শিল্প (ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল - ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Industry (Regional Geography of India) Geography
শিল্প (ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল - ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Industry (Regional Geography of India) Geography

ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – ভূগোল প্রশ্ন ও উত্তর

শিল্প | Industry – Regional Geography of India (Geography) Question and Answer in Bengali

শিল্প (ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Industry (Regional Geography of India – Geography) : ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – Regional Geography of India (ভূগোল – Geography) শিল্প – Industry প্রশ্ন Oও উত্তর  নিচে দেওয়া হল। এই (শিল্প – Industry – ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল Regional Geography of India – ভূগোল Geography) প্রশ্নোত্তর গুলি স্কুল, কলেজ ও বিভিন্ন প্রতিযোগিতা মূলক পরীক্ষার জন্য খুব ইম্পর্টেন্ট। তোমরা যারা শিল্প – Industry – ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – Regional Geography of India (ভূগোল – Geography) অতিসংক্ষিপ্ত প্রশ্ন ও উত্তর (Short Question and Answer) খুঁজে চলেছো, তারা নিচে দেওয়া প্রশ্নউত্তর ভালো করে পড়তে পারো।

শিল্প (Industry) ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – ভূগোল প্রশ্ন ও উত্তর

1. পশ্চিমবঙ্গের শিল্প বিকাশ লেখো । 

Ans: ভারতের এক শিল্পোন্নত রাজ্য পশ্চিমবঙ্গ । এ রাজ্যের শিল্পাঞ্চলগুলো হল ( i ) হুগলী শিল্পাঞ্চল ; ( ii ) দুর্গাপুর – বার্ণপুর শিল্পাঞ্চল ; ( iii ) আসানসোল – কুলটি – চিত্তরঞ্জন শিল্পাঞ্চল ; ( iv ) হলদিয়া শিল্পকেন্দ্র ও খড়গপুর ; ( v ) শিলিগুড়ি শিল্পকেন্দ্র ।

শিল্পোন্নতির কারণ : ( i ) কয়লাসহ বিভিন্ন খনিজ সম্পদের প্রাচুর্য । ( ii ) বর্ধমান , হুগলী , হাওড়া , বীরভূম , মুর্শিদাবাদ , মালদাহ সহ সর্বত্র প্রচুর কৃষিজ ফসলের প্রাচুর্য । ( iii ) খড়গপুর , শিবপুর , যাদবপুর শিক্ষাকেন্দ্র থেকে কারিগরী ও নিপুণ শ্রমিক প্রাপ্তি । ( iv ) জনবহুল আভ্যন্তরীণ বাজার ও আন্তর্জাতিক বাজারের চাহিদা । ( v ) ব্যাঙ্ক , বীমা , অনাবাসী বাঙালি ও পশ্চিমবঙ্গ শিল্প উন্নয়ন নিগমের প্রচুর মূলধন বিনিয়োগ । এছাড়া শ্রমিক প্রাপ্তি , পর্যাপ্ত বিদ্যুৎ , রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা শিল্পবিকাশে সাহায্য করেছে । বর্তমানে নয়া শিল্পনীতির ফলে আরও নতুন নতুন শিল্প ও শিল্পাঞ্চল স্থাপিত হচ্ছে ।

2. ভারতে পেট্রোরসায়ন কী ? 

Ans: পেট্রোরসায়ন শিল্পে ভারত এক উল্লেখযোগ্য দেশ । প্রতি বছর প্রায় 90 লক্ষ মেট্রিক টন পেট্রোরসায়নজাত দ্রব্য উৎপন্ন হয় । প্রধান শিল্পকেন্দ্রগুলো হল

i ) IPCL- এর অধীন — গুজরাটের ভদোদরা , মহারাষ্ট্রের রোজা প্রভৃতি ।

ii ) SPICL- এর অধীন— তুতিকোরিন ।

iii ) BRPL- এর অধীন — বঙ্গাইগাঁও ।

iv ) RPL- এর অধীন — গুজরাটের জামনগর ( ভারতের বৃহত্তম ) । v ) MRPL- এর অধীন— ব্যাঙ্গালোর ।

vi ) HPCL , টাটা , WBIDC প্রভৃতির যৌথ উদ্যোগে পশ্চিমবঙ্গের হলদিয়া ।

3. বর্ধমান ভারতে লৌহ ইস্পাত শিল্পকেন্দ্র কী ? 

Ans: A ) বৃহৎ লৌহ – ইস্পাত কারখানা : ( i ) ঝাড়খণ্ডের জামসেদপুর , বোকারো ; ( ii ) পশ্চিমবঙ্গের বার্ণপুর , কুলটি , দুর্গাপুর , ( iii ) ওড়িশার রাউরকেল্লা ; ( iv ) ছত্তিশগড়ের ভিলাই ; ( v ) কর্ণাটকের ভদ্রাবতী ; ( vi ) অস্ত্রের বিশাখাপত্তনম ।

B ) মাঝারি ইস্পাত কারখানা : বিজয়নগর ( বর্ণাটক ) , সালেম ( তামিলনাড়ু ) , দ্বৈতরী ( ওড়িশা ) ।

C ) সঙ্কর ইস্পাত কারখানা : দুর্গাপুর অ্যালয় স্টীল প্ল্যান্ট , ভদ্রাবতী , সালেম , পত্রাদু ।

D ) মিনি স্টিল প্ল্যান্ট : 226 টি ; পিগ আয়রন প্ল্যান্ট ( গোয়া ) , সালগাঁওকার প্ল্যান্ট ।

E ) লোহা কারখানা : জোডা ( ওড়িশা ) , চান্ডিল ( বিহার ) , হাজিরা ( গুজরাট ) কারখানা উল্লেখযোগ্য ।

4. স্টিল অথরিটি অব ইণ্ডিয়া লিমিটেড ( SAIL ) ।

Ans: ‘ SAIL’- এর সম্পূর্ণ নাম Steel Authority of India Limited । ইহা একটি রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা । ভিলাই , দুর্গাপুর , রাউরকেল্লা , বোকারো , বার্ণপুর , কুলটি , দুর্গাপুর অ্যালয়ে স্টীল প্ল্যান্ট ও সালেম স্টী গ্ল্যান্টের পরিচালনভার সম্পূর্ণরূপে এই সংস্থার হাতে ন্যস্ত । 1986 খ্রিস্টাব্দে মহারাষ্ট্র ইলেকট্রোমেন্ট লিমিটেড ( MEL ) ও 1989 খ্রিস্টাব্দে বিশ্বেশরাইয়া আয়রন অ্যান্ড স্টীল লিমিটেডের ( VISL ) নিয়ন্ত্রণভার এই সংস্থাটি গ্রহণ করে ।

5. কোল ইণ্ডিয়া লিমিটেড ( COAL INDIA LIMITED ) কী ? 

Ans: কোল ইন্ডিয়া লিমিটেড নামক রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থাটি সারা ভারতে ৪ টি সংস্থায় কয়লা উত্তোলনের নজরদারী চালায় । এই সংস্থাগুলি হল i ) ইস্টার্ন কোলফিল্ডস্ লিমিটেড ( ECL ) ii ) ভারত কোকিং কোল লিমিটেড ( BCCL ) iii ) সেন্ট্রাল কোলফিল্ডস্ লিমিটেড ( CCL ) iv ) নর্দার্ন কোলফিল্ডস্ লিমিটেড ( NCL ) v ) সাউথ ইস্টার্ন কোলফিল্ডস্ লিমিটেড ( SECL ) vi ) মহানদী কোলফিল্ডস্ লিমিটেড ( MCL ) vii ) ওয়েস্টার্ন কোলফিল্ডস্ লিমিটেড ( WCL ) viii ) সেন্ট্রাল মাইন প্ল্যানিং অ্যান্ড ডিজাইন ইনস্টিটিউট লিমিটেড ( CMPDIL ) । এর সদর দপ্তর কলকাতাতে অবস্থিত ।

6. জম্মু – কাশ্মীর পশম শিল্পে উন্নত কেন ?

Ans: শ্রীনগরকে কেন্দ্র করে এরাজ্যে পশম শিল্পে ব্যাপক উন্নতি ঘটেছে ।

কারণ : i ) কাঁচামালের প্রাচুর্য : নিকটবর্তী অঞ্চলে প্রচুর পরিমাণে পশমের সরবরাহ সারা বছর অব্যাহত থাকে । ii ) অধিক চাহিদা : শীতকাল জলবায়ুর জন্য সারা বছর পশমজাত বস্ত্রের চাহিদা অক্ষুণ্ণ থাকে । iii ) উৎপাদনের দীর্ঘ অভিজ্ঞতা : অধিবাসীদের দীর্ঘ অভিজ্ঞতার জন্য পশমজাত বস্তু উন্নত মানের হয় , যার চাহিদাও বেশি । iv ) সরকারী আনুকূল্য : সরকারী সহযোগিতা এই শিল্পকে উৎসাহ ও প্রেরণা যোগায় । v ) অন্যান্য জীবিকার অভাব : দীর্ঘ শৈত্য , অনুর্বর মৃত্তিকা , বন্ধুর ভূ – প্রকৃতির জন্য কৃষি ও শিল্পে অনগ্রসর এই রাজ্যের অধিবাসীদের প্রধান জীবিকা হিসেবে পশম শিল্প খ্যাতিলাভ করেছে ।

7. SAIL- এর উদ্দেশ্য কী ?

Ans: ( SAIL- এর সদর দপ্তর – কলকাতা ) 1973 সালে ভারত সরকার SAIL বা Steel Authority of India Limited সংস্থাটি স্থাপন করে । SAIL- এর উদ্দেশ্য হল ( i ) রাষ্ট্রায়ত্ত লৌহ – ইস্পাত কারখানাগুলির তদারকি করা । ( ii ) রুক্ম লৌহ – ইস্পাত শিল্প কেন্দ্রগুলোর পুনরুজ্জীবনে আর্থিক সাহায্য প্রদান করা । ( iii ) রাষ্ট্রায়ত্ত কারখানাগুলির আধুনিকীকরণে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা । iv ) উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করা ও উৎপাদন বৃদ্ধির ব্যবস্থা করা । v ) SAIL- এর অধীনস্থ প্রশিক্ষণ কেন্দ্র থেকে দক্ষ শ্রমিক সরবরাহ করা । ( vi ) উৎপাদনের গুণগত মান বৃদ্ধি করা । ( vii ) দেশীয় বাজারে লৌহ – ইস্পাতের মূল্য নির্ধারণ করা SAIL এর উদ্দেশ্য ।

8. ভারতে কাগজ শিল্পের সমস্যা লেখো ।

Ans: কাগজ শিল্প ও কাগজের চাহিদার ক্ষেত্রে ভারত উল্লেখযোগ্য স্থান দখল করলেও এ শিল্পে কয়েকটি সমস্যাও দেখা যায় । যেমন i ) কাঁচামালের যোগান যেমন অব্যাহত নয় তেমনি কাঁচামাল উন্নত প্রকৃতিরও নয় । ii ) নরম কাঠ হিমালয়ের দুর্গম অঞ্চলে অবস্থিত যা সংগ্রহ করতে খুবই অসুবিধে হয় । iii ) কলগুলো পুরানো ও সেকেলে বলে উৎপাদন যেমন কম তেমনি উৎপন্ন কাগজও উন্নত মানের নয় । iv ) নতুন কাগজকল স্থাপনে মূলধনের অভাব ভারতে কাগজ শিল্পের অন্তরায় দেখা দিচ্ছে ।

9. ভারতে কাগজ শিল্পের সমস্যার প্রতিবিধান কী ? 

Ans: ভারতের মতো জনবহুল দেশে কাগজ শিল্পের সম্ভাবনা উজ্জ্বল । তার জন্য গৃহীত ব্যবস্থা হল i ) বিদেশ থেকে উন্নত কাঁচামাল , কাগজ ও কাষ্টমন্ড আমদানির প্রতি গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে । ii ) পরিবহন ব্যবস্থার উপর জোর দিয়ে হিমালয়ের নরম কাঠ সংগ্রহের উপর জোর দেওয়া হচ্ছে । iii ) কলগুলোর আধুনিকীকরণের উপর জোর দিয়ে অধিক ও উন্নত কাগজ উৎপাদনের দিকে নজর দেওয়া হচ্ছে । iv ) রুগ্ন ইউনিটগুলোর উৎপাদন ক্ষমতার পুনরুদ্ধারের জন্য অর্থনৈতিক সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে ; উৎপাদন ব্যয় কমানোর প্রতিও দৃষ্টি দেওয়া হয়েছে ।

10. বিশ্বায়ন ভারতের শিল্পব্যবস্থায় কি পরিবর্তন সূচিত করেছে ? 

Ans: বিশ্বায়ন ভারতের শিল্প ব্যবস্থায় যথেষ্ট প্রভাব ফেলেছে । যেমন i ) প্রতিযোগিতা : ভারতীয় শিল্প ও শিল্পপণ্যকে বহুজাতিক শিল্পব্যবস্থার সাথে প্রতিযোগিতার সম্মুখীন হতে হয়েছে । ii ) শিল্পে মন্দা : অনেক শিল্প প্রতিযোগিতায় না পেরে শিল্প মন্দা দেখা দিচ্ছে । যেমন – তামা গলানো ও লৌহ – ইস্পাত শিল্প । iii ) শিল্পে গতি : কিছু কিছু শিল্পের ক্ষেত্রে বৃহৎ বাজার পেয়ে শিল্পপণ্য উৎপাদন বৃদ্ধি পেয়েছে । যেমন— ইলেকট্রনিক্স শিল্প , রাসায়নিক , ইঞ্জিনিয়ারিং শিল্প । iv ) ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্পে প্রভাব : প্রযুক্তিনির্ভর বহুজাতিক সংস্থায় শিল্পপণ্যের সাথে প্রতিযোগিতায় না পেরে বহু ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প ধ্বংসের মুখোমুখি হচ্ছে । v ) ব্যাঙ্ক – বীমায় প্রভাব : ভারতের ব্যাঙ্ক , বীমা , অর্থ লগ্নী পরিষেবায় ব্যাপক রদবদল ঘটেছে ।

11. কার্পাস কলগুলো মুম্বাই থেকে আমেদাবাদের দিকে সরে যাচ্ছে — ভৌগলিক কারণ ব্যাখ্যা করো । 

Ans: মুম্বাই থেকে বস্ত্র শিল্পকেন্দ্র কমতে কমতে আমেদাবাদে বৃদ্ধি পেয়ে হয়েছে 102 কেন্দ্র অর্থাৎ মুম্বাই থেকে বস্ত্রশিল্প কেন্দ্রগুলি আমেদাবাদের দিকে সরে যাচ্ছে ।

i ) নিকটবর্তী বাজার  ঃ উঃ ভারতের বিস্তৃত বাজার মুম্বাই অপেক্ষা আমেদাবাদের নিকটে অবস্থিত । ii ) মজুরিগত কারণ : মুম্বাই অপেক্ষা আমেদাবাদে শ্রমিকের মজুরি ব্যয় কম বলে উৎপাদন ব্যয় কম । iii ) সস্তা জমি : মুম্বাই অপেক্ষা আমেদাবাদে জমির দাম কম এবং সুলভ । iv ) শিল্পের প্রকৃতিগত কারণ  ঃ মুম্বাই এ পেট্রোরসায়ন , মোটরগাড়ী , ইঞ্জিনিয়ারিং , চলচ্চিত্র প্রভৃতি শিল্পের গুরুত্ব বেশী হওয়ায় বস্ত্রশিল্প রুগ্ন শিল্পে পরিণত হয়েছে । অন্যদিকে আমেদাবাদে বস্তু শিল্প মুখ্য । তাই শিল্পপতিরা আমেদাবাদকে মুম্বাই অপেক্ষা অধিক পছন্দ করে ।

12. ভারতের শিল্পাঞ্চল কী ? 

Ans: ভারতের প্রধান শিল্পাঞ্চলগুলো হল i ) হুগলী শিল্পাধূল : এখানের প্রধান শিল্প পাট , বস্ত্র , ইঞ্জিনিয়ারিং । ছোটনাগপুর শিল্পবলয় : প্রধান শিল্প- লৌহ – ইস্পাত , মোটরগাড়ী , ii ) রেলইঞ্জিন , ইঞ্জিনিয়ারিং শিল্প । ii ) মুম্বাই – পুনে শিল্পাঞ্চল : প্রধান শিল্প— বস্ত্র , ঔষধ , জাহাজ , মোটরগাড়ী । iv ) আমেদাবাদ – ভদোদরা শিল্পাঞ্চল : প্রধান শিল্প – বঞ্জ , রাসায়নিক , দুষ্প শিল্প । ( v ) ব্যাঙ্গালুরু – কোয়েম্বাটুর মাদুরাই শিল্পাঞ্চল : বিমানপোত , বস্তু , চিনি , নিত তাঁতের হ মোটরগাড়ী ও ইঞ্জিনিয়ারিং শিল্প এখানের প্রধান শিল্প । ( vi ) দিল্লী – ওখলা – গুরগাঁও শিল্পাঞ্চল প্রধান শিল্প- মোটরগাড়ী , ইঞ্জিনিয়ারিং শিল্প ।

13. ভারতে লৌহ – ইস্পাত শিল্পের সমস্যা লেখো ।

Ans: ভারত লৌহ – ইস্পাত শিল্পে বিশ্বে উল্লেখযোগ্য দেশ হলেও , ভারতে এই শিল্পের কিছু সমস্যা রয়েছে ।

  1. কম উৎপাদন : পূর্ণমাত্রায় উৎপাদন না হওয়ায় আর্থিক ক্ষতির সম্ভাবনা দেখা যায় । 2. কাঁচামালের দাম বৃদ্ধি : কাঁচামালের অস্বাভাবিক দাম বৃদ্ধিতে উৎপাদন ব্যয় বেশি হয় । 3. সেকেলে যন্ত্রপাতি : পুরানো ও অনুন্নত প্রযুক্তিতে উৎপন্ন শিল্পজাত পণ্য— ( i ) অনুন্নত হয় ; ( ii ) দাম বেশি পড়ে ; ( iii ) কম উৎপাদন হয় । 4 . শ্রমিকজনিত অসুবিধা : শ্রমিকের মজুরী বেশি , দক্ষ শ্রমিকের অভাব , শ্রমিক ধর্মঘট , কাজের প্রতি অনীহা ভারতে লৌহ – ইস্পাত শিল্পে এক সমস্যা সৃষ্টি করেছে । এছাড়াও ত্রুটিপূর্ণ সরকারী নীতি ও পরিকল্পনা ; আভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক বাজারে ভারতীয় লৌহ – ইস্পাতের মন্দা বাজার ; কাঁচামালের এককেন্দ্রিক অবস্থান ; উৎকৃষ্ট কোক – কয়লার অভাব ; পরিবহন সমস্যা ; বিদ্যুৎ ঘাটতি ভারতের লৌহ – ইস্পাত শিল্পকে সমস্যার মুখে ফেলে দিয়েছে ।

14. ভারতে পাটশিল্পের সমস্যা লেখো । 

Ans: পাটজাত দ্রব্য উৎপাদন ও রপ্তানিতে ভারত বিশ্বে প্রথম স্থান দখল করলেও এই শিল্পে কয়েকটি সমস্যা দেখা যায় 1. কাঁচামালের সমস্যা : দেশবিভাগ ও পাট চাষীদের পাটচাষে অনীহা কাঁচামালের সংকট সৃষ্টি করেছে । 2 . প্রতিযোগিতা : ভারতীয় পাটজাত দ্রব্যকে বিদেশে বাংলাদেশ , শ্রীলঙ্কা , থাইল্যান্ডের উন্নত ও কম দামের পাটজাত দ্রব্যের সাথে প্রতিযোগিতা করতে হয় । 3 . সেকেলে যন্ত্রপাতি ও আধুনিকীকরণের অভাব : এর ফলে উৎপন্ন সামগ্রীর উৎপাদন কম হয় , দাম বেশি পড়ে ও অনুন্নত সামগ্রী তৈরি হয় । 4. বিকল্প দ্রব্য উদ্ভব : অনেক দেশ পাটের বদলে পলিথিন , নাইলন , তিসির বাকল প্রভৃতির সামগ্রী ব্যবহার করায় বাজার কমে গেছে । এছাড়াও শ্রমিক – মালিক দ্বন্দ্ব ; বিদ্যুৎ ঘাটতি ; পরিকাঠামো ও পর্যাপ্ত মূলধনের অভাব ; কর্মী ছাঁটাই , ধর্মঘট , লক – আউট , শ্রমিকের কাজের প্রতি অনীহা বা Lack of work culture ভারতীয় পাটশিল্পের সমস্যার কারণ হয়েছে ।

15. ভারতে সংকর – ইস্পাত তৈরির কারখানা । 

1 . সরকারীভাবে গঠিত : ( i ) দুর্গাপুর আলয় স্টীল প্ল্যান্ট ; ( ii ) ভদ্রাবতী স্টীল প্ল্যান্ট ; ( iii ) সালেম স্টীল প্ল্যান্ট । 2 . বেসরকারী সংকর স্টীল কারখানা : ( i ) মহারাষ্ট্রের খোপলী , ( ii ) ঝাড়খণ্ডের পাত্রাদু ও ( iii ) পশ্চিমবঙ্গের গেস্টকিন উইলিয়ামস্ ।

16. বিভিন্ন পদ্মবার্ষিকী পরিকল্পনায় ভারতে ইস্পাত কেন্দ্র স্থাপন । 

Ans: দ্বিতীয় পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা : ( i ) ভিলাই হিন্দুস্তান স্টিল লিমিটেড ; ( ii ) রাউরকেল্লা হিন্দুস্তান স্টিল লিমিটেড ( 1956-61 ) ; ( iii ) দুর্গাপুর স্টিল প্ল্যান্ট । Th www P 2. তৃতীয় পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা : ( iv ) বোকারো স্টিল প্ল্যান্ট ( 1961-66 ) । Horar Payone পঞ্চম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা ( v ) বিশাখাপত্তনম স্টিল প্ল্যান্ট । 3 . এছাড়া সালেম ও বিজয়নগরেও পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনাকালেই লৌহ – ইস্পাত কারখানা গড়ে ওঠে ।

17. হিমালয় পার্বত্য অঞ্চলে ভারী শিল্প গড়ে ওঠেনি কেন — কারণ ব্যাখ্যা । 

Ans: হিমালয় পার্বত্য অঞ্চলে ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প প্রসার লাভ করলেও বিশেষ কোন ভারী শিল্প নেই । এর কারণগুলি হ’ল- ( i ) ভূমিকম্পের প্রতিবন্ধকতাই ভারী শিল্প গড়ে তোলার প্রধান সমস্যা ; ( ii ) পরিবহন ও যোগাযোগের সুযোগ থেকে বঞ্চিত ; ( iii ) হিমালয়ে প্রচুর খনিজ সম্পদ সজ্জিত থাকলেও তা ভারতের মতো দেশের পক্ষে উত্তোলন করা দুঃসাধ্য ; ( iv ) কুটিরশিল্প , ক্ষুদ্রশিল্প ও পর্যটন শিল্পের ব্যাপক সুবিধা থাকায় , ভারী শিল্পে তেমন সুযোগ নেই ; ( v ) দেশের সম্ভাব্য 27 % জলবিদ্যুৎ শক্তি এখানে থাকলেও মাত্র 2 % আহরণ সম্ভব হয়েছে ; ( vi ) বেসরকারী ও সরকারী আনুকুল্যের অভাব এখানে শিল্পঅনুন্নতির অন্যতম কারণ ।

18. আন্দামান – নিকোবর দ্বীপপুঞ্জের শিল্প কী ? 

Ans: ভৌগোলিক বিচ্ছিন্নতা কাটিয়ে আন্দামানেও কিছু কিছু শিল্প গড়ে উঠেছে । যেমন A ) কান্ঠভিত্তিক শিল্প : চেরাই কাঠ ( চ্যাথামে ) , প্লাইউড , দেশলাই কাঠি ও কমার্শিয়াল বোর্ড প্রভৃতি । B ) কুটীর শিল্প : শাঁখের করাত , আসবাবপত্র নির্মাণ , বেকারী , ঝিনুক , বাঁশ ও নানাবিধ শৌখিন জিনিস । C ) পর্যটন শিল্প 1992 খ্রিস্টাব্দে বিদেশী পর্যটকদের প্রবেশের অনুমতি দেবার পর এখানে এই শিল্পের জোয়ার এসেছে । D ) অন্যান্য : মৎস্যজাত শিল্প , সামুদ্রিক লবণ তৈরি , নারকেলজাত সামগ্রী , ধানকল , নানাবিধ শৌখিন দ্রব্য এবং বর্তমানে মশলা ও রবার শিল্পে উন্নতির চেষ্টা চলছে ।

19. পূর্বভারতে অধিক মাত্রায় তাপবিদ্যুৎ প্রকল্প গড়ে উঠেছে কেন — কারণ ব্যাখ্যা দাও ।

Ans: পূর্ব ভারতের বিভিন্ন স্থানে যেমন মেজিয়া , সাঁওতালডিহি , দুর্গাপুর , ব্যান্ডেল , কোলাঘাট , বারাউনি , পাত্রাদু , চন্দ্রপুরা , তালচের প্রভৃতি তাপবিদ্যুৎ প্রকল্প গড়ে উঠেছে । কারণ— i ) ভারতের অধিকাংশ কয়লা ( 85 % ) এই স্থানেই পাওয়া যায় যা তাপবিদ্যুতের প্রধান শক্তি । ii ) জনবহুল বলে প্রচুর বিদ্যুৎ চাহিদা । iii ) শিল্পসমৃদ্ধ বলে বিদ্যুৎ চাহিদা অধিক । iv ) উন্নত পরিবহন বলে কয়লা , বিভিন্ন সামগ্রীর সহজ পরিবহন । v ) জনবহুল বলে প্রচুর অদক্ষ ও কারিগরী শিক্ষাকেন্দ্র থেকে প্রচুর দক্ষ শ্রমিক প্রাপ্তি ।

20. হিমালয় পার্বত্য অঞ্চলে ভারী শিল্প গড়ে ওঠেনি — কারণ ব্যাখ্যা দাও । 

Ans: হিমালয় পার্বত্য অঞ্চলে ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প ( ফল , পশম , পর্যটন , কাঠজাত কিছু শিল্প ) ছাড়া কোন ভারী শিল্প গড়ে ওঠেনি । কারণ- ( i ) কাঁচামালের সরবরাহ নেই ; ( ii ) বিদ্যুৎ ও জলের অপ্রাচুর্য্যতা ; ( iii ) সুলভ ও দক্ষ শ্রমিকের অভাব ; ( iv ) সড়ক , রেল , জলপথ পরিবহনের প্রতিকূলতা ; ( v ) চাহিদার অভাব ; ( vi ) বন্দরের অনুপস্থিতি প্রভৃতি প্রতিকূলতার কারণে শিল্পের পরিবেশ নেই ।

21. ভারতে শিল্পাঞ্চলগুলোতে নারী সংখ্যা কম — কারণ ব্যাখ্যা দাও । 

Ans: ভারতের শিল্পাঞ্চলে হাজার প্রতি নারী সংখ্যা ভারতের গড় অপেক্ষা কম , কারণ— ( ক ) শিল্প শ্রমিকরা তাদের স্ত্রী ও পরিবারকে গ্রামে রেখেই শিল্পাঞ্চলে কাজ করতে আসে । ( খ ) শিল্পাঞ্চলে পুরুষ শ্রমিকের হার বেশী । ( গ ) বিভিন্ন সামাজিক কু – ক্রিয়া যেমন খুন , রাহাজানি , ধর্ষন , নারী শ্লীলতা হানি , মদ্যপায়ীর আধিক্য প্রভৃতি কারণে নারী নিরাপত্তা বিঘ্নিত হয় বলে ভারতের শিল্পাঞ্চলে নারী সংখ্যা কম ।

FILE INFO : শিল্প – Industry | ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – ভূগোল প্রশ্নোত্তর (Regional Geography of India – Geography)

File Details:

PDF Name : শিল্প – Industry | ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – ভূগোল প্রশ্নোত্তর (Regional Geography of India – Geography)

Price : FREE

Download Link : Click Here To Download

INFO : Geography – Regional Geography of India – Question and Answer | ভূগোল – ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – শিল্প (Industry) প্রশ্নোত্তর

” ভূগোল (Geography) – ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল (Regional Geography of India) – শিল্প – Industry “ একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ টপিক বিভিন্ন শ্রেনীর পরীক্ষা (Class 5, 6, 7, 8, 9,  Madhyamik, Class 11, Higher Secondary – HS, College & University Exam) এবং বিভিন্ন চাকরির (WBCS, WBSSC) পরীক্ষায় এখান থেকে প্রশ্ন অবশ্যম্ভাবী । সে কথা মাথায় রেখে BhugolShiksha.com এর পক্ষ থেকে ভূগোল পরীক্ষা প্রস্তুতিমূলক প্রশ্নো ও উত্তর উপস্থাপনের প্রচেষ্টা করা হলাে। ছাত্রছাত্রী, পরীক্ষার্থীদের উপকারে লাগলে, আমাদের প্রয়াস  ভূগোল (Geography) ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল (Regional Geography of India) – শিল্প – Industry / শিল্প সংক্ষিপ্ত ছোট প্রশ্ন ও উত্তর / শিল্প (ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Industry (Regional Geography of India – Geography)  SAQ / Short Question and Answer / শিল্প (ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Industry (Regional Geography of India – Geography) Quiz / শিল্প (ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Industry (Regional Geography of India – Geography) QNA / শিল্প (ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Industry (Regional Geography of India – Geography) Question and Answer FREE PDF Download ) পরীক্ষা প্রস্তুতিমূলক প্রশ্নোত্তর সফল হবে।

শিল্প (ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Industry (Regional Geography of India – Geography) Question and Answer in Bengali

স্কুল, কলেজ ও বিভিন্ন ছাত্রছাত্রীদের পড়াশোনার ডিজিটাল মাধ্যম BhugolShiksha.com । এর প্রধান উদ্দেশ্য পঞ্চম শ্রেণী থেকে নবম শ্রেণী, মাধ্যমিকউচ্চ মাধ্যমিক সমস্ত বিষয় এবং গ্রাজুয়েশনের শুধুমাত্র ভূগোল বিষয়কে  সহজ বাংলা ভাষায় আলোচনার মাধ্যমে ছাত্রছাত্রীদের কাছে সহজ করে তোলা।

শিল্প (ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Industry (Regional Geography of India – Geography)

আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ সময় করে আমাদের এই ” শিল্প (ভারতের আঞ্চলিক ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Industry (Regional Geography of India – Geography) ” পােস্টটি পড়ার জন্য। এই ভাবেই আমাদের ভূগোল শিক্ষা – Bhugol Shiksha – BhugolShiksha.com ওয়েবসাইটের পাশে থাকুন। ভূগোল বিষয়ে যেকোনো প্ৰশ্ন উত্তর জানতে এই ওয়েবসাইটটি ফলাে করুন এবং নিজেকে ভৌগোলিক  তথ্য সমৃদ্ধ করে তুলুন , ধন্যবাদ।

Subscribe Our YouTube Channel

Join Our Telegram Channel

E-mail Subscription