপ্রিক অক্সাইডের ওপর দিয়ে অ্যামোনিয়া গ্যাস চালনা করলে কী ঘটে সমীকরনসহ লেখো।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৬) ‘ওলিয়াম’ কী?

উত্তরঃ নিজে করো।

‘ঘ’ বিভাগ

৪. নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাওঃ

(৪.১)  অ্যামোনিয়ার পরীক্ষাগার প্রস্তুতির প্রদত্ত বিষয়গুলি উল্লেখ করে বর্ণনা করো – (ক) নীতি (খ) প্রয়োজনীয় রাসায়নিক দ্রব্য (গ)  বিক্রিয়ার শর্ত ও সমিত সমীকরন (ঘ) গ্যাসের শুষ্ককরন ও সংগ্রহ।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.২) অস্‌ওয়াল্ড পদ্ধতিতে নাইট্রিক অ্যাসিড উৎপাদনের ক্ষেত্র সংশ্লিষ্ট বিক্রিয়াগুলি শর্তসহ সমীকরঙ্গুলি লেখো।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৩) পরীক্ষাগারে নাইট্রোজেন গ্যাস প্রস্তুতির নীতি ও বিক্রিয়ার সমীকরন দাও।

উত্তরঃ নিজে করো।

Madhyamik Physical Science Suggestion 2020 – ধাতুবিদ্যা

‘ক’ বিভাগ

১. বহুবিকল্প ভিত্তিক প্রশ্ন। প্রতিটি প্রশ্নের নীচে চারটি করে বিকল্প উত্তর দেওয়া আছে। যেটি ঠিক সেটি লেখোঃ

(১.১) কোন্‌টি লোহার খনিজ হলেও আকরিক নয় –

(ক) লাল হিমাটাইট (খ) ম্যাগনেটাইট (গ) আয়রন পাইরাইটস্‌ (ঘ) সিডারাইট

উত্তরঃ (গ) আয়রন পাইরাইটস্‌

(১.২) বিমানের কাঠামো তৈরিতে ব্যবহৃত সংকর ধাতুটি হল –

(ক) জার্মান সিলভার (খ) ব্রোঞ্জ (গ) ইনভার (ঘ) ডুরালুমিন

উত্তরঃ (ঘ) ডুরালুমিন

(১.৩) বিশুদ্ধতম আয়রন হল –

(ক) কাস্ট আয়রন (খ) রট্‌ আয়রন (গ) স্টিল আয়রন (ঘ) ইনভার

উত্তরঃ (খ) রট্‌ আয়রন

(১.৪) পিতিলে যে উপাদানটি শতকরা পরিমানে বেশি থাকে তা হল –

(ক) কপার (খ) জিংক (গ) অ্যালুমিনিয়াম (ঘ) লোহা

উত্তরঃ (ক) কপার

(১.৫) কোন্‌ আয়নের উপস্থিতিতে লোহার মরচে পড়ার হার বৃদ্ধি পায় –

(ক) Na+ (খ) Ca+ (গ) Cl- (ঘ) O2-

উত্তরঃ (গ) Cl-

(১.৬) ডুরালুমিন সংকর ধাতুর প্রধান উপাদান –

(ক) Al (খ) Zn (গ) Fe (ঘ) Cu

উত্তরঃ (ক) Al

(১.৭) গ্যালভানাইজ্‌ড আয়রন হল প্রকৃতপক্ষে –

(ক) Zn প্রলিপ্ত আয়রন (খ) Sn প্রলিপ্ত আয়রন (গ) Ni প্রলিপ্ত আয়রন

(ঘ) Cr প্রতিপ্ত আয়রন

উত্তরঃ (ক) Zn প্রলিপ্ত আয়রন

(১.৮) কোন্‌ ধাতুটি সাধারন উষ্ণতায় ফুটন্ত জলের সঙ্গে বিক্রিয়া করে না, কিন্তু স্টিমের সঙ্গে বিক্রিয়া করে H2 উৎপন্ন করে? –

(ক) Mg (খ) Zn (গ) Fe (ঘ) Al

উত্তরঃ (গ) Fe

(১.৯) কোন্‌ ধাতুটিকে ‘আত্মরক্ষায় সমর্থ’ ধাতু বলা হয় –

(ক) Al (খ) Fe (গ) Na (ঘ) Au

উত্তরঃ (ক) Al

(১.১০) লোহার মরিচা হল –

(ক) সোদক ফেরিক হাইড্রক্সাইড (খ) সোদক ফেরিক অক্সাইড (গ) অনার্দ্র ফেরিক অক্সাইড (ঘ) সোদন ফেরিক কার্বনেট

উত্তরঃ (খ) সোদক ফেরিক অক্সাইড

‘খ’ বিভাগ

২. নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাওঃ

(২.১) ছাপার ব্লক তৈরিতে কোন্‌ ধাতু ব্যবহৃত হয়?

উত্তরঃ জিংক

(২.২) কোন্‌ ধাতুটি পিতল ও ব্রোঞ্জ উভয় সংকর ধাতুতেই থাকে?

উত্তরঃ তামা

(২.৩) স্টেইনলেস স্টিলের প্রধান উপাদান কী কী?

উত্তরঃ আয়রন ( 73%), ক্রোমিয়াম (18%) ও নিকেল (9%)

(২.৪) লোহার ওপর মরচে পড়া কী ধরনের প্রক্রিয়া?

উত্তরঃ তড়িৎ-রাসায়নিক প্রক্রিয়া

(২.৫) প্রাচীন ভারতে যে উন্নতমানের ইস্পাত প্রস্তুত করা হত তার নিদর্শন কোথায় দেখা যায়?

উত্তরঃ বর্তমান দিল্লিতে গুপ্তযুগের লৌহস্তম্ভ

(২.৬) অ্যালুমিনিয়াম ও টিনের মধ্যে কোন্‌টি সক্রিয়তা শ্রেনিতে অপেক্ষাকৃত অপরে অবস্থিত?

উত্তরঃ অ্যালুমিনিয়াম

(২.৭) শুন্যস্থান পূরন করোঃ

মাটির নীচে তেলবাহী পাইপের সঙ্গে যুক্ত Mg-ব্লক ____________ রূপে ক্রিয়া করে।

উত্তরঃ অ্যানোড

(২.৮) শুন্যস্থান পূরন করোঃ

ক্রায়োলাইট ___________ ধাতুর আকরিক।

উত্তরঃ অ্যালুমিনিয়াম

(২.৯) সত্য না মিথ্যা লেখোঃ

রেল লাইনের পাত জুড়তে থার্মিট ব্যবহৃত হয়।

উত্তরঃ সত্য

(২.১০) সত্য না মিথ্যা লেখোঃ

অ্যালুমিনিয়াম ধাতু খোলা বাতাসে রাখলেও তার আবহাওয়াজনিত ক্ষয় হয় না।

উত্তরঃ সত্য

‘গ’ বিভাগ

৩. নিম্নলিখিত প্রশ্নের উত্তর দাওঃ

(৩.১) ‘সব আকরিকই খনিজ, কিন্তু সব খনিজ আকরিক নয়, – ব্যাখ্যা কর।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.২) প্রদত্ত ধাতুগুলির আকরিকের নাম ও সংকেত লেখোঃ Fe,Cu,Zn

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৩) সংকর ধাতু বা ধাতু-সংকর বলতে কী বোঝায়?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৪) থার্মিট মিশ্রন কী?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৫) ইলেকট্রনীয় তত্ত্ব অনুযায়ী, জারন ও বিজারন বিক্রিয়ার উদাহরণসহ সংজ্ঞা দেও।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৬) প্রদত্ত ধাতুগুলির কয়েকটি সংকর ধাতুর নাম, শতকরা সংযুতি ও ব্যবহার লেখোঃ Fe,Cu,Zn,Al

উত্তরঃ নিজ্র করো।

(৩.৭) গ্যালভাইনাইজেশন কাকে বলে?

উত্তরঃ নিজে করো।

Physical Science Suggestion 2020 – জৈব রসায়ন

‘ক’ বিভাগ

১. বহু বিকল্পভিত্তিক প্রশ্ন। প্রতিটি প্রশ্নের নীচে চারটি করে বিকল্প উত্তর দেওয়া আছে। যেটি ঠিক সেটি লেখোঃ

(১.১) একই সমগনীয় শ্রেণির পরপর দুটি সমগনের মধ্যে আনবিক ভরের পার্থক্য –

(ক) 8 (খ) 12 (গ) 14 (ঘ) 26

উত্তরঃ (গ) 14

(১.২) কোন্‌টি সম্পৃক্ত হাইড্রোকার্বন নয়? –

(ক) CH4 (খ) C2H6 (গ) C2H4 (ঘ) C3H8

উত্তরঃ (গ) C2H4

(১.৩) সরলতম অ্যালকেন হল –

(ক) মিথেন (খ) ইথেন (গ) প্রোপেন (ঘ) বিউটেন

উত্তরঃ (ক) মিথেন

(১.৪) মিথেন অনুতে H-C-H বদ্ধন-কোনের মান হল –

(ক) 105 O (খ) 110 O (গ) 109 O 28′ (ঘ) 108 O 19′

উত্তরঃ (গ) 109 O 28′

(১.৫) ফল পাকানোর জন্য ব্যবহার করা হয় –

(ক) মিথেন (খ) ইথিলিন (গ) LPG (ঘ) CNG

উত্তরঃ (খ) ইথিলিন

(১.৬) মাস্টার্ড গ্যাস প্রস্তুতিতে ব্যবহার হয় –

(ক) অ্যাসিটিলিন (খ) ইথিলিন (গ) ইথেন (ঘ) মিথেন

উত্তরঃ (খ) ইথিলিন

(১.৭) ইথিলিন অ্যালকোহল ও ডাইমিথাইল ইথারের মধ্যে যে ধরনের সমাবয়বতা দেখা যায় তা হল –

(ক) শৃংখলঘটিত

(খ) অবস্থানঘটিত (গ) কার্যকরীমূলকঘটিত (ঘ) কোনোটিই নয়।

উত্তরঃ (গ) কার্যকরীমূলকঘটিত

(১.৮) নন্‌-স্টল বাসনপত্র তৈরিতে যে পলিমার যৌগটি ব্যবহৃত হয় সেটি হল –

(ক) পলিভিনাইল ক্লোরাইড (খ) পলিথিন (গ) টেফলন (ঘ) পলিস্টাইরিন

উত্তরঃ টেফলন

(১.৯) CNG-এর প্রধান উপাদান –

(ক) মিথেন (খ) ইথেন (গ) বিউটেন (ঘ) প্রোপেন

উত্তরঃ (ক) মিথেন

(১.১০) ভিনিগার যে জৈব পদার্থটি থাকে সেটি হল –

(ক) ফর্মিক অ্যাসিড (খ) ফর্ম্যালডিহাইড (গ) অ্যাসিটিক অ্যাসিড

(ঘ) অ্যাসিট্যাল ডিহাইড

উত্তরঃ (গ) অ্যাসিটিক অ্যাসিড

‘খ’ বিভাগ

২. নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাওঃ

(২.১) মিথেন অনুর জ্যামিতিক আকৃতি কীরূপ?

উত্তরঃ সমচতুস্তলকীয়

(২.২) এমন একটি হাইড্রোকার্বন যৌগের উদাহরন দাও যেটি একটি গ্রিনহাউস গ্যাস।

উত্তরঃ মিথেন

(২.৩) কার্বন ব্ল্যাক কী?

উত্তরঃ 1000OC উষ্ণতায় মিথেন বিয়োজিত হয়ে সূক্ষ কার্বন গুঁড়ো উৎপন্ন করে। একে কার্বন ব্ল্যাক বলা হয়।

(২.৪) সরলতম অ্যালকাইনের IUPAC নাম লেখো।

উত্তরঃ ইথাইন

(২.৫) নীল লিটমাসকে লাল করে এমন একটি জৈব যৌগের উদাহরন দাও।

উত্তরঃ অ্যাসিটিক অ্যাসিড

(২.৬) ভিনিগার কী?

উত্তরঃ অ্যাসিটিক অ্যাসিডের 5-8% জলীয় দ্রবনকে ভিনিগার বলে।

(২.৭) শুন্যস্থান পূরন করোঃ

CNG-এর সম্পূর্ন কথাটি হল ___________ ।

উত্তরঃ Compressed Natural Gas

(২.৮) শুন্যস্থান পূরন করোঃ

LPG-এর সম্পূর্ন কথাটি হল__________।

উত্তরঃ Liquefied Petrileum Gas

(২.৯) সত্য না মিথ্যা লেখোঃ

ইথেন অনুতে সমযোজী বদ্ধন সংখ্যা 7।

উত্তরঃ সত্য

(২.১০) সত্য না মিথ্যা লেখোঃ

আলেয়া উৎপাদনকারী প্রধান গ্যাসটি হল মিথেন।

উত্তরঃ সত্য

‘গ’ বিভাগ

৩. নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাওঃ

(৩.১) ‘আলেয়া’ কীভাবে উৎপন্ন হয়?

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.২) সমাবয়বতা বলতে কী বোঝায় ? উদাহরন দাও।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৩) মিথেনের সঙ্গে ক্লোরিনের প্রতিস্থাপন বিক্রিয়ার শর্ত কী? বিক্রিয়াটির প্রথম ধাপের সমীকরনটি লেখো।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৪) গঠনগত সমাবয়বতা বলতে কী বোঝায়? উদাহরন দাও।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৫) অতিরিক্ত পরিমান অ্যাসিটিলিক গ্যাস তরল ব্রোমিনে চালনা করলে কী চাক্ষুষ পরিবর্তন ঘটে সমীকরনসহ লেখো।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৩.৬) কার্যকরী গ্রুপ বলতে কী বোঝায়? উদাহরন দাও।

উত্তরঃ নিজে করো।

‘ঘ’ বিভাগ

৪. নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির উত্তর দাওঃ

(৪.১) জৈব যৌগ ও অজৈব যৌগের মধ্যে পার্থক্য নির্দেশ করো।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.২) ইথিলিন ও পলিথিনের মধ্যে পার্থক্য লেখো।

উত্তরঃ নিজে করো।

(৪.৩) টেফলন ও পলিথিনের মনোমারের নাম ও সংকেত লেখো ও একটি করে ব্যবহার উল্লেখ করো।

উত্তরঃ নিজে করো।
Here You Can Download This File

Madhyamik Physical Science Suggestion 2020

West Bengal Madhyamik Physical Science Suggestion 2020 | WBBSE Class10 Madhyamik Physical Science Suggestion

পশ্চিমবঙ্গ মাধ্যমিক ভৌত বিজ্ঞান সাজেশন 2020 (দশম শ্রেণীর ভৌত বিজ্ঞান থেকে প্রশ্নোত্তর)

Madhyamik Physical Science Suggestion 2020 download with Sure Common in Examination. West Bengal Madhyamik 2020 Physical Science Suggestion and new question pattern. WBBSE 10th Class Board Exam suggestive questions. Madhyamik Physical Science Suggestion PDF Download. Important questions for WB Madhyamik 2020 Physical Science Subject. West Bengal Board of Secondary Education Madhyamik 2020 Model Question Paper Download.

Download good quality Suggestions for Madhyamik 2020 Physical Science Subject prepared by Expert Physical Science subject teachers. Get the WBBSE Madhyamik 2020 Physical Science Suggestion. মাধ্যমিক 2020 ভৌত বিজ্ঞান সাজেশন. his Madhyamik Physical Science Suggestion 2020 will help you to find out your Madhyamik 2020 preparation.

Madhyamik Physical Science Syllabus 2020

West Bengal Board of Secondary Education (WBBSE) Madhyamik Physical Science Syllabus with all the important chapters and marks distribution. Download the Madhyamik 2020 Physical Science Syllabus and Question Paper.

Get the complete syllabus of WBBSE Madhyamik 2020 Physical Science Suggestion published by West Bengal Board of Secondary Education. All the important questions and suggestions for WB Class 10th Board Examination.

বিভাগ
একক
সাধারণ অংশ
পরিবেশের জন্য ভাবনা, গ্যাসের আচরণ, রাসায়নিক গণনা
পদার্থবিদ্যা
তাপের ঘটনাসমূহ, আলো, চলতড়িৎ, পরমাণু নিউক্লিয়াস
রসায়ন
পর্যায় সারণী ও মৌলের ধর্মের পর্যাবৃত্ততা, আয়নীয় ও সমযোজী বন্ধন, তড়িৎ প্রবাহ ও রাসায়নিক বিক্রিয়া, পরীক্ষাগার ও রাসায়নিক শিল্পে অজৈব রসায়ন, ধাতুবিদ্যা, জৈব রসায়ন

Questions on the Physical Science exam will come from these chapters. All the chapters are equally important, so read them carefully.

Madhyamik 2020 Physical Science Exam Time

Madhyamik 2020 Physical Science Suggestion
Download Madhyamik Physical Science 2020 Suggestion with all the important questions and Notes. This year Madhyamik 2020 Physical Science exam will be held on 25th February 2020 at 11:45 am to 3:00 pm. Download West Bengal Madhyamik 2020 Physical Science Suggestion.

EXAM NAME
Madhyamik Exam 2020
SUBJECT
Physical Science
EXAM DATE
25th February 2020
BOARD
WBBSE
SUGGESTION COMMON
99%

Madhyamik Physical Science Question Paper Marks Details

Total marks for West Bengal 10th Class Physical Science Board Exam is 100, under which 90 marks for written test and 10 marks for the oral test. Question paper for Madhayamik 2020 Physical Science subject will be prepared on the basis of the new syllabus prepared by WBBSE.

The West Bengal Madhyamik 2020 Physical Science Question Paper will contain 15 marks MCQ questions, 21 marks very short answer type questions, 18 marks short answer type questions and 36 marks long answer type questions. The question paper may contain Numerical Problems, Chemical reactions etc.

West Bengal Madhyamik class 10th Board Physical science Exam details info

West Bengal Board of Secondary Education (WBBSE) Madhyamik 2020 Exam Suggestion download for Physical Science subject. West Bengal Madhyamik 2020 Examination will be started from February. Students who are currently studying in Class 10th, will seat for their first Board Exam Madhyamik. West Bengal Board of Secondary Education will organize this Examination all over West Bengal. WBBSE Madhyamik 2020 Physical Science question paper download.

West Bengal Board of Secondary Education (WBBSE) Physical Science Exam

West Bengal Board of Secondary Education (WBBSE) will organize Madhyamik (10th) Board Examination 2020. Students who are currently studying in Class 10 standard, will have to seat for their first Board Exam Madhyamik 2020. Physical Science is the first language for many students in the exam.

West Bengal Madhyamik 2020 Physical Science Exam

West Bengal Madhyamik 2020 Physical Science Suggestion Download in Physical Science version. WBBSE Madhyamik Physical Science suggestion 2020 pdf version. Get the complete Madhayamik Physical Science Suggestion 2020 with 99% Common in Examination. Madhyamik 2020 Physical Science Suggestion pdf download. Madhyamik Scientific Suggestion. WBBSE Class 10th Physical Science exam notes and Important questions.

This Madhyamik 2020 Physical Science Suggestion prepared by expert subject teachers. Hope this will help you on your first Board Examination. At first, read Carefully your textbooks and then practice this suggestion paper. On this suggestion, all the questions are mentioned, which are important Madhyamik 2020 Physical Science exam.

This suggestion prepared on the basis of all the important questions for this year Examination. This is not a complete study material, never depends upon only this suggestion. Read carefully your textbooks first.

This is the complete list of Suggestions and other information of West Bengal Madhyamik 2020 Examination.  Share this page to help your friends. Team BhugolShiksha.com wishes you, Best of Luck for your First Board Examination.
        মাধ্যমিক  ভৌত বিজ্ঞান পরীক্ষা 2020 (Madhyamik 2020 / WB Madhyamik 2020 / MP Exam 2020 / West Bengal Board of Secondary Education – WBBSE Madhyamik Exam 2020 / Madhyamik Class 10th / Class X / Madhyamik Pariksha 2020 ) এবং বিভিন্ন চাকরির (WBCS, WBSSC, RAIL, PSC, DEFENCE) পরীক্ষায় এখান থেকে প্রশ্ন অবশ্যম্ভাবী । সে কথা মাথায় রেখে BhugolShiksha.com এর পক্ষ থেকে মাধ্যমিক (দশম শ্রেণী) ভৌত বিজ্ঞান পরীক্ষা প্রস্তুতিমূলক প্রশ্নোত্তর এবং সাজেশন (Madhyamik Physical Science Suggestion / West Bengal Board of Secondary Education – WBBSE Physical Science Suggestion / Madhyamik Class 10th Physical Science Suggestion 2020 / Class X Physical Science Suggestion / Madhyamik Pariksha Physical Science Suggestion / Physical Science Madhyamik Exam Guide / MCQ , Short , Descriptive  Type Question and Answer / Madhyamik Physical Science Suggestion 2020 FREE PDF Download) উপস্থাপনের প্রচেষ্টা করা হলাে। ছাত্রছাত্রী, পরীক্ষার্থীদের উপকারেলাগলে, আমাদের প্রয়াস মাধ্যমিক (দশম শ্রেণী) ভৌত বিজ্ঞান পরীক্ষা 2020 প্রস্তুতিমূলক প্রশ্নোত্তর এবং সাজেশন (Madhyamik Physical Science Suggestion 2020 / West Bengal Board of Secondary Education – WBBSE Physical Science Suggestion / Madhyamik Class 10th Physical Science Suggestion 2020 / Class X Physical Science Suggestion / Madhyamik Pariksha Physical Science Suggestion 2020 / Madhyamik Physical Science Exam Guide / MCQ , Short , Descriptive  Type Question and Answer / Madhyamik Physical Science Suggestion 2020 FREE PDF Download) সফল হবে।
    স্কুল, কলেজ ও বিভিন্ন ছাত্রছাত্রীদের পড়াশোনার ডিজিটাল মাধ্যম BhugolShiksha.com । এর প্রধান উদ্দেশ্য পঞ্চম শ্রেণী থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর সমস্ত বিষয় এবং গ্রাজুয়েশনের শুধুমাত্র ভূগোল বিষয়কে  সহজ বাংলা ভাষায় আলোচনার মাধ্যমে ছাত্রছাত্রীদের কাছে সহজ করে তোলা। এছাড়াও সাধারণ-জ্ঞান, পরীক্ষা প্রস্তুতি, ভ্রমণ গাইড, আশ্চর্যজনক তথ্য, সফল ব্যাক্তিদের জীবনী, বিখ্যাত ব্যাক্তিদের উক্তি,  প্রাণী জ্ঞান, কম্পিউটার, বিজ্ঞান ও বিবিধ প্রবন্ধের মাধ্যমে ছাত্রছাত্রীদের মননকে বিকশিত করে তোলা।
        আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ সময় করে আমাদের পােস্টটি পড়ার জন্য। এই ভাবেই ভূগোল শিক্ষা – BhugolShiksha.com ওয়েবসাইটের পাশে থাকুন। ভূগোল বিষয়ে যেকোনো প্ৰশ্ন উত্তর জানতে এই ওয়েবসাইট টি ফলাে করুন এবং নিজেকে  তথ্য সমৃদ্ধ করে তুলুন , ধন্যবাদ।
নিচের বাটনে ক্লিক করে শেয়ার করেন বন্ধুদের মাঝে