জলবায়ু (ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল - ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Climate (Regional Geography of India) Geography
জলবায়ু (ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল - ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Climate (Regional Geography of India) Geography

ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – ভূগোল প্রশ্ন ও উত্তর

জলবায়ু | Climate – Regional Geography of India (Geography) Question and Answer in Bengali

জলবায়ু (ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Climate (Regional Geography of India – Geography) : ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – Regional Geography of India (ভূগোল – Geography) জলবায়ু – Climate প্রশ্ন Oও উত্তর  নিচে দেওয়া হল। এই (জলবায়ু – Climate – ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল Regional Geography of India – ভূগোল Geography) প্রশ্নোত্তর গুলি স্কুল, কলেজ ও বিভিন্ন প্রতিযোগিতা মূলক পরীক্ষার জন্য খুব ইম্পর্টেন্ট। তোমরা যারা জলবায়ু – Climate – ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – Regional Geography of India (ভূগোল – Geography) অতিসংক্ষিপ্ত প্রশ্ন ও উত্তর (Short Question and Answer) খুঁজে চলেছো, তারা নিচে দেওয়া প্রশ্নউত্তর ভালো করে পড়তে পারো।

জলবায়ু (Climate) ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – ভূগোল প্রশ্ন ও উত্তর

1. অম্ল বৃষ্টি ( MANGO HOWER ) কী ? 

Ans: সংজ্ঞা দক্ষিণ ভারতে মার্চ – মে মাসের এক বিশেষ ঝড় – বৃষ্টিকে আজ বৃষ্টি বলে ।

নামকরণ : এই বৃষ্টিতে আম চাষের খুব উপকার হয় । যেমন- ( i ) ঝরে পড়া থেকে রক্ষা পায় । ( ii ) ফলন বেশি হয় । ( iii ) আম বেশি পুষ্ট হয় । এই কারণে একে আজ বৃষ্টি বলে । সৃষ্টি : মার্চ – এপ্রিলে ভারতের বিভিন্ন স্থানে প্রচন্ড উত্তাপে সৃষ্ট নিম্নচাপের দিকে দক্ষিণ থেকে প্রবল বেগে উচ্চচাপের বায়ু ছুটে এলে ঝড় – বৃষ্টির সূচনা হয় ।

বৈশিষ্ট্য : i ) ইহা এক গ্রীষ্মকালীন বৃষ্টিপাত । ii ) ঝড়ের সাথে বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি হয় ( 20-25 সেমি ) ।

2. ভারতে পার্বত্য জলবায়ুর বৈশিষ্ট্য লেখো । 

Ans: হিমালয়সহ ভারতের পার্বত্য জলবায়ুর বৈশিষ্ট্যে বৈচিত্র্য দেখা যায় । যেমন i ) উত্তর ( কম ) ও দক্ষিণ ( বেশি ) ঢালে উয়তার বিরাট পার্থক্য দেখা যায় । ii ) দিন ( বেশি ) ও রাতের ( কম ) উন্নতার অধিক পার্থক্য থাকে । iii ) বৃষ্টিপাতের অসম বন্টন । iv ) উচ্চ স্থানে সারা বছর ( দার্জিলিং ) শৈত্যভাব বজায় থাকে । অধিক উচ্চতায় জলবায়ু তুন্দ্রা প্রকৃতির হয় আবার নিম্নাংশে ক্রান্তীয় প্রকৃতির ।

3. ভারতের জলবায়ুতে মৌসুমী বায়ুর প্রভাব লেখো । 

Ans: ভারতের জলবায়ু ও বৃষ্টিপাতের উপর মৌসুমী বায়ুর বিরাট প্রভাব আছে বলে ভারতকে ‘ বোঁদায় মতে মৌসুমী বায়ুর দান বলা হয় । এই প্রভাবগুলো হল নিম্নরূপ :

  • বৃষ্টিপাত : এই বায়ুর প্রভাবেই ভারতে [ 100-250C.M . ) অধিকাংশ বৃষ্টিপাত ।
  • পৃথক ঋতু উদ্ভব : দক্ষিণ – পশ্চিম ও উত্তর – পূর্ব মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে ভারতে দুই বিপরীতমুখী ঋতু আর্দ্র গ্রীষ্মকাল ও শুষ্ক শীতকাল সৃষ্টি হয়েছে ।
  • ঘূর্ণিঝড় সৃষ্টি : আগস্ট – সেপ্টেম্বরে নিম্নচাপজনিত গোলযোগে উপকূল অঞ্চলে পূর্ণিঝড় ( সাইক্লোন , আশ্বিনের ঝড় ) সৃষ্টি হয় ।
  • উপকূলে দু’বার বৃষ্টি : অক্টোবর – নভেম্বরে প্রত্যাবর্তনকারী মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে করমণ্ডল উপকূলে ঘূর্ণিঝড় ও শীতকালেও বৃষ্টিপাত হয়ে থাকে ।
  •  উষ্ণতা হ্রাস : মৌসুমী বায়ুর আগমনের সাথে সাথে সারা ভারতে প্রচণ্ড উন্নতার হ্রাস ঘটতে থাকে ।
  1. ভারতের জলবায়ুতে হিমালয় পর্বতের প্রভাব লেখো ।

Ans: সমগ্র উত্তর ভারত জুড়ে অবস্থানকারী হিমালয় পর্বত ভারতের জলবায়ুকে যথেষ্টই প্রভাবিত করে ।

যেমন – 1 . শীতের প্রকোপ কম : মধ্য এশিয়া থেকে আগত প্রবল শীতযুক্ত বাতাস ভারতে প্রবেশে বাধ দেয় ।

2 . বৃষ্টিপাতের কারণ : দক্ষিণ – পশ্চিম মৌসুমী বায়ুর অবাধ গতিতে বাধা দিয়ে সমগ্র ভারতে বৃষ্টিপাত ঘটাতে সাহায্য করে ।

3 . উষ্ণতার সমতা : ভারত উয় মৌসুমীর দেশ হলেও উচ্চতার কারণে অনেক স্থানে শীতযুক্ত জলবায়ুর সৃষ্টি করেছে ( সিমলা , দার্জিলিং ) ।

5. N.L.M. বলতে কী বোঝ ? 

Ans: N.L.M. এর সম্পূর্ণ নাম হল Normal Limit of Monsoon , যার প্রভাবে ভারতে বৃষ্টিপাত ঘটে থাকে । সাধারণত আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে 20 May , কেরল 29 May , কলকাতা 10 ই জুন ও দিল্লীতে । লা জুলাই বর্ষা আরম্ভ হয় এবং 15 ই জুলাই এর মধ্যে ভারতের সর্বত্র বর্ষা নেমে যায় । একেই Limit of Monsoon বলে ।

মেমরী গ্লাস : Golden Triangle হল পুরী , কোনারক , ভুবনেশ্বর ।

6 . ভারতে শীতকাল শুষ্ক প্রকৃতির কেনো । 

Ans: ডিসেম্বর – জানুয়ারি ভারতে শীতকাল ; উয়তা কম [ 5-15 ° C ] ; বৃষ্টিহীন শুষ্ক অবস্থার সৃষ্টি হয় । কারণ : –

1 . উচ্চচাপ সৃষ্টি : এ সময় উত্তর ভারত জুড়ে উচ্চচাপ সৃষ্টি হয় ; দক্ষিণ ভারত ও সমুদ্রভাগে সৃষ্ট নিম্নচাপের দিকে প্রবাহিত উচ্চচাপের বায়ুতে ( উত্তর – পূর্ব মৌসুমী ) জলীয়বাষ্প থাকে ন বলে বৃষ্টিপাত হয় না ।

2 . চাপবলয়ের স্থান পরিবর্তন : এই সময় দক্ষিণায়নের কারণে স্থায়ী চাপবলয়গুলো দক্ষিণে সরে যাওয়ায় কর্কটীয় উচ্চচাপ বলয়টিও ভারতে বেশি প্রসারিত হওয়ায় শুষ্ক জলবায়ু সৃষ্টি কারণ হয় ।

3 . শুষ্ক আয়ন বায়ুর প্রভাব : এই সময় উত্তর – পূর্ব শুষ্ক আয়ন বায়ুর কবলে কিছুটা প্রভাবিত হওয়ার ফলে বৃষ্টিহীনতার কারণ হয় ।

7. ভারতের জলবায়ু অঞ্চল কী লেখো । 

Ans: প্রখ্যাত জলবায়ুবিদ কোপেন ( KOPPEN ) – এর মত অনুসরণ করে টিওয়ার্থা ভারতকে আটটি ‘ জলবায়ু অঞ্চলে ভাগ করেছেন । যথা –

i ) ক্রান্তীয় অতি আৰ্দ্ৰ মৌসুমী অঞ্চল : 300 সেমির বেশি বৃষ্টিযুক্ত ও 18 ° -27 ° C উষ্ণতা ; কেরালা , কর্ণাটক উপকূল ও উত্তর – পূর্ব ভারত ।

ii ) ক্রান্তীয় সাভানা : শুষ্ক শীতকাল ও উয় গ্রীষ্মকাল , গুজরাট , মহারাষ্ট্র , ছত্তিশগড় এই জলবায়ুর অন্তর্গত । iii ) ক্রান্তীয় শুদ্ধ গ্রীষ্ম ও শীতকালীন বৃষ্টিপাত অঞ্চল : পূর্ব উপকূল এই জলবায়ুর অন্তর্গত । ( iv ) ক্রান্তীয় মরুপ্রায় ও উপক্রান্তীয় স্তেপ অঞ্চল : রাজস্থানের পূর্ব ও পশ্চিমঘাটের বৃষ্টিচ্ছায় অঞ্চল । v ) নাতিশীতোয় স্বল্প গ্রীষ্ম ও শীতল আর্দ্র অঞ্চল : পূর্ব আসাম ও অরুণাচল প্রদেশ । vi ) আর্দ্র উপক্রান্তীয় মৌসুমী অঞ্চল : উত্তর ভারতের সমভূমি । vii ) উয় মরু অঞ্চল পশ্চিম রাজস্থান । viii ) শীতল পার্বত্য অঞ্চল পশ্চিম হিমালয়ের উচ্চ অংশ ।

8. ভারতের পশ্চিমী ঝঞ্ঝার প্রকৃতি ও প্রভাব লেখো । 

Ans: সংজ্ঞা : নভেম্বর – ডিসেম্বর মাসে উত্তর – পশ্চিম অংশে সৃষ্ট উচ্চচাপে উত্তর পূর্ব মৌসুমী বায়ু সক্রিয় হয় , এ সময় ভূ – মধ্যসাগর থেকে আগত ঘূর্ণাবর্তের ফলে ভারতে সামান্য বৃষ্টি হয় । একে পশ্চিমী ঝামেলা বা Western distarbances বলে ।

প্রকৃতি : ( ক ) ডিসেম্বর – ফেব্রুয়ারী মাসে উত্তর – পশ্চিমের দক্ষিণাবায়ু প্রভাবিত হয় । ( খ ) এই বায়ু শীতল হয় । ( গ ) এই বায়ু আৰ্দ্ৰ , ঝড় ও ঝঞ্ঝাপূর্ণ হয় ।

প্রভাব : ( ক ) উত্তর – পশ্চিম ভারতে শীতকালে বৃষ্টিপাত হয় ( 40-50 ) সেমি । ( খ ) গম , সরিষা ও শাক – সব্জি প্রভৃতি রবি শষ্য চাষের সুবিধা হয় । ( গ ) উত্তর ভারতে এর প্রভাবে শৈত্য প্রবাহ ঘটে । ( ঘ ) রবি ফসলের সুবিধা বলে একে There are not rains but grains বলে ।

9. ভারতের জলবায়ুর বৈশিষ্ট্য লেখো । 

Ans: i ) ভারতের জলবায়ু ক্রান্তীয় মৌসুমী প্রকৃতির । ii ) ভারতে গ্রীষ্মকালে দক্ষিণ – পশ্চিম ও শীতকালে উত্তর – পূর্ব দিকে মৌসুমী বায়ু প্রবাহিত হয় । iii ) ভারতে বৃষ্টিপাতের সময় ও পরিমাণ অনিশ্চিত । iv ) গ্রীষ্মকাল আর্দ্র ও শীতকাল শুষ্ক । v ) শীতকালে ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চল থেকে পশ্চিমাবায়ুর প্রভাবে ভারতের উত্তর – পশ্চিম অংশে সামান্য বৃষ্টিপাত হয় । vi ) ভারতের বৃষ্টিপাত সর্বত্র সমান হয় না । vii ) শীতকালে পার্বত্য অঞ্চলে তুষারঝড় হয় । viii ) মৌসুমী বায়ুর চরম অনিশ্চয়তায় ভারতে খরা ও বন্যার সৃষ্টি হয় ।

মেমরী গ্লাস । ‘ মৌসুমী ‘ কথাটি প্রথম ব্যবহার করেন মিশরের নাবিক হিপলাস ( HIPLAS ) 76 ) খ্রিস্টাব্দে ।

10. ভারতের বন্যাপ্রবণ অঞ্চল কী ? 

Ans: ভারতে প্রতিবছরই কম – বেশি বন্যা দেখা যায় । ভারতের বন্যাপ্রবণ এলাকাগুলি হল A ) উত্তরবঙ্গ : তিস্তা , মহানন্দা নদী সংলগ্ন এলাকা । B ) দক্ষিণ ভারত : তামিলনাড়ু ও অন্ধ্রপ্রদেশ রাজ্য । C ) পশ্চিম ভারত গুজরটি ও মহারাষ্ট্র রাজ্য । D ) পূর্ব ভারত বিহারের শোন নদী সংলগ্ন অঞ্চল ।

11. ভারতের বন্যা বৃষ্টির কারণ কী ? 

Ans: ভারতে প্রতি বছরই বন্যা সৃষ্টি হয় । এর কারণগুলি হ’ল A ) অতিবৃষ্টি : একটানা অতিরিক্ত বৃষ্টি হলে নদীগুলিতে বহনক্ষমতা অধিক হয়ে বন্যা সৃষ্টি করে । ( B ) নদী বহনক্ষমতা নদীর বহনক্ষমতা কমে ও বন্যার সৃষ্টি করে ( যেমন- 2006 কংসাবতীতে বন্যা ) । C ) ভূমিক্ষয় : বনভূমি ধ্বংসের ফলে ভূমিক্ষয় বৃদ্ধি পাওয়ায় নদী অগভীর হয়ে বন্যার প্রকোপ বৃদ্ধি পায় । D ) অবৈজ্ঞানিক জলনিকাশী ব্যবস্থা যত্রতত্র বসতবাড়ি তৈরি হওয়ায় নিকাশী ব্যবস্থা ঠিকমতো না থাকায় বন্যা হয় । এছাড়াও বর্ষাকালে নদীতে অতিরিক্ত জল হলে বন্যা সৃষ্টি হয় ( যেমন- 2008 সালের জুন মাসে পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুরের ভয়ঙ্কর বন্যা ) ।

12. ভারতে খরা সৃষ্টির কারণ কী ? 

Ans: স্বাভাবিকের তুলনায় কম অথবা বৃষ্টিহীন অবস্থাকে বলা হয় খরা । ভারতে খরা সৃষ্টির কারণগুলি –

A ) মৌসুমী বায়ুর অনিশ্চয়তা : ভারত মৌসুমী জলবায়ুর অন্তর্গত হওয়ায় বৃষ্টির অনিশ্চয়তা থেকেই যায় , যার ফলে খরা দেখা যায় । B ) বনভূমি ধ্বংস : জনসংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ার জন্য বনভূমি কেটে নতুন বসতি গড়ে তোলায় ভারতে দিনে দিনে খরার প্রবণতা বৃদ্ধি পাচ্ছে । C ) ভৌমজলের অবাধ ব্যবহার : কৃষিকাজ ও দৈনন্দিন চাহিদার জন্য ভৌমজলের অধিক ব্যবহার খরা সৃষ্টির কারণ । এছাড়াও স্বাভাবিক সময়ের থেকে দেরীতে বর্ষা , স্বাভাবিক সময়ের আগে মৌসুমী বায়ুপ্রবাহ বন্ধ হলে , পরিবেশ দূষণে মৌসুমীবায়ু ঘনীভূত হতে না পারলেও ভারতে খরা সৃষ্টি হয় ।

13. ভারতের জলবায়ুতে গ্লোবাল ওয়ার্মিং – এর প্রভাবগুলি লেখো । 

Ans: পৃথিবীর ক্রমবর্ধমান উন্নতাকে বিজ্ঞানীরা নাম দিয়েছেন Global Worming । এই Global Worming- এর সর্বাপেক্ষা ক্ষতিকর প্রভাব দেখা যায় জলবায়ুর মধ্যে । ভারতের জলবায়ুতে এর প্রভাব হ’ল i ) ভারত মৌসুমী জলবায়ু অধীন হওয়ায় ঋতুভিত্তিক বৃষ্টিপাত একটি প্রধান বৈশিষ্ট্য । কিন্তু উন্নতা ক্রমাগত বৃদ্ধি পাওয়ার ফলে বৃষ্টিপাতের অনিশ্চয়তা ও নানা পরিবর্তন লক্ষ্য করা যাচ্ছে । ii) গ্লোবাল ওয়ার্মিং – এর জন্য খরাপ্রবণ এলাকাগুলিতে খরার প্রবণতা আরো বৃদ্ধি পাচ্ছে । iii ) সর্বোপরি উষ্ণতা বৃদ্ধির জন্য কৃষিফসল উৎপাদনের ক্ষেত্রেও সমস্যা হচ্ছে ।

মেমরী প্লাস : ভারত ও চীনে খরা ও মরুভূমির প্রসার বৃদ্ধির কারণ সম্পর্কে সমীক্ষা করে জাপান । জাপান রিও – ডি – জেনিরোর বসুন্ধরা বৈঠকের অ্যাজেণ্ডা 21 – এর নিয়মে ভারত ও চীনে এই সমীক্ষা করে ; জাপান সরজমিনে তিন বছর ধরে এক সমীক্ষা করে । 21 অ্যাজেন্ডায় খরা ও মরুভূমির প্রসার যাতে না ঘটে তার জন্য বিভিন্ন ব্যবস্থা গ্রহণেরও সুপারিশ করা হয় । যেমন- মরুভূমির প্রান্তে সারি সারি বাবলা জাতীয় বৃক্ষরোপণ , প্লাস্টিকজাতীয় তৈলাক্ত পদার্থ ছড়িয়ে মরুভূমিতে বালি উড়ে যাওয়া বন্ধ করা প্রভৃতি ।

FILE INFO : জলবায়ু – Climate | ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – ভূগোল প্রশ্নোত্তর (Regional Geography of India – Geography)

File Details:

PDF Name : জলবায়ু – Climate | ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – ভূগোল প্রশ্নোত্তর (Regional Geography of India – Geography)

Price : FREE

Download Link : Click Here To Download

INFO : Geography – Regional Geography of India – Question and Answer | ভূগোল – ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – জলবায়ু (Climate) প্রশ্নোত্তর

” ভূগোল (Geography) – ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল (Regional Geography of India) – জলবায়ু – Climate “ একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ টপিক বিভিন্ন শ্রেনীর পরীক্ষা (Class 5, 6, 7, 8, 9,  Madhyamik, Class 11, Higher Secondary – HS, College & University Exam) এবং বিভিন্ন চাকরির (WBCS, WBSSC) পরীক্ষায় এখান থেকে প্রশ্ন অবশ্যম্ভাবী । সে কথা মাথায় রেখে BhugolShiksha.com এর পক্ষ থেকে ভূগোল পরীক্ষা প্রস্তুতিমূলক প্রশ্নো ও উত্তর উপস্থাপনের প্রচেষ্টা করা হলাে। ছাত্রছাত্রী, পরীক্ষার্থীদের উপকারে লাগলে, আমাদের প্রয়াস  ভূগোল (Geography) ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল (Regional Geography of India) – জলবায়ু – Climate / জলবায়ু সংক্ষিপ্ত ছোট প্রশ্ন ও উত্তর / জলবায়ু (ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Climate (Regional Geography of India – Geography)  SAQ / Short Question and Answer / জলবায়ু (ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Climate (Regional Geography of India – Geography) Quiz / জলবায়ু (ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Climate (Regional Geography of India – Geography) QNA / জলবায়ু (ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Climate (Regional Geography of India – Geography) Question and Answer FREE PDF Download ) পরীক্ষা প্রস্তুতিমূলক প্রশ্নোত্তর সফল হবে।

জলবায়ু (ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Climate (Regional Geography of India – Geography) Question and Answer in Bengali

স্কুল, কলেজ ও বিভিন্ন ছাত্রছাত্রীদের পড়াশোনার ডিজিটাল মাধ্যম BhugolShiksha.com । এর প্রধান উদ্দেশ্য পঞ্চম শ্রেণী থেকে নবম শ্রেণী, মাধ্যমিকউচ্চ মাধ্যমিক সমস্ত বিষয় এবং গ্রাজুয়েশনের শুধুমাত্র ভূগোল বিষয়কে  সহজ বাংলা ভাষায় আলোচনার মাধ্যমে ছাত্রছাত্রীদের কাছে সহজ করে তোলা।

জলবায়ু (ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Climate (Regional Geography of India – Geography)

আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ সময় করে আমাদের এই ” জলবায়ু (ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Climate (Regional Geography of India – Geography) ” পােস্টটি পড়ার জন্য। এই ভাবেই আমাদের ভূগোল শিক্ষা – Bhugol Shiksha – BhugolShiksha.com ওয়েবসাইটের পাশে থাকুন। ভূগোল বিষয়ে যেকোনো প্ৰশ্ন উত্তর জানতে এই ওয়েবসাইটটি ফলাে করুন এবং নিজেকে ভৌগোলিক  তথ্য সমৃদ্ধ করে তুলুন , ধন্যবাদ।

Subscribe Our YouTube Channel

Join Our Telegram Channel

E-mail Subscription