Andrew Symonds Biography in Bengali
Andrew Symonds Biography in Bengali

অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এর জীবনী

Andrew Symonds Biography in Bengali

অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এর জীবনী – Andrew Symonds Biography in Bengali : অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস ছিলেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। কুইন্সল্যান্ডের টাউনসভিলে 46 বছর বয়সে 14 মে 2022-এ একটি যানবাহন গাড়ি দুর্ঘটনায় সাইমন্ডস মারা যান। অ্যান্ড্রু অলরাউন্ডার হিসেবে পরিচিত ছিলেন।

  দুইবারের বিশ্বকাপজয়ী দল অস্ট্রেলিয়ার গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ছিলেন তিনি। সাইমন্ডস ছিলেন একজন ডানহাতি, মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান এবং বোলিং মিডিয়াম পেস এবং অফ-স্পিন এর মধ্যে বিকল্প।

 সীমিত ওভারের ক্রিকেটে অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার, অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস তার প্রাইম সময়ে যেকোনো বোলিং আক্রমণের জন্য দুঃস্বপ্ন ছিল। বলকে শক্তভাবে আঘাত করার ক্ষমতা এবং প্রায় এককভাবে জেতার খেলা তাকে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটের জন্য একটি উত্তেজনাপূর্ণ খেলোয়াড় করে তুলেছিল।

   অস্ট্রেলিয়ার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এর একটি সংক্ষিপ্ত জীবনী । অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এর জীবনী – Andrew Symonds Biography in Bengali বা অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এর আত্মজীবনী বা (Andrew Symonds Jivani Bangla. A short biography of Andrew Symonds. Andrew Symonds Birth, Place, Life Story, Life History, Biography in Bengali) অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এর জীবন রচনা সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস কে ছিলেন ? Who is Andrew Symonds ?

অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস ছিলেন ইংল্যান্ডের বার্মিংহামে জন্মগ্রহণকারী অস্ট্রেলিয়ার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের পক্ষে তিনি অল-রাউন্ডারের ভূমিকা পালন করেছেন। দুইবার ক্রিকেট বিশ্বকাপ জয়ী অস্ট্রেলিয়া দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ডানহাতি মধ্যমসারির ব্যাটসম্যান এবং মিডিয়াম পেস ও অফ-স্পিনে দক্ষতা প্রদর্শন করেন। এছাড়াও তিনি ফিল্ডিংয়েও সমান দক্ষ ছিলেন। রয় ডাকনামে তিনি পরিচিতি পেয়েছিলেন।

অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এর জীবনী – Andrew Symonds Biography in Bengali 

নাম (Name) অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস (Andrew Symonds)
জন্ম (Birthday) ৯ জুন ১৯৭৫ (9th June 1975)
জন্মস্থান (Birthplace) অস্ট্রেলিয়া
পেশা ক্রিকেটার
ভূমিকা অল-রাউন্ডার 
ডাকনাম রয়, সাইমো
মৃত্যু ১৪ মে ২০২২ (14th May 2022)

অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস প্রারম্ভিক জীবন – Andrew Symonds Early Life : 

অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস 9 জুন 1975 সালে যুক্তরাজ্যের বার্মিংহামে জন্মগ্রহণ করেন। অ্যান্ড্রু সাইমন্ডসের দত্তক পিতামাতা কেন এবং বারবারা তার দত্তক নেওয়ার পরপরই অস্ট্রেলিয়ায় চলে যান, যখন তিনি তিন মাস বয়সী ছিলেন।

  অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস তার শৈশবের প্রথম দিকে চার্টারস টাওয়ারস, নর্থ কুইন্সল্যান্ডে কাটিয়েছেন, যেখানে তার বাবা কেন, অল সোলস সেন্ট গ্যাব্রিয়েল স্কুলে প্রাইভেট পড়াতেন, যেখানে অ্যান্ড্রু যোগ দিয়েছিলেন।

 তার পরিবার পরে গোল্ড কোস্টে চলে যায়, যেখানে তার বাবা-মা মেরিম্যাকের অল সেন্টস অ্যাংলিকান স্কুলে স্টাফ ছিলেন।  অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস স্কুলের ছাত্র ছিলেন।

 সাইমন্ডস মূলত অস্ট্রেলিয়ার, কিন্তু শৈশব থেকে যৌবন পর্যন্ত বহু বছর ইংল্যান্ডে কাটিয়েছেন।  এখান থেকেই ক্রিকেট খেলা শুরু করেন।

 মিস্টার সাইমন্ডস 20 বছর বয়সে ইংল্যান্ডে গ্লুচেস্টারশায়ারের হয়ে খেলার সময় গ্ল্যামারগানের বিপক্ষে একটি ম্যাচে 16টি ছক্কা মেরেছিলেন। এরপর দ্বিতীয় ইনিংসে মারেন আরও চারটি ছক্কা।

 এটাই প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি ছক্কা মারার বিশ্ব রেকর্ড। 1995 সালে, 20 বছর বয়সে, অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস পাকিস্তান সফরে ইংল্যান্ড এ দলের অংশ হন। তবে সফরে না গিয়ে শুধু অস্ট্রেলিয়ার হয়েই খেলবেন বলে জানিয়েছেন তিনি। তাই তিনি ইংল্যান্ড ছেড়ে চলে যান।

অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এর বিবাহ জীবন – Andrew Symonds Marriage Life : 

অ্যাংলিকান স্কুল ছিল যেখানে সাইমন্ডস তার শৈশবের প্রিয়তমা ব্রুক মার্শালের সাথে দেখা করেছিলেন, যাকে তিনি 11 বছর পর 24 এপ্রিল 2004-এ ব্রিসবেনের সেন্ট জনস অ্যাংলিকান ক্যাথেড্রালে বিয়ে করেছিলেন। এক বছর পরে সেপ্টেম্বর 2005 এ দম্পতি বিচ্ছেদ ঘটে।

অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এর ক্রিকেট ক্যারিয়ার – Andrew Symonds Cricket Career : 

ওডিআই ক্যারিয়ারে, 2003 বিশ্বকাপ ছিল তার ক্যারিয়ারের হাইলাইট। তিনি টুর্নামেন্টের আগে সাইড ইনজুরিতে ভুগেছিলেন কিন্তু ফিট হয়েছিলেন এবং টুর্নামেন্টের অর্ধেক পথ দিয়ে দলের সাথে যোগ দেন।

 পাকিস্তানের বিপক্ষে 125 বলে অপরাজিত 143 রান করেন সাইমন্ডস। এই ইনিংসের পর তার ওয়ানডে ক্যারিয়ারও চড়াই-উতরাই পেরিয়ে যায়। এই ম্যাচের আগে, তিনি 23 গড়ে 762 রান করেছিলেন। কিন্তু এরপর তার গড় রানের গড় নেমে যায় ৪৩-এ।  তিনি 2003 এবং 2007 সালে বিশ্বকাপ জয়ী অস্ট্রেলিয়ান দলের একজন অংশ ছিলেন।

 মিস্টার সাইমন্ডস ২০০৪ সালে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে টেস্ট অভিষেক করেন। তবে শুরুতে কোনো সাফল্য না পাওয়ায় দুই টেস্টের পর দল থেকে বাদ পড়েন তিনি।

  কিন্তু দুই বছর পর আবার সুযোগ পেলেন। এই সময়ে অ্যাশেজ সিরিজ থেকে তার টেস্ট ক্যারিয়ার মোড় নেয়।  অ্যাশেজ সিরিজে প্রথম সেঞ্চুরি করেন অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস।  2007-08 মৌসুম ছিল টেস্টে তার সেরা।

 শ্রীলঙ্কা, ভারত ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে নয়টি টেস্টে অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস ৭৭৭ রান করেন। এই সময়ে সিডনিতে ভারতের বিপক্ষে ১৬২ রানের ইনিংসটি ছিল সবচেয়ে বড়। এ সময় মাঙ্কি গেট নিয়ে হরভজন সিংয়ের সঙ্গে বিবাদ হয়।

অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এর রেকর্ড – Andrew Symonds Records : 

অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস প্রথম-শ্রেণীর ইনিংসে সর্বাধিক ছক্কার বিশ্ব রেকর্ড গড়েছেন কারণ তিনি উভয় ইনিংসে মোট 20টি ছক্কার জন্য 16টি ছক্কা মেরেছিলেন। গ্লোচেস্টারশায়ারের হয়ে খেলার সময় গ্ল্যামারগানের বিপক্ষে তার প্রথম ইনিংসের স্কোর ছিল অপরাজিত 254।

অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এর বিতর্ক – Andrew Symonds Controversy : 

অ্যান্ড্রুর অভিযোগ, ২০০৮ সালে সিডনি টেস্টের সময় ভারতের হরভজন সিং বর্ণবাদী মন্তব্য করেছিলেন। তিনি অভিযোগ করেছেন যে মাঠের ঝগড়ার সময় ভাজ্জি তাকে বানর বলে ডেকেছিলেন। ভারতীয় এই স্পিনার স্পষ্টতই অস্বীকার করেছেন। বিষয়টি জানাজানি হলে প্রথমে নিষিদ্ধ হন হরভজন। কিন্তু বিচারকের সামনে শুনানির সময় তিনি তার ব্যাখ্যায় বলেন, তিনি বানর বলেননি।

 অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস উল্লেখ করেছেন যে এই পাঞ্জাবি শব্দটি ভুল বোঝাবুঝির কারণ ছিল। বিষয়টি নিয়ে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড ও অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে ঝগড়া হয়। পরে হরভজন ক্লিন চিট পান এবং সফর শেষ হয়।

 এরপর আরও বিতর্কে পড়ে যান অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস। একবার তিনি টিম মিটিংয়ে না গিয়ে মাছ ধরতে গিয়েছিলেন। এর পরে একটি পাবটিতে তাদের মধ্যে মারামারি হয়।

অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এর মৃত্যু – Andrew Symonds Death : 

ক্রিকেট বিশ্বে আবারও শোকের ছায়া। অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অলরাউন্ডার ও অভিজ্ঞ ক্রিকেটার অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস মারা গেছেন। সংস্থার মতে, শনিবার রাত ১০.৩০ মিনিটে টাউনসভিলে একটি গাড়ি দুর্ঘটনায় তার মৃত্যু হয়।  কুইন্সল্যান্ড পুলিশ জানিয়েছে যে শহর থেকে প্রায় 50 কিলোমিটার পশ্চিমে হার্ভে রেঞ্জের রাস্তায় একটি দ্রুতগামী গাড়ি উল্টে যায়। অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এই গাড়িতে ছিলেন।

 ৪৬ বছর বয়সী অ্যান্ড্রু সাইমন্ডসের মৃত্যুর পর তার ভক্তরা হতাশায় ভুগছেন। একইসঙ্গে অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন উইকেটরক্ষক অ্যাডাম গিলক্রিস্ট একটি টুইটের মাধ্যমে নিজের দুঃখ শেয়ার করেছেন। তিনি বলেন, এটা খুবই বেদনাদায়ক।

 অস্ট্রেলিয়ার ক্রীড়া জগতের জন্য এই বছরটি ছিল দুঃখজনক। অস্ট্রেলিয়ার খেলোয়াড় রড মার্শ এবং শেন ওয়ার্নও একই বছরে মারা যান। একই সঙ্গে অ্যান্ড্রুর মৃত্যুর পর ভক্তদের হৃদয় ভেঙে পড়েছে।

অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এর জীবনী – Andrew Symonds Biography in Bengali FAQ : 

  1. অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস কে ?

Ans: অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস একজন ক্রিকেটার ।

  1. অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এর জন্ম কোথায় হয় ?

Ans: অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এর জন্ম হয় অস্ট্রেলিয়াতে ।

  1. অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এর জন্ম কবে হয় ?

Ans: অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এর জন্ম হয় ৯ জুন ১৯৭৫ সালে ।

  1. অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এর মাঠে ভূমিকা কী ?

Ans: অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এর মাঠে ভূমিকা অল-রাউন্ডার ।

  1. অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এর ব্যাটিংয়ের ধরন কী ?

Ans: অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এর ব্যাটিংয়ের ধরন ডানহাতি ।

  1. অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এর মৃত্যু কবে হয় ?

Ans: অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এর মৃত্যু হয় ১৪ মে ২০২২ সালে ।

অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এর জীবনী – Andrew Symonds Biography in Bengali

   অসংখ্য ধন্যবাদ সময় করে আমাদের এই ” অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এর জীবনী – Andrew Symonds Biography in Bengali  ” পােস্টটি পড়ার জন্য। অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এর জীবনী – Andrew Symonds Biography in Bengali পড়ে কেমন লাগলো কমেন্টে জানাও। আশা করি এই অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস এর জীবনী – Andrew Symonds Biography in Bengali পোস্টটি থেকে উপকৃত হবে। এই ভাবেই BhugolShiksha.com ওয়েবসাইটের পাশে থাকো যেকোনো প্ৰশ্ন উত্তর জানতে এই ওয়েবসাইট টি ফলাে করো এবং নিজেকে  তথ্য সমৃদ্ধ করে তোলো , ধন্যবাদ।

Download Our Android App

Subscribe Our YouTube Channel

Join Our Telegram Channel