মাধ্যমিক ইতিহাস - প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) প্রশ্ন ও উত্তর | Madhyamik History Question and Answer
মাধ্যমিক ইতিহাস - প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) প্রশ্ন ও উত্তর | Madhyamik History Question and Answer

মাধ্যমিক ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর

প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) | Madhyamik History Question and Answer

মাধ্যমিক ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর : প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) Madhyamik History Question and Answer : মাধ্যমিক ইতিহাস – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) প্রশ্ন ও উত্তর | Madhyamik History Question and Answer নিচে দেওয়া হলো। এই দশম শ্রেণীর ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর – WBBSE Class 10 History Question and Answer, Suggestion, Notes – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) থেকে বহুবিকল্পভিত্তিক, সংক্ষিপ্ত, অতিসংক্ষিপ্ত এবং রোচনাধর্মী প্রশ্ন উত্তর (MCQ, Very Short, Short,  Descriptive Question and Answer) গুলি আগামী West Bengal Class 10th Ten X History Examination – পশ্চিমবঙ্গ মাধ্যমিক ইতিহাস পরীক্ষার জন্য খুব ইম্পর্টেন্ট।

 তোমরা যারা প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) – মাধ্যমিক ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর | Madhyamik History Question and Answer Question and Answer খুঁজে চলেছ, তারা নিচে দেওয়া প্রশ্ন ও উত্তর গুলো ভালো করে পড়তে পারো। 

প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) – মাধ্যমিক দশম শ্রেণীর ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর | West Bengal Madhyamik Class 10th History Question and Answer 

MCQ প্রশ্নোত্তর | মাধ্যমিক ইতিহাস – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) প্রশ্ন ও উত্তর | Madhyamik History Question and Answer : 

  1. প্রথমবার চুয়াড় বিদ্রোহে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন— 

(A) বিরসা 

(B) দুর্জন সিংহ 

(C) মাধো সিং 

(D) বুদ্ধ ভগৎ 

Ans: (B) দুর্জন সিংহ

  1. দামিন – ই – কোহ শব্দের অর্থ কী— 

(A) পাহাড়ের প্রান্তদেশ 

(B) পাহাড়ের চূড়া 

(C) সাঁওতাল গ্রাম

(D) বিদ্রোহ 

Ans: (A) পাহাড়ের প্রান্তদেশ

  1. ওয়াহাবি আন্দোলনের সমসাময়িক বাংলায় তিতুমির – এর নেতৃত্বে যে আন্দোলন হয়েছিল তার নাম 

(A) ওয়াহাবি 

(B) পাগল পাখি 

(C) তারিকা – ই – মহম্মদিয়া 

(D) ফরাজি 

Ans: (C) তারিকা – ই – মহম্মদিয়া

  1. সাঁওতাল বিদ্রোহ হয়েছিল— 

(A) ১৮৩১ খ্রিস্টাব্দে 

(B) ১৮৫৫ খ্রিস্টাব্দে

(C) ১৮৫৭ খ্রিস্টাব্দে 

(D) ১৮৬৫ খ্রিঃ

Ans: (B) ১৮৫৫ খ্রিস্টাব্দে

  1. ‘ ধরতি আবা ’ শব্দের অর্থ হলো— 

(A) জলের ঈশ্বর 

(B) পৃথিবীর ঈশ্বর বা পিতা

(C) সমুদ্রের দেবতা 

(D) আকাশের দেবতা

Ans: (B) পৃথিবীর ঈশ্বর বা পিতা

  1. বারাসত বিদ্রোহের নেতা ছিলেন— 

(A) গোলাম মাসুম 

(B) মৈনুদ্দিন 

(C) তিতুমির

(D) সৈয়দ আহমেদ 

Ans: (C) তিতুমির

  1. খুৎকাঠি প্রথা প্রচলিত ছিল কোন সমাজে ? 

(A) কোল 

(B) ভিল 

(C) সাঁওতাল 

(D) মুন্ডা 

Ans: (D) মুন্ডা

  1. মুন্ডা বিদ্রোহের সূচনা হয় ? 

(A) 1859 

(B) 1899

(C) 1900 

(D) 1905

Ans: (B) 1899

  1. হুল শব্দের অর্থ কী ? 

(A) ঠান্ডা 

(B) ধারালো 

(C) বিপ্লব

(D) বিদ্রোহ 

Ans: (D) বিদ্রোহ

  1. সাঁওতাল বিদ্রোহ কী নামে পরিচিত ? 

(A) উলঘুলান 

(B) হুল

(C) দার – উল – হারব 

(D) দিকু

Ans: (B) হুল

  1. দামিন – ই – কোহ – তে বসবাস করত – 

(A) ওয়াহাবিরা 

(B) ফরাজিরা 

(C) সাঁওতালরা

(D) সন্ন্যাসী ও ফকিররা 

Ans: (C) সাঁওতালরা

  1. রংপুর বিদ্রোহের নেতা ছিলেন— 

(A) দেবীসিংহ 

(B) দুর্জন সিং

(C) নুরুলউদ্দিন 

(D) বীরসিংহ

Ans: (C) নুরুলউদ্দিন

  1. চুয়াড় বিদ্রোহের নেতা ছিলেন— 

(A) কানু 

(B) বিরসা 

(C) দুর্জন সিং

(D) জোয়া ভগত 

Ans: (C) দুর্জন সিং

  1. দ্বিতীয় অরণ্য আইন কবে পাশ হয়েছিল ? 

(A) 1855 

(B) 1864 

(C) 1865 

(D) 1878 

Ans: (D) 1878

  1. 1878 খ্রিস্টাব্দে অরণ্য আইনে অরণ্যকে কয় ভাগে ভাগ করা হয় ? 

(A) দু’টি স্তরে 

(B) তিনটি স্তরে 

(C) চারটি স্তরে

(D) পাঁচটি স্তরে 

Ans: (B) তিনটি স্তরে

  1. ফরাজি শব্দটির অর্থ হলো 

(A) ইসলাম নির্দেশিত কর্তব্য 

(B) নবজাগরণ 

(C) পথ

(D) বাদশাহ 

Ans: (A) ইসলাম নির্দেশিত কর্তব্য

  1. বাংলায় ফরাজি আন্দোলন শুরু হয় 

(A) 1817 

(B) 1819

(C) 1818 

(D) 1827 

Ans: (B) 1819

  1. নীল কমিশন গঠিত হয়— 

(A) 1860 

(B) 1862 

(C) 1864

(D) 1870

Ans: (A) 1860

  1. দার – উল – হারব শব্দটির অর্থ হলো— 

(A) দরিদ্রদের দেশ 

(B) মিত্রর দেশ

(C) ধনীর দেশ 

(D) শত্রুর দেশ

Ans: (D) শত্রুর দেশ

  1. মুন্ডা বিদ্রোহ কী নামে পরিচিত— 

(A) কানু 

(B) ভৈরত

(C) বিরসা মুন্ডা 

(D) সিধু

Ans: (C) বিরসা মুন্ডা

(B) দার – উল – হারব (D) দিকু 

  1. বাংলার নানা সাহেব ‘ কাকে বলা হয় ? 

(A) রামরতন মল্লিক 

(B) দীববন্ধু মিত্র

(C) ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্ত

(D) দিগম্বর বিশ্বাস

Ans: (A) রামরতন মল্লিক

  1. বাংলার ‘ ওয়াট টাইটেলার ‘ কাদের বলা হয় ? 

(A) দুর্জন সিংহ 

(B) বিশ্বনাথ সর্দার ও বৈদ্যনাথ সর্দার

(C) সিধু – কানু

(D) দিগম্বর বিশ্বাস ও বিষ্ণুচরণ বিশ্বাস

Ans: (D) দিগম্বর বিশ্বাস ও বিষ্ণুচরণ বিশ্বাস

অতিসংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর | মাধ্যমিক ইতিহাস – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) প্রশ্ন ও উত্তর | Madhyamik History Question and Answer : 

  1. উলগুলান বলতে কী বোঝো ? 

Ans: উলগুলান বলতে বোঝায় চরম বিশৃঙ্খলা বা বিরাট তোলপাড় । 

  1. চাইবাসার যুদ্ধ কবে হয়েছিল ? 

Ans: ১৮২০-২১ খ্রিস্টাব্দে হয়েছিল । 

  1. বিরসা মুন্ডা কবে মারা গিয়েছিলেন ? / কত খ্রিস্টাব্দে বিরসা মুন্ডার মৃত্যু হয় । 

Ans: ১৯০০ খ্রিস্টাব্দে ৯ জুন বিরসা মুন্ডা মারা যান । 

  1. ফরাজি কথার অর্থ কী ? 

Ans: ঈশ্বর নির্ধারিত বাধ্যতামূলক কর্তব্য । 

  1. ১৮৭৮ খ্রিস্টাব্দের অরণ্য আইনে অরণ্যকে কয়টি ভাগে বিভক্ত করা হয়েছে ? 

Ans: তিনটি স্তরে । 

  1. সুই মুন্ডা কোন বিদ্রোহে নেতৃত্ব দেন ? 

Ans: কোল বিদ্রোহ । 

  1. হিন্দু প্যাট্রিয়ট পত্রিকার সম্পাদক কে ছিলেন ?

Ans: হরিশচন্দ্র মুখোপাধ্যায় । 

  1. সন্ন্যাসী বিদ্রোহের দু’জন নেতার নাম লেখো ।

Ans: ভবানী পাঠক , এবং দেবী চৌধুরাণী ।  

  1. ওয়াহাবি কথার অর্থ কী ? 

Ans: নবজাগরণ । 

  1. পাগলপন্থী বিদ্রোহে কে নেতৃত্ব দেন ?

Ans: ফকির করম শাহের পুত্র টিপু শাহ । 

  1. দাদন কথার অর্থ কী ? 

Ans: অগ্রিম অর্থ । 

  1. নীলদর্পণ নাটক কে রচনা করেন ? 

Ans: দীনবন্ধু মিত্র । 

  1. ভারতে প্রথম অরণ্য আইন কবে পাশ হয়েছিল ? 

Ans: 1865 খ্রিস্টাব্দে । 

  1. রুম্পা / রামপা বিদ্রোহ কোথায় হয়েছিল ? Ans: অন্ধ্রপ্রদেশের গোদাবরী অঞ্চলে । 
  2. তিতুমিরের আসল নাম কী ? 

Ans: মির নিশার আলি । 

  1. ফরাজি কথাটি এসেছে কোন শব্দ থেকে ?

Ans: এর ফরাজ শব্দ থেকে । 

  1. ফরাজি আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা কে ছিলেন ?

Ans: হাজি শরিয়ত উল্লাহ । 

  1. রংপুরের বিদ্রোহীরা কাকে ‘ নবাব ’ উপাধিতে ভূষিত করে ? 

Ans: নুরুলউদ্দিনকে । 

  1. বঙ্গীয় প্রজাস্বত্ব আইন কবে পাশ হয়েছিল ?

Ans: ১৮৮৫ খ্রিস্টাব্দে । 

  1. নীল চাষিদের অভিযোগ খতিয়ে দেখতে কোন কমিশন গঠিত হয়েছিল ? 

Ans: নীল কমিশন ( ১৮৬০ খ্রিস্টাব্দে ) । 

  1. কবে বঙ্গীয় প্রজাস্বত্ব আইন পাশ হয় ? 

Ans: ১৮৮৫ খ্রিস্টাব্দে বঙ্গীয় প্রজাস্বত্ব আইন পাশ হয় । 

  1. গোলাম মাসুম কে ? 

Ans: গোলাম মাসুম ছিলেন তিতুমিরের প্রধান সেনাপতি । 

  1. কে ভিল বিদ্রোহ দমন করেন ? 

Ans: ১৮২৭ খ্রিস্টাব্দে আউট্রাম ভিল বিদ্রোহ দমন করেন । 

সংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর | মাধ্যমিক ইতিহাস – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) প্রশ্ন ও উত্তর | Madhyamik History Question and Answer : 

  1. বিপ্লব বলতে কী বোঝো ? 

Ans: বিপ্লব শব্দের অর্থ আমূল পরিবর্তন । মানুষ যখন আর্থ – সামাজিক ও রাজনৈতিক ব্যবস্থার পরিবর্তনের জন্যস্বতঃস্ফূর্তভাবে প্রতিরোধ করে তখন তাকে বিপ্লব বলে । 

  1. ব্রিটিশ সরকার কেন অরণ্য আইন চালু করেছিল ? 

Ans: ঔপনিবেশিক অঞ্চলে নিজেদের একচেটিয়া কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা করার জন্যে 1865 খ্রিস্টাব্দে অরণ্য আইন প্রবর্তন করা হয় । 

  1. সাঁওতাল বিদ্রোহের দু’টি বৈশিষ্ট্য লেখো । 

Ans: 1) এই বিদ্রোহের একটি ঔপনিবেশিকতা বিরোধী চরিত্র ছিল । 2) সাঁওতাল ছাড়াও কর্মকার , চর্মকার , তেলি , ডোম , মুসলিম প্রভৃতি শ্রেণির মানুষ যোগ দেওয়ায় এই বিদ্রোেহ গণবিদ্রোহে পরিণত হয় । 

  1. কোল বিদ্রোহের দু’টি গুরুত্ব লেখো । 

Ans: 1) কোল বিদ্রোহ হতে অন্যান্য উপজাতিদের বিদ্রোহী হতে উৎসাহিত করেছিল । 2) কোম্পানি বাধ্য হয়ে দক্ষিণ – পশ্চিম সীমান্তে এজেন্সি আইন গঠন করেছিল । 

  1. মুন্ডা বিদ্রোহের দু’টি গুরুত্ব লেখো । 

Ans: 1) এই বিদ্রোহের পর উপজাতি এলাকায় ভূমি বন্দোবস্তের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয় । 2) এই বিদ্রোহ দ্বারা বেগার শ্রম প্রথা নিষিদ্ধ হয় । 

  1. কবে , কোথায় , কার নেতৃত্বে নীলবিদ্রোহ শুরু হয় ? 

Ans: 1859 খ্রিস্টাব্দে বিষ্ণুচরণ বিশ্বাস ও দিগম্বর বিশ্বাসের নেতৃত্বে কৃয়নগরের চৌগাছা গ্রামে এই বিদ্রোহ শুরু হয় । 

  1. কোম্পানির আমলে দু’টি ভূমিরাজস্ব নীতি কী ? 

Ans: 1793 খ্রিস্টাব্দে চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত এবং মহলওয়ারি বন্দোবস্ত । 

  1. কোল বিদ্রোহের দু’টি কারণ কী ? 

Ans: 1) তাদের নগদ করদানে বাধ্য করা হয়েছিল । 2) তাদের স্থায়ী বিচার পদ্ধতিতে আঘাত করা হয়েছিল । 

  1. দামিন – ই কোহ ও হুল শব্দের অর্থ কী ? Ans: দামিনীকোহ – এর অর্থ পাহাড়ের প্রাস্তদেশ এবং হুল শব্দের অর্থ বিদ্রোহ । 
  2. আলি ভ্রাতৃদ্বয় কাদের বলে ? 

Ans: ওয়াহাবি আন্দোলনের নেতা এনায়েৎ আলি এবং উলায়েৎ আলিকে । 

  1. ভারতে দ্বিতীয় অরণ্য আইন কবে পাশ হয় ? উদ্দেশ্য কী ছিল ?

Ans: 1878 খ্রিস্টাব্দে । এর উদ্দেশ্য ছিল আদিবাসীদের কাছ থেকে অরণ্য কেড়ে নেওয়া । 

  1. কবে , কোন আইনের মাধ্যমে ভারতে কোম্পানি শাসনের অবসান ঘটে ? 

Ans: 1858 খ্রিস্টাব্দের 2 আগস্ট ‘ Govt . of India Act’- এর মাধ্যমে । 

  1. ‘ আনন্দমঠ ‘ উপন্যাস কীভাবে জাতীয়তাবাদী ভাবধারাকে উদ্বুদ্ধ করেছিল ?

Ans: ‘ আনন্দমঠ ‘ – এ উল্লিখিত ‘ বন্দেমাতরম ‘ মন্ত্র দেশবাসীকে মুক্তি আন্দোলনে উদ্‌বুৰ করেছিল । এখানে সত্যানন্দের মাধ্যমে আসুরিক ইংরেজ শাসনের বিরুদ্ধে ভারতীয়দের মধ্যে ধর্ম আন্দোলন জাগানোর ডাক দেওয়া হয়েছিল । এভাবেই এই উপন্যাস জাতীয়তাবাদী ভাবধারাকে উদ্বুদ্ধ করেছিল । 

  1. কোন আইনের মাধ্যমে ‘ নীলচুক্তি আইন ‘ রদ করা হয় ? এই আইনে কী বলা হয়েছে ? 

Ans: Act – VIII of 1868 নামে এক আইনের মাধ্যমে নীলচুক্তি আইন রদ করা হয় । 

এখানে বলা হয় , নীলচাষ সম্পূর্ণভাবে চাষিদের ইচ্ছাধীন । 

  1. বাংলায় ধর্মীয় প্রভাবযুক্ত কৃষক বিদ্রোহের নাম লেখো । 

Ans: চুয়াড় বিদ্রোহ , রংপুর বিদ্রোহ , কোল বিদ্রোহ ও নীলবিদ্রোহ । 

  1. ওয়াহাবি শব্দের অর্থ কী ? ভারত ও বাংলায় কাদের নেতৃত্বে প্রথম ওয়াহাবি আন্দোলনের সূচনা হয় ? 

Ans: নবজাগরণ । সৈয়দ আহমেদ এবং মহম্মদ মহসিন বা তিতুমির ।

বিশ্লেষণ ধর্মী প্রশ্নোত্তর | মাধ্যমিক ইতিহাস – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) প্রশ্ন ও উত্তর | Madhyamik History Question and Answer : 

  1. ভারতে ব্রিটিশ শাসনের প্রথম শতকে উপজাতি বিদ্রোহগুলির কারণ কী ছিল ? 

অথবা , ব্রিটিশ শাসনকালে ভারতে সংগঠিত বিভিন্ন কৃষক ও উপজাতি বিদ্রোহের কারণগুলি কী ছিল ? 

Ans: সূচনা : ব্রিটিশ শাসনকালে সমকালীন বণিক , জমিদার , অভিজাত শ্রেণি , নীলকর ও কোম্পানি ভারতকে শোষণের বদ্ধভূমিতে পরিণত করেছিল । এর পরিণতি স্বরূপ ভারতে দেখা যায় একের পর এক উপজাতি ও কৃষক বিদ্রোহ । এর কারণে বলা যায়— 

ভূমিরাজস্ব নীতি : ১৭৬৫ খ্রিস্টাব্দে ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি দেওয়ানি লাভের পর থেকেই নতুন ভূমিরাজস্ব নীতি , কোম্পানির আমলাদার ও ইজারাদারদের অত্যাচারে কৃষকদের জীবন দুর্বিষহ করে তোলে , যার ফলাফল ছিল বিভিন্ন কৃষক ও উপজাতি বিদ্রোহ । 

ব্রিটিশ আইন ও বিচার ব্যবস্থা : ১৭৭৩ খ্রিস্টাব্দের পর থেকে ইংরেজরা ভারতের চিরাচরিত আইনকানুন ও বিচার ব্যবস্থা বাতিল করে তাদের নিজস্ব আইন ও বিচার ব্যবস্থা চালু করে যা ভারতীয় সাধারণ মানুষদের ক্ষুদ্ধ করে তোলে । 

বহুমুখী শোষণ : কোম্পানির আমলে ভূমিরাজস্বের চাপ বৃদ্ধির সাথে সাথে সরকার , জমিদার , মধ্যস্বত্বভোগী ও মহাজনদের মাধ্যমে বহুমুখী শোষণ কৃষক ও উপজাতিদের জীবন বিপর্যস্ত করে তোলে । 

মূল্যায়ন : উপরোক্ত কারণ ছাড়াও খ্রিস্টান মিশনারিদের ধর্মান্তর নীতি ও ভারতীয় উপজাতিদের অরণ্যের অধিকার থেকে বঞ্চিত করা , জঙ্গল কেটে বাঁধ দেওয়া প্রভৃতি কারণেও কৃষক ও উপজাতি মানুষেরা বিদ্রোহের পথ বেছে নেয় । 

  1. পাগলপন্থী বিদ্রোহের বিবরণ দাও । 

অথবা , পাগলপন্থী বিদ্রোহের কারণ , প্রসার ও গুরুত্ব সংক্ষেপে লেখো । 

Ans: উনিশ শতকের একটি উল্লেখযোগ্য কৃষক আন্দোলন ছিল ১৮২৪ সালের পাগলপন্থী বিদ্রোহ । 

বিদ্রোহের কারণ : ব্রিটিশ সরকার ইঙ্গ – ব্রহ্ম যুদ্ধের ক্ষয়ক্ষতি ও ব্যয় নির্বাহের জন্য ময়মনসিংহের কৃষকদের খাজনার পরিমাণ বাড়িয়ে দেয় । জমিদাররাও বেশি পরিমাণে খাজনা আদায়ের জন্য কৃষকদের শোষণ চালায় । এছাড়াও ব্রিটিশ শাসনে ময়মনসিংহের বৃহত্তর এলাকার গ্রামীণ পরিকাঠামো ভেঙে পড়ে । 

বিদ্রোহের প্রসার : শেরপুর পরগনার হাজং , মুসলিম , রাজবংশী ও অন্য জাতিগোষ্ঠী ফকির করম শাহের নেতৃত্বে প্রথম বিদ্রোহ ঘোষণা করে । পরে করম শাহের পুত্র টিপু শাহের নেতৃত্বে এটি সশস্ত্র ও শক্তিশালী বিদ্রোহের রূপ নেয় । পাঁচ হাজার অনুগামী সহ টিপু শেরপুরের জমিদারকে আক্রমণ , থানায় আগুন , শহর জুড়ে লুঠপাট ও ময়মনসিংহের জয়েন্ট ম্যাজিস্ট্রেটকে ঘেরাও করেন । 

বিদ্রোহীদের ঘোষণা : পাগলপন্থীরা ঘোষণা করে 1) ব্রিটিশ সরকারের সঙ্গে কোনোরূপ সম্পর্ক রাখবে না , 2) সামরিক রাস্তা তৈরির কাজ বা একাজে কোনোরূপ সহায়তা করবে না , 3) জমিদারদের আধিপত্য মানবে না । 

গুরুত্ব : ব্রিটিশ সরকারের দমনপীড়নের মুখে পাগলপন্থীরা পেরে উঠেনি । তবুও এই বিদ্রোহের গুরুত্ব ছিল— 1) ভবিষ্যতে বড়ো বিদ্রোহের পথ প্রশস্ত হয় , 2) কৃষকদের ক্ষোভ , আশা – আকাঙ্ক্ষা – অসন্তোষের প্রকাশ ঘটায় প্রশাসন সচেতন হয় । 

  1. সাঁতাল বিদ্রোহের কারণ লেখো । অথবা , ১৮৫৫ খ্রিস্টাব্দে সাঁওতালরা বিদ্রোহ করেছিল কেন ? 

Ans: সূচনা : চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত প্রসূত জমিদার ও কোম্পানির শোষণ ও অত্যাচারে জমিহারা সাঁওতাল উপজাতির মানুষেরা বাঁকুড়া , মেদিনীপুর , ধলভূম , ভাগলপুর অঞ্চলে বসতি স্থাপন করে । কিন্তু এর পরেও ব্রিটিশ সাম্রাজ্যবাদী শাসনে | ও শোষণে তারা নির্মমভাবে শোষিত , নিষ্পেষিত ও সর্বস্বান্ত হতে থাকে । এর বিরুদ্ধে আদিবাসীরা ১৮৫৫-৫৬ খ্রিস্টাব্দে সাঁওতাল বিদ্রোহ সংগঠিত করেছিল । এর কারণগুলি হলো 

বিদ্রোহের কারণ : 

  1. জমিদারের অত্যাচার : সাঁওতাল বিদ্রোহের প্রধান কারণ বলা যায় জমিদারের অত্যাচারকে । এই জমিদারেরা সাঁওতালদের উপর চড়া হারে কর ধার্য করত । তা না দিতে পারলে তাদের জমি থেকে উৎখাত করত । 
  2. রাজস্ব আরোপ : এই উপজাতি সম্প্রদায়ের মানুষেরা বন – জঙ্গলের জমিকে চাষযোগ্য করে তুললেও তার উপর কোম্পানি ও সরকার নিযুক্ত জমিদাররা রাজস্ব চাপাত যা ছিল এই বিদ্রোহের অপর একটি কারণ । 
  3. মহাজনি প্রকোপ : জমিদারদের খাজনার হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্যই সাঁওতালরা চড়া হারে মহাজনের কাছ থেকে টাকা নিতে বাধ্য হতো । এই ঋণের দায়ে তাদের জমি , ফসল , গোরু – বাছুর , ঘর – বাড়ি , এমনকী মা – বোনেদের ইজ্জত পর্যন্ত হারাতে হতো । এটি ছিল বিদ্রোহের একটি কারণ । 
  4. কোম্পানির কর্মচারীদের অত্যাচার : কোম্পানির কর্মচারীরা সাঁওতালদের বেগার খাটাত । নানারকম উপঢৌকন দিতে বাধ্য করত ও হয়রানি করত । এই ক্রমাগত উৎপীড়ন তাদের বিদ্রোহী করে তোলে । 

মূল্যায়ন : উপরের আলোচনায় স্পষ্ট , সাঁওতাল বিদ্রোহ বাংলার কৃষক আন্দোলনে গুরুত্বপূর্ণ বিস্ফোরণ । এই বিদ্রোহ ব্যর্থ হলেও পরে স্বাধীনতা আন্দোলনের জমি তৈরির ক্ষেত্রে এর গুরুত্ব অসামান্য। 

  1. সন্ন্যাসী ও ফকির বিদ্রোহের চরিত্র বিশ্লেষণ করো । অথবা , সন্ন্যাসী ও ফকির বিদ্রোহের প্রকৃতি আলোচনা করো । 

Ans: সূচনা : ১৭৬৩-১৮০০ খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানিকে ব্যতিব্যস্ত করে রেখেছিল পূর্ববঙ্গের সন্ন্যাসী ও ফকির বিদ্রোহীরা । যদিও এই বিদ্রোহের প্রকৃতি নিয়ে ঐতিহাসিকদের মধ্যে বিতর্ক রয়েছে , যেমন — উইলিয়াম হান্টার , গ্রিকস প্রমুখ ইংরেজ ঐতিহাসিক সন্ন্যাসী ও ফকিরদের দস্যু বা ডাকাত বলে অভিহিত করেছেন । 

  1. কৃষক বিদ্রোহ : সন্ন্যাসী ও ফকির সম্প্রদায় ধর্মচর্চার সাথে যুক্ত থাকলেও কৃষিকাজই ছিল তাদের প্রধান জীবিকা । তাই উইলিয়াম হান্টার , এডওয়ার্ড ও গ্যারাট এই বিদ্রোহকে কৃষক বিদ্রোহ বলেছেন ৷ 
  2. স্বাধীনতা সংগ্রাম : কিছু ঐতিহাসিকের মতে , কোম্পানি বিরোধী এই বিদ্রোহ ছিল ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলন । লেস্টার হ্যাচিনসন মনে করেন যে বিদ্রোহীদের প্রধান লক্ষ্য ছিল বিদেশিদের হাত থেকে নিজ দেশ ও ধর্মকে রক্ষা করা । 
  3. দুর্বল বিদ্রোহ : কিছু ঐতিহাসিক এই বিদ্রোহকে দুর্বল কৃষক বিদ্রোহ বলেছেন । কারণ সন্ন্যাসী ও ফকিরদের সাথে সমাজের বৃহত্তর অংশের সাধারণ মানুষ এই বিদ্রোহে সামিল হয়নি । 
  4. ঔপনিবেশিক অরণ্য আইন কেন প্রনয়ন করা হয় ?

Ans: সূচনা : ভারতবর্ষে কোম্পানির শাসনকালে কৃষিজমির প্রসার , প্রচুর বনজ সম্পদ সংগ্রহ এবং রাজস্বখাতে আয় বৃদ্ধি — এই সকল কারণে অরণ্যে বসবাসকারী মানুষের সাথে শুরু হয় কোম্পানির ক্ষোভ – বিক্ষোভ । এর অবসানের জন্য প্রয়োজন ছিল ঔপনিবেশিক অরণ্য আইন । এই আইন প্রণয়ন হয়েছিল 1865 খ্রিস্টাব্দে । 

অরণ্য আইন প্রণয়নের কারণ : ভারতে ঔপনিবেশিক অরণ্য আইন প্রণয়নের কারণ ছিল- নৌবাহিনী তথা নৌশিল্পের জন্য প্রয়োজনীয় প্রচুর কাঠের জোগান ; কাগজশিল্পের জন্য প্রচুর কাঠ এবং ভারতে রেলপথ সম্প্রসারণের জন্য প্রচুর পরিমাণে কাঠের প্রয়োজন । তাই বনজ সম্পদের ওপর ব্রিটিশ সরকারের অধিকার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে প্রয়োজন ছিল অরণ্য আইনের । 

লর্ড ডালহৌসির উদ্যোগ : 1855 খ্রিস্টাব্দে ভারতের গভর্নর জেনারেল লর্ড ডালহৌসি ‘ ভারতীয় বনজ সম্পদের সনদ ‘ নামে একটি আইন পাশ করে ভারতীয় অরণ্যের ওপর সরকারের নিয়ন্ত্রণ জারি করেন । 

প্রথম ভারতীয় অরণ্য আইন : বনবিভাগের ইন্সপেক্টর জেনারেল ডায়াট্রিক ব্রান্ডিসের রিপোর্টের ভিত্তিতে সরকার 1865 খ্রিস্টাব্দে প্রথম ভারতীয় অরণ্য ‘ আইন পাশ করে । 

আইনের বিভিন্ন দিক : 1865 খ্রিস্টাব্দের অরণ্য আইন বাস্তবায়নের জন্য 1878 খ্রিস্টাব্দে ঘোষিত হয় দ্বিতীয় অরণ্য আইন । এই আইনের দু’টি দিক ছিল—

 ( ক ) সংরক্ষিত : এর দ্বারা বনজ সম্পদের ওপর পূর্ণ সরকারি নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠিত হয় ।

 ( খ ) সুরক্ষিত : এর দ্বারা আদিবাসীরা বন থেকে শুধু জ্বালানি সংগ্রহ ও বনে পশুচারণের অধিকার পায় । 

মূল্যায়ন : ঔপনিবেশিক শাসনকালে ভারতে অরণ্য আইন পাশ করে অরণ্য অঞ্চলগুলিতে ঔপনিবেশিক কর্তৃত্বকে আরও দৃঢ় করে তোলা হয় । তবে পরবর্তীতে এই অরণ্য আইনকে কেন্দ্র করেই উপজাতি ও জনজাতিরা বিদ্রোহী হয়ে ওঠে । 

রচনা ধর্মী প্রশ্নোত্তর | মাধ্যমিক ইতিহাস – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) প্রশ্ন ও উত্তর | Madhyamik History Question and Answer : 

  1. ব্রিটিশ শাসনকালে ভারতে সংঘটিত বিভিন্ন কৃষক ও আদিবাসী বিদ্রোহের কারণ কী ছিল ?

Ans: ব্রিটিশ শাসন প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর ভারতের আদিবাসী সম্প্রদায় ব্রিটিশ শোষণের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ আরম্ভ করে । যা পরবর্তীকালে সিপাহি বিদ্রোহের পথ প্রশস্থ করেছিল । এই বিদ্রোহগুলির প্রধান কারণগুলি হলো 

  1. খাজনা বৃদ্ধি : ব্রিটিশ শাসনকালে উচ্চহারে ভূমিরাজস্ব ধার্য হয়েছিল । এই উচ্চহারে ভূমিরাজস্বের বোঝা আদিবাসী কৃষকদের উপর চাপিয়ে দিলে তারা নিঃস্ব হয়ে যায় । 
  2. ঔপনিবেশিক আইন ও বিচার ব্যবস্থা : ভারতের এইসব প্রাচীন উপজাতি সমাজ নিজেদের আইন ও বিচার ব্যবস্থা দ্বারা চালিত হতো । কিন্তু ব্রিটিশ শাসনে তাদের আইনগুলিকে বাতিল করে তাদের উপর ব্রিটিশদের আইন চাপিয়ে দেওয়া হয় । এতে তারা ক্ষুদ্ধ হয়েছিল । 
  3. চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত : এইসময় চিরস্থায়ী বন্দোবস্ত প্রবর্তনের ফলে জমির মালিকানা কৃষকদের পরিবর্তে নতুন জমিদার শ্রেণির হাতে চলে যায় । 
  4. জমিদারদের অত্যাচার : উচ্চহারে কর আদায়ের জন্য জমিদার ও জমিদারের কর্মচারীরা আদিবাসীদের উপর প্রভূত পরিমাণে অত্যাচার চালাত । তাদের জমি থেকে উৎখাত করে দিত । 
  5. অনাহার : দারিদ্র্য ও অনাহার ছিল এদের নিত্যসঙ্গী । তার উপর ব্রিটিশ সরকার খাদ্যশস্যের পরিবর্তে জোরপূর্বক নীল , পাট , তুলো প্রভৃতি চাষ করাতে শুরু করে । ফলে আদিবাসীদের অবস্থা আরো সঙ্গীন হয় । 
  6. মহাজনি প্রথা : গ্রামে বহিরাগত মহাজনরা নানা অছিলায় আদিবাসীদের ঋণজালে জড়িয়ে ফেলে । একবার ঋণ নিলে সারা জীবন তার থেকে নিস্তার পাওয়া যেত না । 
  7. শিল্প ধ্বংস : ব্রিটেনের শিল্পবিপ্লবের উৎপাদিত পণ্য ভারতের বাজারে বিক্রি করার জন্য ব্রিটিশ সরকার ভারতের কুটির শিল্পকে ধ্বংস করে দেয় । তার ফলে শিল্পের কারিগররা বেকার হয়ে পড়ে । 
  8. নীলবিদ্রোহের কারণ ও বৈশিষ্ট্য আলোচনা করো । 

Ans: সূচনা : বাংলায় ১৯ শতকে সংঘটিত কৃষক বিদ্রোহের অন্যতম ছিল ১৪৫৯ খ্রিস্টাব্দের নীলবিদ্রোহ । এই বিদ্রোহে বাংলার সাধারণ কৃষকশ্রেণি স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করেছিল । এই বিদ্রোহের প্রধান কারণগুলি ছিল এইরকম 

  1. নীলচাষের পদ্ধতি : নীলকর সাহেবরা নিজেদের খাস জমিতে সস্তায় শ্রমিক এনে নীলচাষ করত যা এলাকা চাষ নামে পরিচিত । আবার কৃষকের নিজস্ব জমিতে অগ্রিম অর্থ ঋণ দিয়ে কৃষককে নীলচাষ করতে বাধ্য করত । এই দুই প্রকার পদ্ধতিতেই সম্পূর্ণভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হতো কৃষক সম্প্রদায় , যা নীলবিদ্রোহের প্রেক্ষাপট তৈরি করেছিল বলে মনে করা হয় । 
  2. দাদন প্রথা : নীলকর সাহেবরা কৃষকদের বিঘাপ্রতি ২ টাকা দাদন দিত যা কৃষকরা শোধ করলেও নীলকর সাহেবের খাতায় কৃষকদের ঋণ থেকেই যেত । এই ভয়ানক তুলেছিল । শোষিত প্ৰথা কৃষক সম্প্রদায়কে নীলকর সাহেবদের প্রতি দীর্ঘদিন ধরে ক্ষুদ্ধ করে 
  3. জমির মাপে কারচুপি : নীলকর সাহেবরা দাদনপ্রথা অনুযায়ী জমির মাপেও ব্যাপক কারচুপি চালাত । ফলে চাষিকে নীলচাষে নিজের প্রচুর জমি ব্যবহার করতে হতো । 
  4. নীলচাষে বাধ্য করা : ঋণগ্রস্ত কৃষকদের বর্বর ও নির্মম প্রকৃতির নীলকর সাহেবরা জোর করে ধান ও অন্যান্য শস্যের চাষ বন্ধ করে নীলচাষে বাধ্য করত । এর ফলে চাষিদের খাওয়ার জন্য ধান উৎপাদনও বন্ধ হয়ে যায় , যা নীলবিদ্রোহের অন্যতম কারণ । ফরিদপুরের ইংরেজ ম্যাজিস্ট্রেট নীল কমিশনে সাক্ষ্য দিতে গিয়ে বলেছিলেন— “ ইংল্যান্ডে নীলের যে সকল বাক্স পৌঁছায় তা বাংলার চাষির রক্তে রঞ্জিত । ” 
  5. ইংরেজ শাসকদের অবিচার : অত্যাচারিত কৃষকরা সামান্য বিচারের আশায় আদালতের দারস্থ হয়েও ন্যায়বিচার পেতেন না । কারণ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ও অন্যান্য শেতাঙ্গরা বিচারের ক্ষেত্রে স্বজাতীয় নীলকর সাহেবদের দিকেই পক্ষপাতিত্ব করতেন । 

নীলবিদ্রোহের বৈশিষ্ট্য : 

  1. সাম্প্রদায়িক ঐক্য ও সম্প্রীতি : এই বিদ্রোহে কোনো একটি বিশেষ ধর্ম সম্প্রদায় নয় , হিন্দু – মুসলিম নির্বিশেষে সমস্ত কৃষক নীলকরদের বিরুদ্ধে বিদ্রোহে সামিল হয় । 
  2. জমিদারদের অংশগ্রহণ : বাংলার কিছু জমিদার এই বিদ্রোহে কৃষকদের সাথে যোগদান করে নীলচাষের বিরোধিতা করেছিল । এদের মধ্যে রানাঘাটের শ্রীগোপাল পাল চৌধুরী , চণ্ডীপুরের শ্রীহরি রায় , নড়াইলের রামরতন রায় উল্লেখযোগ্য । 
  3. সংবাদপত্র ও মধ্যবিত্ত শ্রেণির ভূমিকা : কৃষকদের উপর নীলকর সাহেবদের অত্যাচারের বিরুদ্ধে যে সংবাদপত্রগুলি সোচ্চার হয়েছিল সেগুলির মধ্যে হিন্দু প্যাট্রিয়ট , গ্রামবার্ত্তা প্রকাশিকা , বামাবোধিনী পত্রিকা , সমাচার দর্পণ উল্লেখযোগ্য । এই সংবাদপত্রগুলির মাধ্যমে বাংলার শিক্ষিত মধ্যবিত্ত শ্রেণি নীলচাষিদের দুর্দশা সম্বন্ধে অবহিত হয়ে নীলবিদ্রোহকে সমর্থন করে। 

মন্তব্য : ঐতিহাসিক সতীশচন্দ্র মিত্র বলেছেন – “ এই বিদ্রোহ স্থানিক বা সাময়িক নয় , উহার নিমিত্ত যে কত গ্রাম্য বীর ও নেতাদের উদয় হইয়াছিল ইতিহাসের পাতায় তাহাদের নাম নাই । ”

 মাধ্যমিক ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর – West Bengal Madhyamik Class 10th History Question and Answer / Suggestion / Notes Book

আরোও দেখুন :-

মাধ্যমিক ইতিহাস সমস্ত অধ্যায়ের প্রশ্নউত্তর Click Here

 মাধ্যমিক সাজেশন ২০২২ – Madhyamik Suggestion 2022

আরোও দেখুন:-

Madhyamik Bengali Suggestion 2022 Click here

আরোও দেখুন:-

Madhyamik English Suggestion 2022 Click here

আরোও দেখুন:-

Madhyamik Geography Suggestion 2022 Click here

আরোও দেখুন:-

Madhyamik History Suggestion 2022 Click here

আরোও দেখুন:-

Madhyamik Mathematics Suggestion 2022 Click here

আরোও দেখুন:-

Madhyamik  Physical Science Suggestion 2022 Click here

আরোও দেখুন:-

Madhyamik Life Science Suggestion 2022 Click here

Info : Madhyamik History Suggestion  | West Bengal WBBSE Class Ten X (Class 10th) History Qustion and Answer Suggestion 

মাধ্যমিক ইতিহাস সাজেশন – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) প্রশ্ন ও উত্তর   

” মাধ্যমিক ইতিহাস –  প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) – প্রশ্ন উত্তর  “ একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ টপিক মাধ্যমিক পরীক্ষা (West Bengal Class Ten X  / WB Class 10  / WBBSE / Class 10  Exam / West Bengal Board of Secondary Education – WB Class 10 Exam / Class 10 Class 10th / WB Class 10 / Class 10 Pariksha  ) এখান থেকে প্রশ্ন অবশ্যম্ভাবী । সে কথা মাথায় রেখে Bhugol Shiksha .com এর পক্ষ থেকে মাধ্যমিক ইতিহাস পরীক্ষা প্রস্তুতিমূলক সাজেশন এবং প্রশ্ন ও উত্তর ( মাধ্যমিক ইতিহাস সাজেশন / মাধ্যমিক ইতিহাস প্রশ্ও উত্তর । Madhyamik History Suggestion / Madhyamik History Question and Answer / Class 10 History Suggestion / Class 10 Pariksha History Suggestion  / History Class 10 Exam Guide  / MCQ , Short , Descriptive  Type Question and Answer  / Madhyamik History Suggestion  FREE PDF Download) উপস্থাপনের প্রচেষ্টা করা হলাে। ছাত্রছাত্রী, পরীক্ষার্থীদের উপকারেলাগলে, আমাদের প্রয়াস মাধ্যমিক ইতিহাস পরীক্ষা প্রস্তুতিমূলক সাজেশন এবং প্রশ্ন ও উত্তর (Madhyamik History Suggestion / West Bengal Ten X Question and Answer, Suggestion / WBBSE Class 10th History Suggestion  / Madhyamik History Question and Answer  / Class 10 History Suggestion  / Class 10 Pariksha Suggestion  / Madhyamik History Exam Guide  / Madhyamik History Suggestion 2022, 2023, 2024, 2025, 2026, 2027, 2028, 2029, 2030, 2021, 2020, 2019, 2017, 2016, 2015 / Madhyamik History Suggestion  MCQ , Short , Descriptive  Type Question and Answer. / Madhyamik History Suggestion  FREE PDF Download) সফল হবে।

প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) প্রশ্ন ও উত্তর  

প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) – প্রশ্ন ও উত্তর | প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) Madhyamik History Question and Answer Suggestion  মাধ্যমিক ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর  – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) প্রশ্ন ও উত্তর।

প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) MCQ প্রশ্ন ও উত্তর | মাধ্যমিক ইতিহাস 

প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) MCQ প্রশ্ন ও উত্তর | প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) Madhyamik History Question and Answer Suggestion  মাধ্যমিক ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর  – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) MCQ প্রশ্ন উত্তর।

প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) SAQ সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন ও উত্তর | দশম শ্রেণির ইতিহাস 

প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) SAQ সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন ও উত্তর | প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) Madhyamik History Question and Answer Suggestion  মাধ্যমিক ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর  – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) SAQ সংক্ষিপ্ত প্রশ্ন উত্তর।

দশম শ্রেণি ইতিহাস  – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) MCQ প্রশ্ন উত্তর | Madhyamik History  

মাধ্যমিক ইতিহাস (Madhyamik History) – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) – প্রশ্ন ও উত্তর | প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) | Madhyamik History Suggestion  মাধ্যমিক ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর  – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) প্রশ্ন উত্তর।

মাধ্যমিক ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর  | দশম শ্রেণির ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর  – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) প্রশ্ন উত্তর | Madhyamik History Question and Answer Question and Answer, Suggestion 

মাধ্যমিক ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) | মাধ্যমিক ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) | পশ্চিমবঙ্গ মাধ্যমিক ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) | মাধ্যমিক ইতিহাস সহায়ক – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) – প্রশ্ন ও উত্তর । Madhyamik History Question and Answer, Suggestion | Madhyamik History Question and Answer Suggestion  | Madhyamik History Question and Answer Notes  | West Bengal Madhyamik Class 10th History Question and Answer Suggestion. 

মাধ্যমিক ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর   – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) MCQ প্রশ্ন উত্তর | WBBSE Class 10 History Question and Answer, Suggestion 

মাধ্যমিক ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর  – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) প্রশ্ন উত্তর প্রশ্ন ও উত্তর  | প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) । Madhyamik History Suggestion.

WBBSE Class 10th History Suggestion  | মাধ্যমিক ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর   – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়)

WBBSE Madhyamik History Suggestion মাধ্যমিক ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর  – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) প্রশ্ন উত্তর প্রশ্ন ও উত্তর  । প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) | Madhyamik History Suggestion  মাধ্যমিক ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) – প্রশ্ন উত্তর প্রশ্ন ও উত্তর ।

Madhyamik History Question and Answer Suggestions  | মাধ্যমিক ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) | মাধ্যমিক ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর 

Madhyamik History Question and Answer  মাধ্যমিক ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) মাধ্যমিক ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর  Madhyamik History Question and Answer মাধ্যমিক ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর  প্রশ্ন ও উত্তর – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) MCQ, সংক্ষিপ্ত, রোচনাধর্মী প্রশ্ন ও উত্তর  । 

WB Class 10 History Suggestion  | মাধ্যমিক ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর   – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) MCQ প্রশ্ন উত্তর প্রশ্ন ও উত্তর 

Madhyamik History Question and Answer Suggestion মাধ্যমিক ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) MCQ প্রশ্ন ও উত্তর । Madhyamik History Question and Answer Suggestion  মাধ্যমিক ইতিহাস প্রশ্ন ও উত্তর।

West Bengal Class 10  History Suggestion  Download WBBSE Class 10th History short question suggestion  . Madhyamik History Suggestion   download Class 10th Question Paper  History. WB Class 10  History suggestion and important question and answer. Class 10 Suggestion pdf.পশ্চিমবঙ্গ দশম শ্রেণীর ইতিহাস পরীক্ষার সম্ভাব্য সাজেশন ও শেষ মুহূর্তের প্রশ্ন ও উত্তর ডাউনলোড। মাধ্যমিক ইতিহাস পরীক্ষার জন্য সমস্ত রকম গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ও উত্তর।

Get the Madhyamik History Question and Answer Question and Answer by Bhugol Shiksha .com

Madhyamik History Question and Answer Question and Answer prepared by expert subject teachers. WB Class 10  History Suggestion with 100% Common in the Examination .

Class Ten X History Suggestion | West Bengal Board of Secondary Education (WBBSE) Class 10 Exam 

Madhyamik History Question and Answer, Suggestion Download PDF: West Bengal Board of Secondary Education (WBBSE) Class 10 Ten X History Suggestion  is provided here. Madhyamik History Question and Answer Suggestion Questions Answers PDF Download Link in Free has been given below. 

মাধ্যমিক ইতিহাস – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) প্রশ্ন ও উত্তর | Madhyamik History Question and Answer 

        অসংখ্য ধন্যবাদ সময় করে আমাদের এই ” মাধ্যমিক ইতিহাস – প্রতিরোধ ও বিদ্রোহ বৈশিষ্ট্য ও বিশ্লেষণ (তৃতীয় অধ্যায়) প্রশ্ন ও উত্তর | Madhyamik History Question and Answer  ” পােস্টটি পড়ার জন্য। এই ভাবেই Bhugol Shiksha ওয়েবসাইটের পাশে থাকো যেকোনো প্ৰশ্ন উত্তর জানতে এই ওয়েবসাইট টি ফলাে করো এবং নিজেকে  তথ্য সমৃদ্ধ করে তোলো , ধন্যবাদ।

Download Our Android App

Subscribe Our YouTube Channel

Join Our Telegram Channel