জুসেপ্পে গেরিবলদির জীবনী - Giuseppe Garibaldi biography in Bengali
জুসেপ্পে গেরিবলদির জীবনী - Giuseppe Garibaldi biography in Bengali

জুসেপ্পে গেরিবলদির জীবনী

Giuseppe Garibaldi Biography in Bengali

জুসেপ্পে গেরিবলদির জীবনী – Giuseppe Garibaldi Biography in Bengali : এই পৃথিবীতে এমন কিছু মানুষ আসেন , যাঁরা অমরত্ব লাভ করেন । মৃত্যু এসে তাদের জীবনদীপ নির্বাপিত করে , একথা সত্য , কিন্তু হাজার লক্ষ অনুগামীদের মনের মণিকোঠায় তারা চিরস্মরণীয় হয়ে থাকেন । এমনই এক মহান বিপ্লবী হলেন জুসেপে গ্যারিবন্ডি ।

  আধুনিক ইতালির স্রষ্টা জুসেপ্পে গেরিবলদি এর একটি সংক্ষিপ্ত জীবনী । জুসেপ্পে গেরিবলদি এর জীবনী – Giuseppe Garibaldi Biography in Bengali বা জুসেপ্পে গেরিবলদি এর আত্মজীবনী বা (Giuseppe Garibaldi Jivani Bangla. A short biography of Giuseppe Garibaldi. Giuseppe Garibaldi Birth, Place, Life Story, Life History, Biography in Bengali) জুসেপ্পে গেরিবলদি এর জীবন রচনা সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

জুসেপ্পে গেরিবলদি কে ছিলেন ? Who is Giuseppe Garibaldi ?

জুসেপ্পে গেরিবলদি (Giuseppe Garibaldi) ছিলেন একজন আধুনিক ইতালির স্রষ্টা ও এক মহান বিপ্লবী। ঐক্যবদ্ধ ইতালির অনন্যসাধারণ জননায়ক হিসাবে বিশ্বের স্বীকৃতি লাভ করেছিলেন। জুসেপ্পে গেরিবলদি (Giuseppe Garibaldi) আধুনিক কালের অন্যতম সেরা জেনারেল হিসাবে বিবেচিত হন। পাশাপাশি কাউন্ট ক্যাভুর নামে পরিচিত ক্যামিলো বেন্সো ইতালির দ্বিতীয় ভিক্টর এমানুয়েল এবং জুসেপ্পে মাৎসিনির সাথে জুসেপ্পে গেরিবলদিকে (Giuseppe Garibaldi) ইতালির জনক বলা হয়। দক্ষিণ আমেরিকা ও ইউরোপে সামরিক উদ্যোগের কারণে জুসেপ্পে গারিবালদি “দুই পৃথিবীর বীর” হিসাবেও পরিচিত।

আধুনিক ইতালির স্রষ্টা জুসেপ্পে গারিবালদির জীবনী – Giuseppe Garibaldi biography in Bengali :

নাম (Name) জুসেপ্পে গেরিবলদি (Giuseppe Garibaldi)
জন্ম (Birthday) ৪ জুলাই ১৮০৭ (4th July 1807)
জন্মস্থান (Birthplace) নিস, প্রথম ফ্রান্স সাম্রাজ্য
অভিভাবক (Parents)/পিতামাতা জোসেফ-মারি গারিবালদি
দাম্পত্য সঙ্গী (Spouse) আনিতা গারিবালদি (বি. ১৮৪২)

জুসেপ্পিনা রাইমন্দি (বি. ১৮৬০)

ফ্রান্সেসকা আর্মোসিনো (বি. ১৮৮০)

জাতীয়তা ইতালীয়
রাজনৈতিক দল তরুণ ইতালি (১৮৩১-১৮৪৮)

অ্যাকশন পার্টি (১৮৪৮-১৮৬৭)

ঐতিহাসিক বাম (১৮৬৭-১৮৭৭)

চরম বাম (১৮৭৭-১৮৮২)

সন্তান মেনোত্তি গারিবালদি, রিচত্তি গারিবালদি এবং অন্যান্য ৬ জন
কাজের মেয়াদ ১৮৩৫ – ১৮৭১
পদ জেনারেল
যুদ্ধ রাগামাফিন যুদ্ধ

Uruguayan Civil War

    Great Siege of Montevideo

    Uruguay River pillage

Italian Unification Wars

    1st War of Independence

        Battle of Novara

        Siege of Rome

    2nd War of Independence

        Battle of Varese

    Expedition of the Thousand

        Battle of Calatafimi

        Battle of Milazzo

        Battle of Volturnus

    Battle of Aspromonte

    3rd War of Independence

        Battle of Bezzecca

        Invasion of Trentino

    Battle of Mentana

Franco-Prussian War

    Siege of Paris

মৃত্যু (Death) ২ জুন ১৮৮২ (2nd June 1882)

জুসেপ্পে গারিবালদির জন্ম – Giuseppe Garibaldi Birthday :

 জুসেপ্পে গেরিবলদিকে (Giuseppe Garibaldi) আধুনিক ইতালিরস্রষ্টা বলা হয় । জুসেপ্পে গেরিবলদি (Giuseppe Garibaldi) এর জন্ম হয়েছিল ১৮০৭ খ্রিস্টাব্দের ৪ ঠা জুলাই নিশ সহরে এক নাবিক পরিবারে । তখন নিশ ছিল ফরাসি শাসকদের অধীন । 

জুসেপ্পে গারিবালদির পিতামাতা – Giuseppe Garibaldi Parents :

 জন্মসূত্রে ফরাসি নাগরিক হলেও জুসেপে গ্যারিবন্ডির বাবা এবং মা — দুজনই ছিলেন ইতালিয়ান । তাই স্বাভাবিকভাবেই গ্যারিবল্ডি নিজেকে ইতালিয়ান বলেই মনে করতেন ।

 ছেলেবেলা থেকেই গ্যারিবণ্ডি স্বপ্ন দেখতেন স্বাধীন ঐক্যবদ্ধ ইটালির । 

 ইতালীর স্বাধীনতার স্থপতি ও রূপকার মহান নেতা গ্যারিবল্ডী কতো জনপ্রিয় ছিলেন তা এক বিস্ময়কর গল্প । ১৮৮২ সালের ৩ রা জুন তারিখে ৭৫ বছর বয়সে তাঁর অকস্মাৎ মৃত্যু হয়েছিলো । যেদিন তার মৃত্যু হয়েছিলো সেদিন সারা দেশ মুহূর্তে থম্‌কে গিয়েছিলো । তার মৃত্যুর সংবাদ যখন ইতালির রাজধানী রোমে পৌঁছেছিলো তখন নাট্যশালার নৃত্যগীত , যানবাহন , সরকারী – বেসরকারী সমস্ত কার্যালয় , ইতালিবাসী জনগণের জীবনযাত্রা মুহূর্তে থেমে গিয়েছিলো । নাট্যশালার পরিচালক সমবেত দর্শকবৃন্দকে এই মর্মান্তিক ঘটনার প্রেক্ষিতে অভিনয় স্থগিত রাখার ঘোষণা দিতে মঞ্চে দাঁড়িয়ে শোকে এমনই বিহ্বল হয়ে পড়েছিলেন যে , তিনি কী বলবেন তাই স্মরণ করতে পারছিলেন না । তাঁর বাক্য স্ফুরিত হচ্ছিলো না । তিনি নিজেই স্তম্ভিত ও হতবাক প্রায় হয়ে গিয়েছিলেন ।

জুসেপ্পে গারিবালদির শৈশবকাল – Giuseppe Garibaldi Childhood :

 ছোটবেলায় এই অসাধারণ জনপ্রিয় মহান নেতা গ্যারিবন্ডীর পিতামাতা এতো গরীব ছিলেন যে , তার শুধু অর্থের অভাবে সন্তানের সুশিক্ষার ব্যবস্থাও করতে পারেননি । তাই উচ্চশিক্ষা লাভ করা তার পক্ষে সম্ভব হয়নি । ফলে শিক্ষা বঞ্চিত হয়ে অল্প বয়সেই তিনি সাডিলির নৌ – বাহিনীতে ঢুকে পড়েছিলেন । এবং সেই অল্প বয়সেই তার অসম সাহসিকতা , দক্ষতা ও ধৈর্যের জন্য প্রচুর সুনাম ও সুখ্যাতি অর্জন করেছিলেন । শৈশব থেকেই তাঁর মনে ছিলো বড় হবার দুর্বার আকাঙ্খা আর ছিলো দেশপ্রেম ।

জুসেপ্পে গারিবালদির ইতালীর স্বাধীনতার কথা ভাবা :

 ইতালি তখন ছিলো অস্ট্রিয়ার অধিকৃত একটা পরাধীন দেশ । গ্যারিবন্ডি অস্ট্রিয়ার করাল গ্রাস থেকে জন্মভূমির স্বাধীনতার কথা ভাবতেন সর্বক্ষণ । জুসেপ্পে গেরিবলদি (Giuseppe Garibaldi) দেশপ্রেমিক একটি বিপ্লবী দলের সক্রিয় সদস্য হয়ে যান । এক সময় অস্ট্রিয়ার বিরুদ্ধে ইতালিতে একটা জাতীয় অভ্যুত্থান সংঘটিত হয় । গ্যারিবন্ডি এই অভ্যুত্থানে জড়িত ছিলেন । অভ্যুত্থান ব্যর্থ হওয়ায় গ্যারিবন্ডি গোপনে ফ্রান্সে পালিয়ে যান । জুসেপ্পে গেরিবলদি (Giuseppe Garibaldi) এর অবর্তমানেই বিচারে তাঁর মৃত্যুদণ্ডের আদেশ হয় ।

 বিদেশে অবস্থানকালে তার জীবনটা ছিলো সবচেয়ে বৈচিত্রময় এবং নানা দুঃসাহসিক ঘটনায় পূর্ণ । আত্মগোপন করার জন্য তাঁকে ছদ্মবেশে থাকতে হতো । অবশেষে তিনি মার্সিলিসে চলে আসেন । সেখানে জুসেপ্পে গেরিবলদি (Giuseppe Garibaldi) নিরাপদ আশ্রয় লাভ করেন । ওখানে গিয়ে পরিচয় হয় ইতালির আর এক বিপ্লবী ও স্বাধীনতাকামী রাজনীতিবিদ ম্যাটসিনির সাথে । গ্যারিবল্ডি ম্যাটসিনির অনুপ্রেরণা এবং উদ্যোগেই নব্য ইতালির সমাজের সাথে মিশে গেলেন । এই গোষ্ঠিটাই মাতৃভূমি ইতালিকে অস্ট্রিয়ার আধিপত্যবাদের নাগপাশ থেকে মুক্ত করার এবং দেশকে নতুনভাবে গড়ে তোলার প্রচেষ্টা চালাচ্ছিলো । অতঃপর গ্যারিবল্ডীও তাদের সাথে ঐক্যবদ্ধ ও একাত্ম হলেন দেশোদ্ধারের জন্য ।

[আরও দেখুন, জেমস ওয়াট এর জীবনী – James Watt Biography in Bengali]

জুসেপ্পে গারিবালদির স্বদেশে ফেরা – 

 ১৮৪৮ সালে ইতালিতে সংঘটিত হয় বিপ্লব । এই বিপ্লবই গ্যারিবন্ডিকে আবার স্বদেশে ফিরতে সুযোগ করে দেয় । কিন্তু জুসেপ্পে গেরিবলদি (Giuseppe Garibaldi) বেশিদিন দেশে থাকতে পারেননি । জুসেপ্পে গেরিবলদি (Giuseppe Garibaldi) কতিপয় সহচরের বিশ্বাসঘাতকতা এবং প্রয়োজনীয় অস্ত্রশস্ত্রের অভাবে কয়েকটি জনযুদ্ধে হেরে যান । ফলে আবার জুসেপ্পে গেরিবলদিকে (Giuseppe Garibaldi) দেশ থেকে পালাতে হয়।

পেরুর যুদ্ধ :

 তিনি ইউরোপ ছেড়ে চলে যান আমেরিকায় । প্রতীক্ষা করতে থাকেন স্বদেশে প্রত্যাবর্তনের সুযোগের । এমন সময় দক্ষিণ আমেরিকার পেরুতে বেধে যায় যুদ্ধ । পেরু সরকার গ্যারিবন্ডিকে সেনাপতির পদে বরণ করে নেয় । পেরুর যুদ্ধ শেষে জুসেপ্পে গেরিবলদি (Giuseppe Garibaldi) পরিবার পরিজনসহ চলে আসেন ক্যাসেপ্রো দ্বীপে । জুসেপ্পে গেরিবলদি (Giuseppe Garibaldi) এখানে পাঁচ বছর অজ্ঞাতবাসে কাটান ।

ইতালিতে জাতীয় জাগরণ :

 এই সময় আবার ইতালিতে শুরু হয় জাতীয় জাগরণ । দাসত্ব ও পরাধীনতার শৃঙ্খলে অবরুদ্ধ ইতালিবাসী আবার মুক্তির আশায় মাথা তুলে দাঁড়ায় অস্ট্রিয়ার বিরুদ্ধে । তখন স্বাভাবিকভাবে সকলের দৃষ্টি পড়লো বীর সেনানী গ্যারিবল্ডির দিকে । গ্যারিবন্ডির হৃদয় শুনতে পেলো আবার মুক্তপাগল দেশবাসীর ডাক । গ্যারিবল্ডি স্বীয় স্কন্ধে তুলে নিলেন নেতৃত্বের ভার ।

[আরও দেখুন, আর্কিমিডিস এর জীবনী – Archimedes Biography in Bengali]

জুসেপ্পে গারিবালদির আমলে ইতালীর স্বাধীনতা :

 আস্তে আস্তে মুক্ত হতে লাগলো ইতালির এক একটি রাজ্য । অল্প কিছুকালের মধ্যে ইতালির সব রাজ্যগুলো অস্ট্রিয়ার করাল গ্রাস থেকে মুক্ত হলো । সার্দিনিয়া পিদমোত লম্বার্ডির রাজা দ্বিতীয় ভিক্টর ইমানুয়েলকে ইতালির সমস্ত লোক রাজা বলে মেনে নিলো । মূলতঃ নির্লোভ গ্যারিবল্ডিই তাঁকে এই মর্যাদায় প্রতিষ্ঠিত করেন । জুসেপ্পে গেরিবলদি (Giuseppe Garibaldi) ইচ্ছে করলে নিজেকে ইতালির সম্রাট বলে ঘোষণা করতে পারতেন । কিন্তু জুসেপ্পে গেরিবলদি (Giuseppe Garibaldi) তা না করে সমস্ত ক্ষমতা স্বেচ্ছায় পরিত্যাগ করে সিসিলি দ্বীপের নির্জনবাসে চলে আসেন । এমন নিঃস্বার্থ বীর আর দেশপ্রেমিকের দৃষ্টাত্ত পৃথিবীর ইতিহাসে বিরল ।

জুসেপ্পে গারিবালদির মৃত্যু – Giuseppe Garibaldi Death :

 ১৮৮২ সালের ২ রা জুন অসংখ্য যুদ্ধজয়ের মহানায়ক এবং কিংবদন্তী বিপ্লবী জুসেপে গ্যারিবণ্ডির জীবনদীপ নির্বাপিত হয়েছে । আজও ইতালিয়বাসীর মনের মণিকোঠায় তিনি বেঁচে আছেন । বেঁচে আছে তার বৈপ্লবিক ধ্যান ধারণা ।

 তবে সবকিছুর লোভ পরিত্যাগ করে জুসেপ্পে গেরিবলদি (Giuseppe Garibaldi) পেয়েছিলেন স্বদেশবাসী লাখো জনতার শ্রদ্ধা ভালোবাসা সমীহ আর ভক্তি । আজো ইতালির প্রতিটি নাগরিকের কাছে গ্যারিবল্ডি এক মহান বীর , রূপকথার মহানায়ক বলে পরিচিত ও প্রাতঃস্মরণীয় ।

জুসেপ্পে গারিবালদির জীবনী – Giuseppe Garibaldi biography in Bengali FAQ :

  1. জুসেপ্পে গারিবালদির জন্ম কবে হয় ?

Ans: জুসেপ্পে গারিবালদির জন্ম হয় ৪ জুলাই ১৮০৭ সালে ।

  1. জুসেপ্পে গারিবালদি কে ছিলেন ?

Ans: জুসেপ্পে গারিবালদি ছিলেন আধুনিক ইতালির স্রষ্টা ও এক মহান বিপ্লবী ।

  1. জুসেপ্পে গারিবালদির পিতামাতার নাম কী ?

Ans: জুসেপ্পে গারিবালদির পিতামাতার নাম জোসেফ-মারি গারিবালদি ।

  1. জুসেপ্পে গারিবালদির জন্ম কোথায় হয় ?

Ans: জুসেপ্পে গারিবালদির জন্ম হয় নিস শহর ফ্রান্সে ।

  1. ইতালিতে কত সালে বিপ্লব সংগঠিত হয় ?

Ans: ইতালিতে ১৮৪৮ সালে বিপ্লব সংগঠিত হয় ।

  1. জুসেপ্পে গারিবালদির যুদ্ধে পদ কী ছিল ?

Ans: জুসেপ্পে গারিবালদির যুদ্ধে পদ ছিল জেনারেল।

  1. জুসেপ্পে গারিবালদির একটি রাজনৈতিক দলের নাম কী ?

Ans: জুসেপ্পে গারিবালদির একটি রাজনৈতিক দলের নাম তরুণ ইতালি ।

  1. জুসেপ্পে গারিবালদির একটি যুদ্ধের নাম কী ?

Ans: জুসেপ্পে গারিবালদির একটি যুদ্ধের নাম রাগামাফিন যুদ্ধ ।

  1. জুসেপ্পে গারিবালদি কবে জন্মগ্রহণ করেন ?

Ans: জুসেপ্পে গারিবালদি জন্মগ্রহণ করেন ৪ জুলাই ১৮০৭ সালে ।

  1. জুসেপ্পে গারিবালদির মৃত্যু কবে হয় ?

Ans: জুসেপ্পে গারিবালদির মৃত্যু হয় ১৮৮২ সালের ২ জুন ।

[আরও দেখুন, আলবার্ট আইনস্টাইন জীবনী – Albert Einstein Biography in Bengali

আরও দেখুন, মাও সে তুং এর জীবনী – Mao Zedong Biography in Bengali

আরও দেখুন, উইলিয়াম শেকসপিয়র এর জীবনী – William Shakespeare Biography in Bengali

আরও দেখুন, ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর জীবনী – Ishwar Chandra Vidyasagar Biography in Bengali

আরও দেখুন, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর জীবনী – Rabindranath Tagore Biography in Bengali]

জুসেপ্পে গেরিবলদি এর জীবনী – Giuseppe Garibaldi Biography in Bengali

   অসংখ্য ধন্যবাদ সময় করে আমাদের এই ” জুসেপ্পে গেরিবলদি এর জীবনী – Giuseppe Garibaldi Biography in Bengali  ” পােস্টটি পড়ার জন্য। জুসেপ্পে গেরিবলদি এর জীবনী – Giuseppe Garibaldi Biography in Bengali পড়ে কেমন লাগলো কমেন্টে জানাও। আশা করি এই জুসেপ্পে গেরিবলদি এর জীবনী – Giuseppe Garibaldi Biography in Bengali পোস্টটি থেকে উপকৃত হবে। এই ভাবেই BhugolShiksha.com ওয়েবসাইটের পাশে থাকো যেকোনো প্ৰশ্ন উত্তর জানতে এই ওয়েবসাইট টি ফলাে করো এবং নিজেকে  তথ্য সমৃদ্ধ করে তোলো , ধন্যবাদ।

Subscribe Our YouTube Channel

Join Our Telegram Channel

E-mail Subscription