লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর জীবনী - Lal Bahadur Shastri Biography in Bengali
লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর জীবনী - Lal Bahadur Shastri Biography in Bengali

লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর জীবনী 

Lal Bahadur Shastri Biography in Bengali

লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর জীবনী – Lal Bahadur Shastri Biography in Bengali : লাল বাহাদুর শাস্ত্রী (Lal Bahadur Shastri) ছিলেন ভারতের দ্বিতীয় প্রধানমন্ত্রী। নেহেরুর মৃত্যুর কারণে, লাল বাহাদুর শাস্ত্রী (Lal Bahadur Shastri) 9 জুন 1964-এ এই পদে মনোনীত হন। তার স্থান দ্বিতীয়, কিন্তু তার শাসন ‘অনন্য’ থেকে যায়। এই সহজ-সরল এবং শান্ত ব্যক্তিকে 1966 সালে দেশের সর্বোচ্চ সম্মান ‘ভারতরত্ন’ দেওয়া হয়েছিল। লাল বাহাদুর শাস্ত্রী (Lal Bahadur Shastri) একজন মহান স্বাধীনতা সংগ্রামী ছিলেন, তিনি মহাত্মা গান্ধী এবং জওহরলাল নেহরুর পদাঙ্ক অনুসরণ করেছিলেন। লাল বাহাদুর শাস্ত্রী (Lal Bahadur Shastri) 1965 সালের ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধের সময় দেশকে ধরে রেখেছিলেন এবং সেনাবাহিনীকে সঠিক দিকনির্দেশনা দিয়েছিলেন।

  ভারতের ২য় প্রধানমন্ত্রী এবং ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের একজন দলনেতা লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর একটি সংক্ষিপ্ত জীবনী । লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর জীবনী – Lal Bahadur Shastri Biography in Bengali বা লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর আত্মজীবনী (Lal Bahadur Shastri Jivani Bangla. A short biography of Lal Bahadur Shastri. Lal Bahadur Shastri Birth, Place, Life Story, Life History, Biography in Bengali) লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর জীবনী বা জীবন রচনা সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

লাল বাহাদুর শাস্ত্রী কে ছিলেন ? Who is Lal Bahadur Shastri ?

লাল বাহাদুর শাস্ত্রী (Lal Bahadur Shastri) ভারতের ২য় প্রধানমন্ত্রী এবং ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের একজন দলনেতা ছিলেন। ১৯২০ সালে লাল বাহাদুর শাস্ত্রী (Lal Bahadur Shastri) ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনে যোগদান করেন। গভীরভাবে প্রভাবিত হয়ে তিনি প্রথমে মোহনদাস করমচাঁদ গান্ধী ও পরে জওহরলাল নেহ্‌রুর একজন বিশ্বস্ত অনুগামী হয়ে ওঠেন। স্বাধীনতার পরবর্তীকালে তিনি রাজনৈতিক দলে যোগ দিয়ে হয়ে ওঠেন জওহরলাল নেহ্‌রুর অন্যতম প্রধান সঙ্গী, প্রথমে রেলমন্ত্রী(১৯৫১-১৯৫৬) হিসেবে ও পরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে। লাল বাহাদুর শাস্ত্রীকে (Lal Bahadur Shastri) নেহেরুর উত্তরসূরী হিসেবে বাছাই করা হয় যখন নেহেরু পুত্রী ইন্দিরা গান্ধী প্রধানমন্ত্রী হতে নাকচ করে দেন।

লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর জীবনী – Lal Bahadur Shastri Biography in Bengali :

নাম (Name) লাল বাহাদুর শাস্ত্রী (Lal Bahadur Shastri)
জন্ম (Birthday) ২ অক্টোবর ১৯০৪ (2nd October 1904)
জন্মস্থান (Birthplace) মুগলসরাই, ব্রিটিশ ভারত
পিতামাতা (Parents) রাম দুলারী, মুন্সী সারদা প্রসাদ শ্রীবাস্তব
জীবিকা অধ্যক্ষ

সক্রিয়তাবাদ

দাম্পত্য সঙ্গী ললিতা দেবী
রাজনৈতিক দল ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস
ভারতের প্রধানমন্ত্রী ১৯৬৪ – ১৯৬৬
পুরস্কার ভারতরত্ন (১৯৬৬)
মৃত্যু (Death) ১১ জানুয়ারি ১৯৬৬ (11th January 1966)

লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর জন্ম – Lal Bahadur Shastri Birthday :

লাল বাহাদুর শাস্ত্রী (Lal Bahadur Shastri) 2 অক্টোবর 1904 সালে ব্রিটিশ ভারতের মুঘলসরাই (উত্তর প্রদেশ) এ জন্মগ্রহণ করেন। উত্তরপ্রদেশের এক কায়স্থ পরিবারে শাস্ত্রীজির জন্ম। তাঁর পিতার নাম ছিল মুন্সি শারদা প্রসাদ শ্রীবাস্তব, তিনি একজন প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক ছিলেন এবং তাঁকে ‘মুন্সি জি’ বলে সম্বোধন করা হত। তাঁর মায়ের নাম ছিল রাম দুলারি।

লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর শুরুর জীবন – Lal Bahadur Shastri Early Life :

পরিবারের লোকেরা ছোটবেলায় লাল বাহাদুর শাস্ত্রী (Lal Bahadur Shastri) বা লাল বাহাদুর জিকে ‘নান্হে’ বলে ডাকতেন। লাল বাহাদুর শাস্ত্রী (Lal Bahadur Shastri) এর বাবা শৈশবেই মারা যান।  এর পরে, লাল বাহাদুর জির মা তাকে মির্জাপুরে তার বাবা হাজারী লালের বাড়িতে নিয়ে যান। কিছুকাল পর তার দাদাও মারা যান।

 লাল বাহাদুর শাস্ত্রী (Lal Bahadur Shastri) এর প্রাথমিক শিক্ষা মির্জাপুরে এবং পরবর্তী পড়াশোনা হরিশচন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয় ও কাশী-বিদ্যাপীঠে সম্পন্ন হয়। লাল বাহাদুর শাস্ত্রী (Lal Bahadur Shastri) বা লাল বাহাদুর জি সংস্কৃত ভাষায় স্নাতক সম্পন্ন করেন।  তিনি কাশী-বিদ্যাপীঠে ‘শাস্ত্রী’ উপাধি লাভ করেন।  এই সময় থেকে তিনি নিজের নামের সাথে ‘শাস্ত্রী’ যোগ করেন।  এরপর তিনি শাস্ত্রী নামে পরিচিত হন। লাল বাহাদুর শাস্ত্রী (Lal Bahadur Shastri) 1928 সালে ললিতা শাস্ত্রীর সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।  লতাদের ছয় সন্তান ছিল। লাল বাহাদুর শাস্ত্রী (Lal Bahadur Shastri) এর এক ছেলে অনিল শাস্ত্রী কংগ্রেস পার্টির সদস্য ছিলেন।

লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর স্বাধীনতা সংগ্রাম – Lal Bahadur Shastri Freedom Struggle :

স্বাধীনতার লড়াইয়ে, লাল বাহাদুর শাস্ত্রীজি (Lal Bahadur Shastri) ‘মরো না’ স্লোগান দিয়েছিলেন, যা সারা দেশে স্বাধীনতার শিখাকে তীব্র করে তুলেছিল।  1920 সালে, লাল বাহাদুর শাস্ত্রী (Lal Bahadur Shastri) স্বাধীনতা সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়েন এবং ‘ভারত সেবক সংঘ’-এর চাকরিতে যোগ দেন। তিনি ছিলেন একজন ‘গান্ধীবাদী’ নেতা, যিনি সারা জীবন দেশ ও দরিদ্রদের সেবায় উৎসর্গ করেছিলেন। শাস্ত্রীজি সব আন্দোলন ও কর্মসূচিতে অংশ নিতেন, যার ফলশ্রুতিতে তাঁকে বহুবার জেলে যেতে হয়েছে। লাল বাহাদুর শাস্ত্রী (Lal Bahadur Shastri) 1921 সালে ‘অসহযোগ-আন্দোলন’, 1930 সালে ‘ডান্ডি-যাত্রা’ এবং 1942 সালে ভারত ছাড়ো আন্দোলনে সক্রিয়ভাবে গুরুত্বপূর্ণ অংশ নেন।

 দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামও তীব্র হয়। নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু ‘আজাদ হিন্দ ফৌজ’ গঠন করেন এবং এটি “দিল্লি-চলো” স্লোগান দেন এবং একই সময়ে 8 আগস্ট 1942 তারিখে গান্ধীর ‘ভারত ছাড়ো আন্দোলন’ গতি লাভ করে।  ইতিমধ্যে, শাস্ত্রীজি ভারতীয়দের জাগানোর জন্য “ডু অর ডাই” স্লোগান দিয়েছিলেন, কিন্তু 9 আগস্ট 1942 সালে শাস্ত্রীজি এলাহাবাদে এই স্লোগানটি পরিবর্তন করেন এবং “মরো না” এ পরিবর্তন করে দেশের জনগণের কাছে আবেদন করেছিলেন। এই আন্দোলনের সময়, শাস্ত্রীজি এগারো দিন আন্ডারগ্রাউন্ডে ছিলেন, তারপর 19 আগস্ট 1942-এ গ্রেফতার হন।

লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর রাজনৈতিক ক্যারিয়ার – Lal Bahadur Shastri Politics Career :

স্বাধীন ভারতে লাল বাহাদুর শাস্ত্রী (Lal Bahadur Shastri) উত্তর প্রদেশের সংসদের সচিব নিযুক্ত হন। গোবিন্দ বল্লভ পন্তের মন্ত্রিসভার ছায়ায় তাঁকে পুলিশ ও পরিবহনের দায়িত্ব দেওয়া হয়। এই সময় শাস্ত্রীজি প্রথম মহিলাকে কন্ডাক্টর হিসাবে নিয়োগ করেছিলেন এবং পুলিশ বিভাগে লাল বাহাদুর শাস্ত্রী (Lal Bahadur Shastri) লাঠির পরিবর্তে জলকামান দিয়ে ভিড় নিয়ন্ত্রণ করার নিয়ম করেছিলেন। 1951 সালে, শাস্ত্রীজিকে ‘অল-ইন্ডিয়া-ন্যাশনাল-কংগ্রেস’-এর সাধারণ সম্পাদক করা হয়। লাল বাহাদুর শাস্ত্রী (Lal Bahadur Shastri) সব সময় দলের জন্য নিবেদিতপ্রাণ ছিলেন। তিনি 1952, 1957, 1962 সালের নির্বাচনে দলের পক্ষে প্রচুর প্রচার করেছিলেন এবং বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে কংগ্রেসকে জয়ী করেছিলেন।

 লাল বাহাদুর শাস্ত্রী (Lal Bahadur Shastri) বা শাস্ত্রীজির যোগ্যতা দেখে, জওহরলাল নেহরুর আকস্মিক মৃত্যুর পর তাঁকে প্রধানমন্ত্রী নিযুক্ত করা হয়েছিল, কিন্তু তাঁর কার্যকাল ছিল খুবই কঠিন।  পুঁজিবাদী দেশ এবং শত্রু দেশ তাদের শাসনকে অত্যন্ত চ্যালেঞ্জিং করে তুলেছিল। হঠাৎ 1965 সালে, সন্ধ্যা 7.30 টায় পাকিস্তান ভারতের উপর বিমান হামলা চালায়।  এই পরিস্থিতিতে সভা ডাকলেন রাষ্ট্রপতি সর্বপল্লী রাধা কৃষ্ণন। এই বৈঠকে তিন প্রতিরক্ষা বিভাগের প্রধান এবং শাস্ত্রীজি উপস্থিত ছিলেন।  আলোচনার সময়, প্রধানরা লাল বাহাদুর শাস্ত্রকে পুরো পরিস্থিতি অবহিত করেছিলেন এবং আদেশের জন্য অপেক্ষা করেছিলেন, তখনই শাস্ত্রীজি উত্তর দিয়েছিলেন, “আপনি দেশ রক্ষা করুন এবং আমাকে বলুন আমাদের কী করতে হবে?”  এভাবে ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধের সময় লাল বাহাদুর শাস্ত্রী (Lal Bahadur Shastri) প্রশংসনীয় নেতৃত্ব দিয়েছিলেন এবং “জয় জওয়ান জয় কিষান” স্লোগান দিয়েছিলেন, যা দেশে ঐক্য এনেছিল এবং ভারত পাকিস্তানকে পরাজিত করেছিল, যা পাকিস্তান কল্পনাও করেনি। কারণ তিন বছর আগে যুদ্ধে চীন ভারতকে পরাজিত করেছিল।

[আরও দেখুন, জহরলাল নেহেরু জীবনী – Jawaharlal Nehru Biography in Bengali]

লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর মৃত্যু – Lal Bahadur Shastri Death :

রাশিয়া ও আমেরিকার চাপে লাল বাহাদুর শাস্ত্রী (Lal Bahadur Shastri) শান্তি চুক্তি স্বাক্ষরের জন্য রাশিয়ার রাজধানী তাসখন্দে পাকিস্তানের রাষ্ট্রপতি আইয়ুব খানের সাথে দেখা করেন। চাপের মুখেই তারা চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন বলে জানা গেছে। চুক্তির রাতে 1966 সালের 11 জানুয়ারি রহস্যজনকভাবে তিনি মারা যান।  সেই সময় অনুসারে, লাল বাহাদুর শাস্ত্রী (Lal Bahadur Shastri) হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছিলেন, তবে বলা হয় যে তাঁর ময়নাতদন্ত করা হয়নি কারণ তাঁকে বিষ দেওয়া হয়েছিল, যা ছিল একটি সুপরিকল্পিত ষড়যন্ত্র, যা এখনও তাসখন্দের বাতাসে চাপা পড়ে রয়েছে। হয়  এইভাবে লাল বাহাদুর শাস্ত্রী (Lal Bahadur Shastri) মাত্র ১৮ মাসের জন্য ভারতের শাসনভার গ্রহণ করেন।  তার মৃত্যুর পর গুলজারি লাল নন্দ আবার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিযুক্ত হন। যমুনা নদীর তীরে তাঁর শেষকৃত্য সম্পন্ন হয় এবং সেই স্থানটির নামকরণ করা হয় ‘বিজয় ঘাট’

[আরও দেখুন, মহাত্মা গান্ধীর জীবনী – Mahatma Gandhi Biography in Bengali]

লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর জীবনী – Lal Bahadur Shastri Biography in Bengali FAQ :

  1. লাল বাহাদুর শাস্ত্রী কে ছিলেন ?

Ans: লাল বাহাদুর শাস্ত্রী ভারতের দ্বিতীয় প্রধানমন্ত্রী ছিলেন ।

  1. লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর জন্ম কোথায় হয় ?

Ans: লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর জন্ম হয় মুগলসরাই এ ।

  1. লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর জন্ম কবে হয় ?

Ans: লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর জন্ম হয় ২ অক্টোবর ১৯০৪ সালে ।

  1. লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর পিতার নাম কী ?

Ans: লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর পিতার নাম মুন্সী সারদা প্রসাদ শ্রীবাস্তব ।

  1. লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর মাতার নাম কী ?

Ans: লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর মাতার নাম রাম দুলারী ।

  1. লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর দলের নাম কী ?

Ans: লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর দলের নাম ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস ।

  1. লাল বাহাদুর শাস্ত্রী কবে ভারতরত্ন পান ?

Ans: লাল বাহাদুর শাস্ত্রী ১৯৬৬ সালে ভারতরত্ন পান ।

  1. লাল বাহাদুর শাস্ত্রী কবে মারা যান ?

Ans: লাল বাহাদুর শাস্ত্রী ১১ জানুয়ারি ১৯৬৬ সালে মারা যান ।

[আরও দেখুন, নেতাজী সুভাষচন্দ্র বসুর জীবনী – Netaji Subhash Chandra Bose Biography in Bengali

আরও দেখুন, ভগৎ সিং এর জীবনী – Bhagat Singh Biography in Bengali

আরও দেখুন, সর্দার বল্লভভাই প্যাটেল এর জীবনী – Sardar Vallabhbhai Patel Biography in Bengali

আরও দেখুন, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর জীবনী – Rabindranath Tagore Biography in Bengali]

লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর জীবনী – Lal Bahadur Shastri Biography in Bengali

  অসংখ্য ধন্যবাদ সময় করে আমাদের এই ” লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর জীবনী – Lal Bahadur Shastri Biography in Bengali  ” পােস্টটি পড়ার জন্য। লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর জীবনী – Lal Bahadur Shastri Biography in Bengali পড়ে কেমন লাগলো কমেন্টে জানাও। আশা করি এই লাল বাহাদুর শাস্ত্রী এর জীবনী – Lal Bahadur Shastri Biography in Bengali পোস্টটি থেকে উপকৃত হবে। এই ভাবেই BhugolShiksha.com ওয়েবসাইটের পাশে থাকো যেকোনো প্ৰশ্ন উত্তর জানতে এই ওয়েবসাইট টি ফলাে করো এবং নিজেকে  তথ্য সমৃদ্ধ করে তোলো , ধন্যবাদ।

Subscribe Our YouTube Channel

Join Our Telegram Channel

E-mail Subscription