কাষ্ঠ আহরণ (অর্থনৈতিক ভূগোল - ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Lumbering (Economic Geography) Geography
কাষ্ঠ আহরণ (অর্থনৈতিক ভূগোল - ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Lumbering (Economic Geography) Geography

অর্থনৈতিক ভূগোল – ভূগোল প্রশ্ন ও উত্তর

কাষ্ঠ আহরণ | Lumbering – Economic Geography (Geography) Question and Answer in Bengali

কাষ্ঠ আহরণ (অর্থনৈতিক ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Lumbering (Economic Geography – Geography) : অর্থনৈতিক ভূগোল – Economic Geography (ভূগোল – Geography) কাষ্ঠ আহরণ – Lumbering প্রশ্ন Oও উত্তর  নিচে দেওয়া হল। এই (কাষ্ঠ আহরণ – Lumbering – অর্থনৈতিক ভূগোল Economic Geography – ভূগোল Geography) প্রশ্নোত্তর গুলি স্কুল, কলেজ ও বিভিন্ন প্রতিযোগিতা মূলক পরীক্ষার জন্য খুব ইম্পর্টেন্ট। তোমরা যারা কাষ্ঠ আহরণ – Lumbering – অর্থনৈতিক ভূগোল – Economic Geography (ভূগোল – Geography) অতিসংক্ষিপ্ত প্রশ্ন ও উত্তর (Short Question and Answer) খুঁজে চলেছো, তারা নিচে দেওয়া প্রশ্নউত্তর ভালো করে পড়তে পারো।

কাষ্ঠ আহরণ (Lumbering) অর্থনৈতিক ভূগোল – ভূগোল প্রশ্ন ও উত্তর

1. নিরক্ষীয় বনভূমির ( EQUATORIAL FOREST ) বৈশিষ্ট্য লেখো । 

Ans: আফ্রিকার কঙ্গো অববাহিকায় , দক্ষিণ আমেরিকার আমাজন অববাহিকায় এই অরণ্য দেখা যায় । এর বৈশিষ্ট্য হল A ) স্তরবিন্যাস : সূর্যালোক পাবার জন্য উদ্ভিদের তিনটি স্তর । যথা— নিম্ন স্তর ( 9-15 মি ) , মধ্য স্তর ( 15-30 মি ) ও উচ্চ স্তর ( 15-46 মি ) । B ) চিরহরিৎ বৃক্ষ : অত্যধিক উন্নতা ও তাপমাত্রার জন্য এই অরণ্যের উদ্ভিদ চিরহরিৎ হয় । C ) চাঁদোয়া : বনভূমির উপরের বৃক্ষগুলি চাঁদোয়া’র ( CANOPY ) মতো আচ্ছাদন সৃষ্টি করে । D ) শ্বাসমূল : সমুদ্র উপকূলের বেশিরভাগ উদ্ভিদের শ্বাসমূল ও ঠেসমূল জন্মায় । E ) অন্যান্য বৈশিষ্ট্য : এছাড়া মিতা প্রকৃতির দীর্ঘ উদ্ভিদ দেখা যায় ও রোজউড , আয়রন উত্ত , ব্রাজিল নাট এখানের প্রধান উদ্ভিদ ।

2. ক্রান্তীয় পর্ণমোচী অরণ্যের ( TROPICAL DECIDEOUS FOREST ) বণ্টন করো ?

Ans: নিরক্ষরেখার উভয় পার্শ্বে 100-35 ° অক্ষাংশের মধ্যবর্তী স্থানে এই অরণ্য দেখা যায় । যেমন ( A ) এশিয়া মহাদেশ ভারত , মায়ানমার , বাংলাদেশ , থাইল্যান্ড , ভিয়েতনাম , লাওস ও কাম্বোডিয়া । B ) আফ্রিকা মহাদেশ : মোজাম্বিক , মালাগাসি ও পিনি উপকূল । C ) উত্তর আমেরিকা : মেক্সিকো ও হন্ডুরাস । D ) দক্ষিণ আমেরিকা : ব্রাজিল , কলম্বিয়া ও ভেনেজুয়েলা । নিকারাগুয়া , কোস্টারিকা ও পানামা । E ) মধ্য আমেরিকা F ) অস্ট্রেলিয়া উত্তর ও পূর্ব অঞ্চল ।

3. ক্রান্তীয় পর্ণমোচী বৃক্ষের বৈশিষ্ট্য লেখো । 

Ans: ( A ) শ্রেণী : মৌসুমী জলবায়ুর অন্তর্গত , যেখানে বৃষ্টিপাত 100-200 সেমি সেখানে আর্দ্র পর্ণমোচী অরণ্য জন্মায় । আবার যে সব অঞ্চলে বৃষ্টিপাত 100 সেমি – র কম সেখানে শুষ্ক পর্ণমোচী অরণ্য দেখা যায় । B ) পর্ণমোচী : বসন্তকালে ও গ্রীষ্ম ঋতুর প্রথমদিকে তীব্র জলসঙ্কটের দরুণ বৃক্ষগুলি পত্রহীন হয়ে পড়ে ও একসঙ্গে নতুন পাতা জন্মায় । C ) মৃত্তিকা : ল্যাটোসোল মৃত্তিকায় এই বনভূমি বেড়ে ওঠে । D ) দ্বিস্তর বনভূমি : বড় গাছের নিচে ছোট ছোট উদ্ভিদ জন্মায় । E ) উচ্চতা বেশিরভাগ বৃক্ষের উচ্চতা 12-15 মিটারের মধ্যে হয় । F ) অশখ । প্রধান বৃক্ষ : শাল , সেগুন , খয়ের , পলাশ , মহুয়া , শিরিষ , জারুল , গামার , নিম ,

মেমরী প্লাস : সারা বিশ্বের অরণ্যাঞ্চলের মাত্র ১ শতাংশ ভারতের ।

4. ভূমধ্যসাগরীয় অরণ্যের ( MEDITERRANEAN FOREST ) অবস্থান কী ?

Ans: পৃথিবীর উত্তর গোলার্ধে 30 ° 40 ° অক্ষাংশের প্রধানত ভূমধ্যসাগরকে কেন্দ্র করে এই বনভূমির সৃষ্টি হয়েছে । ( A ) ইওরোপ মহাদেশ : স্পেন , পর্তুগাল , ইতালী , গ্রীস । B ) আফ্রিকা মহাদেশ : মরক্কো , আলজিরিয়া , তিউনিসিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকা । C ) অস্ট্রেলিয়া দক্ষিণ – পশ্চিম অংশ ( বৃহৎ অস্ট্রেলিয়া উপসাগরের তীরবর্তী ) । D ) উত্তর আমেরিকা : ক্যালিফোর্নিয়া প্রদেশ । E ) দক্ষিণ আমেরিকা : মধ্য চিলি ।

5. ভূমধ্যসাগরীয় অরণ্যের বৈশিষ্ট্য লেখো । 

Ans: A ) দ্বিস্তর ভূমধ্যসাগরীয় অরণ্য দ্বি – স্তর বিশিষ্ট । B ) ছাল ও পাতা : ( i ) কোন গাছের পাতায় মোমের প্রলেপ থাকে ( যেমন- কমলালেবু ) । ( ii ) দীর্ঘ ও শুষ্ক গ্রীষ্মকালের অত্যধিক বাষ্পীভবনের হাত থেকে রক্ষা পাবার জন্য গাছের ছাল পুরু হয় ( যেমন- কৰ্ক ) । ( iii ) কোন কোন গাছের পাতায় ছোট ছোট রোঁয়া দ্বারা ঢাকা থাকে ( যেমন- জলপাই গাছ ) । ( C ) স্কিয়রোফিল উদ্ভিদ : পাতাগুলি চওড়া ও চকচকে ছাড়াও শক্ত , মোটা , চামড়ার মতো হয় বলে । স্কিয়রোফিল উদ্ভিদ বলে । D ) বিস্তৃত শিকড় : জলের সন্ধানে শিকড় বহুদূর বিস্তৃত হয় ।

6. সরলবর্গীয় অরণ্যের অবস্থান কী ? ( LOCATION OF CONIFEROUS FOREST ) ।

Ans: উত্তর গোলার্ধের 50 ° -70 ° উত্তর অক্ষরেখার মধ্যবর্তী স্থানে এই বনভূমি অবস্থিত । যেমন A ) কানাডিয়ান তৈগা : কানাডার কুইবেক , অল্টারিও , ব্রিটিশ কলম্বিয়াতে 40 % সরলবর্গীয় বনভূমি অবস্থিত । B ) আমেরিকা : দক্ষিণ পঞ্চ হ্রদের তীরবর্তী অঞ্চল থেকে পূর্ব দিকে অ্যাপলেসিয়ান পর্বতশ্রেণী পর্যন্ত বিস্তৃত । C ) ইওরোপ : সুইডেন , নরওয়ে , জার্মানী , ফিনল্যান্ড , ফ্রান্স , ইতালীর উচ্চ পার্বত্য অঞ্চলে । D ) সাইবেরীয় তৈগা : পশ্চিমে ইওরোপীয় অংশ থেকে পূর্বে প্রশান্ত মহাসাগর তীরবর্তী পর্যন্ত । এটি বিশ্বের বৃহত্তম সরলবর্গীয় বনভূমি । E ) এশিয়া জাপানের উত্তরাংশ , মাঞ্চুরিয়া , ভারতের হিমালয় পার্বত্য অঞ্চল , তিয়েনসান পর্বতে দেখা যায় । F ) অন্যান্য দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ার দক্ষিণে ও নিউজিল্যন্ডের দক্ষিণে এই বনভূমি দেখা যায় ।।

মেমরী প্লাস : ভারতের মাথাপিছু অরণ্যাঞ্চল মাত্র ০.০৪ হেক্টর । বিশ্বে এর পরিমাণ গড় ০.৪ হেক্টর ।

7. ৪০ সরলবর্গীয় অরণ্যের বৈশিষ্ট্য লেখো । 

Ans: ( A ) চিরহরিৎ সরলবর্গীয় অরণ্যের অধিকাংশ বৃক্ষ চিরহরিৎ ( যেমন- পাইন , ফার , স্পুচ ও সার্চ ইত্যাদি ) । B ) সূচাকার পাতা : পাতাগুলি সূচীমুখ ( Needle – leaf ) , সরু ও লম্বা হয় বলে এদের Needles leaf Forest বলে । C ) ফলোৎপাদন : দু’বৎসর লাগে । এক বৎসর বীজ পরাগিত হয় ও অন্য বছর ফল পাকে । D ) পুরু ছাল ও খাদ্যসঞয় : অত্যধিক শীতের হাত থেকে রক্ষা পেতে ছাল পুরু ও কাণ্ডে খাদ্য সঞ্চিত থাকে । E ) নরম কাষ্ঠ : এই বৃক্ষগুলির কাষ্ঠ অত্যন্ত নরম কিন্তু টেকসই ; তাই অর্থনৈতিক দিক থেকে এই অরণ্য খুবই উপযোগী । F ) দীর্ঘ বৃক্ষ : বৃক্ষের কাণ্ড ঋজু ও দীর্ঘ ( 30 মি ) । যেমন — রেডউড বৃক্ষ 100 মি উঁচু ও বেড় 20 মিটারের বেশি হয় ।

8. নিরক্ষীয় বৃষ্টি অরণ্যে বনভূমির বাণিজ্যিক ব্যবহার বাধাপ্রাপ্ত হয় অথবা , ক্রান্তীয় বৃষ্টি অরণ্য অঞ্চলে কাষ্ঠ সংগ্রহে অনগ্রসরতার কারণ । 

Ans: ক্লান্তীয় অঞ্চলে কাষ্ঠ আহরণের নিম্নলিখিত অসুবিধাগুলি বিদ্যমান প্রথমত , কোন একটি বিশেষ প্রজাতির বৃক্ষের সমাবেশ না থাকায় একই প্রজাতির কাষ্ঠ সংগ্রহের জন্য বহু দুরবর্তী এবং বিস্তৃত অঞ্চলে সমীক্ষার প্রয়োজন । দ্বিতীয়ত , আর্দ্র নিরক্ষীয় বনভূমির তলদেশ লতা , আগাছা পরিপূর্ণ থাকায় বনভূমির মধ্যে যাতায়াত দুঃসাধ্য । তৃতীয়ত , অধিকাংশ কাষ্ঠ ভারী হওয়ায় সুলভে জল পরিবহন দ্বারা কাষ্ঠখণ্ডগুলি চেরাই কলে নিয়ে আসা যায় না । চতুর্থত , ক্রান্তীয় অঞ্চলের আর্দ্র ও ভ্যালা জলবায়ুতে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশের সৃষ্টি করেছে । পঞ্চমত , আর্দ্র বনভূমির মৃত্তিকা নরম হওয়ায় রাস্তাঘাট নির্মাণ ও রক্ষণাবেক্ষণ অসুবিধাজনক । ষষ্ঠত , মশা , সেৎসী মাছি , ম্যালেরিয়া , কালাজ্বর , এনকেফেলাইটিস ও নিদ্রা রোগের বাহক ও ধারক । শ্রমিক এই রোগে আক্রান্ত হওয়ায় দক্ষ শ্রমিক পাওয়া যায় না ও সপ্তমত , ঝুম চাষের ফলে বহু দেশে অরণ্য বিনষ্ট হয়েছে ।

9. সরলবর্গীয় বনভূমির কাষ্ঠশিল্পের উন্নতির কারণ কী ?

Ans: অধিকাংশ সরলবর্গীয় বনভূমি উত্তর গোলার্ধে অবস্থিত । সরলবর্গীয় অরণ্যে কাষ্ঠশিল্প বিকাশের কারণগুলি হ’ল ( A ) একই প্রকার বৃক্ষসমূহ বিস্তৃত অঞ্চল জুড়ে থাকে বলে কাষ্ঠ আহরণের জন্য সমীক্ষা ও পরিবহন বায় কম হয় : ( B ) শীতকালে বরফের ওপর দিয়ে বা গ্রীষ্মকালে নদীপথে ভাসিয়ে কাষ্ঠকে চেরাই কলে নিয়ে যাওয়া হয় , তাই কাষ্ঠ পরিবহন বায় খুবই কম হয় : ( C ) সরলবর্গীয় বনভূমির নিম্নভাগের ঝোপ ও গুল্ম ঘন না হওয়ায় কাষ্ঠ আহরণকারী যন্ত্রপাতিগুলি বাধাহীনভাবে যাতায়াত করতে পারে ; ( D ) শীতল নাতিশীতোয় জলবায়ুতে শ্রমিকেরা সহাজে ক্লান্ত হয় না ; ( E ) বর্তমানে সুইডেন , নরওয়ে , ফিনল্যান্ড প্রভৃতি দেশে একই সঙ্গে কাষ্ঠমণ্ড ও কাষ্ঠ আহরণ দ্বারা ব্যাপক কর্মযজ্ঞ চালু করেছে ; ( F ) সারা পৃথিবীতে ব্যাপক বাজারের উপর নির্ভর করে তৈথা অঞ্চলের কাষ্ঠ আহরণ ব্যবস্থার ৪৩ দক্ষিণ গোলার্ধে সরলবর্গীয় বনভূমির বিস্তার কম কারণ ব্যাখ্যা । উন্নতি হয়েছে ।

10. দক্ষিণ গোলার্ধে সরলবর্গীয় বনভূমির বিস্তার কম কেন ?

Ans: কম বিস্তারের কারণ হল 1 ) অনুকূল জলবায়ুর অভাবঃ সরলবর্গীয় বনভূমির উপযোগী জলবায়ু হলো দীর্ঘ ও তীব্র শীতল এমনকি তুষারপাত যুক্ত জলবায়ু । দক্ষিণ গোলার্ধের মৃদু নাতিশীতোয় জলবায়ু বলে এই বৃক্ষের উপযোগী অবস্থা নেই । 2 ) অধিক জলভাগ : দক্ষিণ গোলার্ধে স্থলভাগের পরিমাণ কম বলে স্বাভাবিকভাবেই এই বনভূমির বিস্তার কম । 3 ) জলবায়ুর প্রকৃতি : জলভাগ বেশী বলে এখানে জলবায়ুর প্রকৃতিও পৃথক ধরণের , যা এ ধরনের উদ্ভিদের বৃদ্ধির উপযোগী নয় ।

11 সেলভা অরণ্য কাকে বলে ? ( SELVA FOREST ) 

Ans: দক্ষিণ আমেরিকার আমাজন অববাহিকা , কলম্বিয়া , আফ্রিকার জাইরে নদীর অববাহিকা , গিনি উপকূল , দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার মালয়েশিয়া , মালয় উপদ্বীপ , দক্ষিণ ভারত , শ্রীলঙ্কা , সুমাত্রা , জাভা ও ইন্দোনেশিয়ার পশ্চিম প্রান্তে আর্দ্র চিরহরিৎ অরণ্যের উদ্ভব হয়েছে । এই চিরহরিৎ নিরক্ষীয় বনভূমিকে সেলভা বলে ।

‘ Selva ’ একটি ল্যাটিন শব্দ ; যার অর্থ ‘ গভীর গহন অরণ্য ‘ ।

মেমরী প্লাস : বিশ্বে সর্বাপেক্ষা অরণ্য আচ্ছাদিত দেশ সুরিনাম ( ৯০.৫ শতাংশ )

12 অরণ্যের প্রত্যক্ষ উপযোগিতা কী ? 

Ans: A ) জ্বালানী কাষ্ঠ : পৃথিবীর মোট সংগৃহীত কাষ্ঠের 40 % জ্বালানী হিসাবে ব্যবহৃত হয় । B ) শিল্পে ব্যবহৃত কাষ্ঠ : জাহাজের পাটাতন , রেলওয়ে কোচ , রেললাইনের স্লিপার তৈরিতে কাষ্ঠ ব্যবহৃত হয় । C ) কাগজ শিল্প নরম ও হালকা কাষ্ঠ দ্বারা কাগজমণ্ড ও কাগজ প্রস্তুত হয় ( সরলবর্গীয় বৃক্ষ ) । D ) উপজাত দ্রব্য : রবার , তার্পিন , পীচ , ধুনা , কর্ক , কুইনাইন , চিকল বাদাম ইত্যাদি উপজাত দ্রব্য পাওয়া যায় । E ) ঔষধ ইপিকাক , নাক্সভমিকা ও সর্পেন্টিনা ইত্যাদি ঔষধ অরণ্য থেকে সংগৃহীত হয় ।

13. অরণ্যের পরোক্ষ উপযোগিতা কী ?

Ans: A ) মৃত্তিকা সংরক্ষণ : অরণ্য ঝড় , বৃষ্টি , বন্যার হাত থেকে মৃত্তিকাকে রোধ করে । B ) মরুভূমির প্রসার রোধ : অরণ্য মরুভূমির প্রসার রোধে সাহায্য করে ( তাই থর মরুভূমিতে বৃক্ষরোপণ চলছে ) । C ) প্রাকৃতিক স্পঞ্জ অরণ্য পরিবেশকে দূষণ মুক্ত করে বলে প্রাকৃতিক স্পঞ্জ বলে । D ) বৃষ্টিপাত নিয়ন্ত্রণ অরণ্য বৃষ্টি নিয়ন্ত্রণ করে ( যেমন- আমাজন , সেলভা অরণ্যের বৃষ্টি ) । E ) ) অন্যান্য গুরুত্ব : অরণ্য সম্পদ দ্বারা কোন দেশের জাতীয় আয় বাড়ে ও স্বাভাবিক জলচক্র বজায় থাকে ।

14. অরণ্য হ্রাসের প্রাকৃতিক কারণ কী ? 

Ans: পৃথিবীতে মোট ভূমিভাগের 33 শতাংশ বনভূমি প্রয়োজন , কিন্তু তা আছে মাত্র 20-25 শতাংশ । এর প্রাকৃতিক কারণ A ) দাবানল : অস্ট্রেলিয়া , দক্ষিণ আমেরিকায় দাবানলে লক্ষ হেক্টর বনভূমি ধ্বংস হয় । B ) অগ্ন্যুৎপাত : অগ্ন্যুৎপাতও বনভূমি ধ্বংসের অন্যতম কারণ ( যেমন — সম্প্রতি ব্যার অগ্ন্যুৎপাত ) । C ) ধ্বস ধ্বসে প্রচুর সরলবর্গীয় ও মিশ্র বনভূমি ধ্বংস হয় ( যেমন- 1950 খ্রিস্টাব্দে আসামে ভূমিকম্প ও ধ্বসে ) । D ) টাইফুন ও সুনামী : সুনামী ও টাইফুন উপকূলে ম্যানগ্রোভ , প্রবাল কীট ও প্লাংটনের প্রচুর ক্ষতি করে ( 2004 – এর সুনামী ) । E ) অ্যাসিড বৃষ্টি : শিল্পোন্নত দেশে অ্যাসিড বৃষ্টির ফলে অরণ্য ধ্বংস হয় ( উদাহরণ – পশ্চিম জার্মানী ) ।

মেমরী প্লাস : 2006 খ্রিস্টাব্দের সেপ্টেম্বর মাসে অস্ট্রেলিয়ায় .03 কোটি হেক্টর বনভূমি দাবানলে ধ্বংস হয়েছে । 2009 খ্রিস্টাব্দের ফেব্রুয়ারী মাসে দক্ষিণ অস্ট্রেলিয়ায় দাবানলে ব্যাপক বনভূমি ধ্বংস হয়েছে ।

15. অরণ্য সংরক্ষণের উপায় কী ?

Ans: মানুষের দূরদর্শী কল্যাণকর কাজের মাধ্যমে অরণ্য পরিবেশকে সুস্থির রাখাকেই অরণ্য সংরক্ষণ বলে । অরণ্য সংরক্ষণের উপায়গুলি হলঃ B ) A ) বনসৃজন নতুন নতুন বনভূমি রোপণের দ্বারা বনভূমির আয়তন বৃদ্ধি করা সম্ভব । পরিণত বৃক্ষচ্ছেদন : অপরিণত বৃক্ষ না কেটে কেবলমাত্র পরিণত বৃক্ষই কাটতে হবে । C ) রৈখিক পদ্ধতিতে কাষ্ঠ আহরণ : এই পদ্ধতিতে কাষ্ঠ আহরণ করা হলে দাবানল রোধ করা সম্ভব । D ) পশুচারণ নিষিদ্ধকরণ : বনভূমিতে পশুর প্রবেশ নিষিদ্ধ করতে হবে । E ) উপযুক্ত ভূমি ব্যবহার : ভূমির অবস্থান , মাটির চরিত্র অনুসারে বনভূমি রোপন করতে হবে । F ) উপযুক্ত তত্ত্বাবধান : পুলিশ প্রশাসন ও বন সংরক্ষকদের সঠিক বোঝাপড়া গড়ে তোলা দরকার । G ) ঝুম চাষ নিষিদ্ধ : বনভূমিতে ঝুম চাষ নিষিদ্ধ করা প্রয়োজন ।

16  কাষ্ঠ আহরণ , ( LUMBERING ) কাষ্ঠ আহরণের স্তর কী ?

Ans: স্বাভাবিক উদ্ভিদ অঞ্চলের পুনর্ভব সম্পদ বৃক্ষসমূহকে আহরণের বিষয়কে কাষ্ঠ আহরণ বলে । স্তর চারটি প্রধান স্তরে কাষ্ঠ আহরণ ব্যবস্থাকে আলোচনা করা যায় । যথা 1 . সমীক্ষা – বৃক্ষের অবস্থান , পরিবহন , বৃক্ষের ঘনত্ব ও অপ্রয়োজনীয় বৃক্ষের ঘনত্ব ইত্যাদি সমীক্ষা কাষ্ঠ আহরণের প্রথম স্তর । 2 . কর্তন – বৃক্ষগুলিকে কাটা বা কর্তন ( Felling ) কাষ্ঠ আহরণের দ্বিতীয় স্তর । 3 . পরিবহন— তৃতীয় স্তরে কাষ্ঠখণ্ডগুলি নিকটবর্তী কাষ্ঠ চেরাই কল ও কাগজ প্রস্তুতকারী কারখানায় নিয়ে যাওয়া হয় । 4 . নতুন বনভূমি সৃজন – কাষ্ঠ আহরণের চতুর্থ স্তর হল নতুন বনভূমি সৃজন ।

17. কাষ্ঠ আহরণের আধুনিকতম পদ্ধতি কী ? ( MODERN METHODS OF LUMBERING ) 

Ans: সম্পদ সংরক্ষণের ফলে কাষ্ঠ আহরণের মধ্যে নানাবিধ আধুনিক পরিবর্তন সূচনা করেছে । যেমন 1 . গ্রিড পদ্ধতি : এই পদ্ধতিতে সমগ্র বনাঞ্চলকে কয়েকটি অংশে ভাগ করে প্রতি বৎসর আহরণযোগ্য বৃক্ষসমূহ সম্পুর্ণভাবে কেটে ফেলা হয় ও উন্মুক্ত স্থানে পার্শ্ববর্তী অংশে প্রজাতির সঙ্গে সমতা রেখে চারা রোপণ করা হয় । 2. আঞ্চলিক পদ্ধতি : এই পদ্ধতিতে কোন একটি বিস্তৃত অঞ্চলে বৃক্ষ আহরণ করা হয় । রাশিয়ার তৈগা , কানাডা ও উত্তর আমেরিকার সরলবর্গীয় বনভূমিতে এই পদ্ধতি ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হয় । 3 . নির্বাচন আহরণ : এই পদ্ধতিতে বৃক্ষ সমীক্ষা করার পর বৃক্ষগুলির অবস্থানের ছক কেটে কাষ্ঠ আহরণ করা হয় । ক্রান্তীয় অরণ্যের বনভূমিতে এই পদ্ধতি খুবই কার্যকরী । 4 . রৈখিক পদ্ধতি : এই পদ্ধতিতে সুদীর্ঘ একটি রেখার দুই পার্শ্বে 5-10 কি.মি. প্রস্থের বনভূমি সম্পূর্ণভাবে ছেদন করা হয় । সরলবর্গীয় অরণ্যের কাষ্ঠ আহরণের ক্ষেত্রে এই পদ্ধতি খুবই কার্যকরী ।

18. কাষ্ঠ আহরণ পদ্ধতির সুবিধা কী কী ? 

Ans: আধুনিক কাষ্ঠ আহরণ পদ্ধতির সুবিধাগুলি হল— i ) নতুন বনভূমি : মুক্তাঞ্চলগুলিতে নূতন চারা রোপন করার পর দ্রুত নূতন বনভূমি গঠন করে । ii ) দাবানল প্রতিরোধ : বিধ্বংসী দাবানলের হাত থেকে বনভূমি রক্ষা পায় । iii ) রক্ষণাবেক্ষণে ব্যবস্থা : নূতন বনভূমি সৃজনের জন্য চারা রোপন , কীটনাশক ও জীবানুনাশক ঔষধ বিতরণ ও বনভূমির রক্ষণাবেক্ষণের ব্যয় কম হয় । iv ) বহুমুখী ব্যবহার : বনভূমির বহুমুখী ব্যবহার , যেমন— বনবিহার , বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ , প্রমোদ মৃগোদ্যান গঠন সম্ভব হয় ।

19. নিরক্ষীয় অঞ্চলে বনভূমি অবলুপ্তির কারণ কী ? 

Ans: নিরক্ষীয় বৃষ্টি অরণ্যের বিগত 50 বছর ধরে ব্যাপক হারে কাষ্ঠ লুণ্ঠন ঘটেছে । পরিবেশবিদদের মতে 2080 সালের মধ্যে সেলভা অরণ্য নিশ্চিহ্ন হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে । কারণ ( i ) উন্নত পরিবহন ও উন্নত বৃক্ষচ্ছেদন পদ্ধতি দ্বারা অধিক কাষ্ঠ আহরণ । ( ii ) বিশ্ববাজারে শীতল নাতিশীতোয় অঞ্চলে কাষ্ঠের যোগান কমে যাওয়ায় বৃষ্টি অরণ্য অঞ্চলের । কাষ্ঠের উপর অধিক কোপ পড়েছে । ( iii ) তৃতীয় বিশ্বের দেশগুলো থেকে কাষ্ঠ সংগ্রহের জন্য উন্নত দেশগুলোর প্রচেষ্টা ও বিনিয়োগ ও পক্ষপাতমূলক অরণ্য সংরক্ষণ নীতির ফলেই এই অরণ্যের অবলুপ্তি ঘটেছে ।

20. ক্রান্তীয় তৃণভূমিগুলোর অবস্থান কী ?

Ans: 1 . নিরক্ষরেখার 5 ° থেকে 20 ° উভয় গোলার্ধে এরুপ তৃণভূমির অবস্থান দেখা যায়

2 . দক্ষিণ আমেরিকার ভেনেজুয়েলা ও ব্রাজিলের ল্যানোস তৃণভূমি ও ক্যাম্পোস । আফ্রিকার সুদান , অ্যাঙ্গোলা , জিম্বাবোয়ের পার্কল্যান্ড তৃণভূমি । 3 . অস্ট্রেলিয়ার উত্তর – পূর্ব ও উত্তর – পশ্চিম অঞ্চলের তৃণভূমি । 4 .

এশিয়ার দাক্ষিণাত্য তৃণভূমির সাভানা তৃণভূমি ।

21. কৃষি বনায়ন বা AGR-ISILVICULTURE কী ?

Ans: ইহা কৃষি ব্যবস্থা ; বনভূমির যে সকল স্থানে গাছ কাটা হয়েছে সেখানে কৃষিব্যবস্থা সম্পাদিত হলে তাকে কৃষি বনায়ন বলে । অবস্থান : ভারতের উত্তরপ্রদেশ , কেরালা প্রভৃতি রাজ্যে এরূপ কৃষিব্যবস্থা গড়ে উঠেছে । মায়ানমারে এই ব্যবস্থার অধিক প্রচলন আছে , ইহা টাঙ্গিয়া নামে পরিচিত । বৈশিষ্ট্য : i ) করমুক্ত কৃষক কর ও দাদন ছাড়াই চাষের অনুমতি দেওয়া হয় । ii ) শস্য উৎপাদন — নিজের ইচ্ছেমতো প্রচুর ফসল উৎপাদন করে চাষিগণ । iii ) শস্য ও বৃক্ষরোপণ— বনবিভাগের পরিকল্পনায় চারা রোপন করে ও চাষিরা মধ্যবর্তী স্থানে চাষ করে প্রচুর ফসল উৎপাদন করে । সুবিধা : এই ব্যবস্থায় বনবিভাগের খরচা ছাড়াই তাদের বনসৃজনের কাজ হয়ে যায় টাঙ্গীদার চাষিদের দ্বারা । অপরপক্ষে , কোনরূপ মূলধন বিনিয়োগ ছাড়াই চাষিরা ফসল উৎপাদনের সুযোগ পায় ।

22. কৃষি বনসৃজন বা AGRO FORESTRY কী ?

Ans: কৃষকেরা যখন তার নিজস্ব জমিতে চাষাবাদের সাথে সাথে কৃষিজমির সীমানায় বা তাদের পতিত জমিতে গাছপালা লাগিয়ে বনভূমির মতো করে গড়ে তোলে তখন ঐরূপ প্রচেষ্টাকে কৃষি বনসৃজন বলে । উদ্দেশ্য : i ) পতিত বা অব্যবহৃত জমিকে উৎপাদনশীল করে তোলা । ii ) ভূমিক্ষয় প্রতিরোধ করা । অর্থনৈতিক ভূগোল ৪০৯ iii ) জমিতে জৈব সারের পরিমাণ বৃদ্ধি করা । iv ) কাষ্ঠ , ফল , শাকসবজি প্রভৃতি উৎপাদন দ্বারা কৃষকের অর্থনৈতিক অবস্থার বিকাশ ঘটানো । v ) ভেষজ গাছের উৎপাদন ও পশুখাদ্যের যোগান বৃদ্ধি করা ।

23. কৃষি বনসৃজনের অসুবিধা কী ?

Ans: i ) গাছের নির্বাচন সঠিক না হলে জমি ছায়া হয়ে পড়ে ও কৃষিকাজ ব্যাহত হয় । ii ) ইউক্যালিপটাস জাতীয় গাছ মাটির আর্দ্রতা হ্রাস করে ও মাটিকে ক্ষারধর্মী করে । iii ) কিছু গাছের পাতা মাটিকে আম্লিক করে ও উর্বরতা কমিয়ে দেয় । iv ) অনুন্নত প্রজাতির গাছ সৃজনে ফসল উৎপাদন ব্যাহত হয় ।

FILE INFO : কাষ্ঠ আহরণ – Lumbering | অর্থনৈতিক ভূগোল – ভূগোল প্রশ্নোত্তর (Economic Geography – Geography)

File Details:

PDF Name : কাষ্ঠ আহরণ – Lumbering | অর্থনৈতিক ভূগোল – ভূগোল প্রশ্নোত্তর (Economic Geography – Geography)

Price : FREE

Download Link : Click Here To Download

INFO : Geography – Economic Geography – Question and Answer | ভূগোল – অর্থনৈতিক ভূগোল – কাষ্ঠ আহরণ (Lumbering) প্রশ্নোত্তর

” ভূগোল (Geography) – অর্থনৈতিক ভূগোল (Economic Geography) – কাষ্ঠ আহরণ – Lumbering “ একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ টপিক বিভিন্ন শ্রেনীর পরীক্ষা (Class 5, 6, 7, 8, 9,  Madhyamik, Class 11, Higher Secondary – HS, College & University Exam) এবং বিভিন্ন চাকরির (WBCS, WBSSC) পরীক্ষায় এখান থেকে প্রশ্ন অবশ্যম্ভাবী । সে কথা মাথায় রেখে BhugolShiksha.com এর পক্ষ থেকে ভূগোল পরীক্ষা প্রস্তুতিমূলক প্রশ্নো ও উত্তর উপস্থাপনের প্রচেষ্টা করা হলাে। ছাত্রছাত্রী, পরীক্ষার্থীদের উপকারে লাগলে, আমাদের প্রয়াস  ভূগোল (Geography) অর্থনৈতিক ভূগোল (Economic Geography) – কাষ্ঠ আহরণ – Lumbering / কাষ্ঠ আহরণ সংক্ষিপ্ত ছোট প্রশ্ন ও উত্তর / কাষ্ঠ আহরণ (অর্থনৈতিক ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Lumbering (Economic Geography – Geography)  SAQ / Short Question and Answer / কাষ্ঠ আহরণ (অর্থনৈতিক ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Lumbering (Economic Geography – Geography) Quiz / কাষ্ঠ আহরণ (অর্থনৈতিক ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Lumbering (Economic Geography – Geography) QNA / কাষ্ঠ আহরণ (অর্থনৈতিক ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Lumbering (Economic Geography – Geography) Question and Answer FREE PDF Download ) পরীক্ষা প্রস্তুতিমূলক প্রশ্নোত্তর সফল হবে।

কাষ্ঠ আহরণ (অর্থনৈতিক ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Lumbering (Economic Geography – Geography) Question and Answer in Bengali

স্কুল, কলেজ ও বিভিন্ন ছাত্রছাত্রীদের পড়াশোনার ডিজিটাল মাধ্যম BhugolShiksha.com । এর প্রধান উদ্দেশ্য পঞ্চম শ্রেণী থেকে নবম শ্রেণী, মাধ্যমিকউচ্চ মাধ্যমিক সমস্ত বিষয় এবং গ্রাজুয়েশনের শুধুমাত্র ভূগোল বিষয়কে  সহজ বাংলা ভাষায় আলোচনার মাধ্যমে ছাত্রছাত্রীদের কাছে সহজ করে তোলা।

কাষ্ঠ আহরণ (অর্থনৈতিক ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Lumbering (Economic Geography – Geography)

আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ সময় করে আমাদের এই ” কাষ্ঠ আহরণ (অর্থনৈতিক ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Lumbering (Economic Geography – Geography) ” পােস্টটি পড়ার জন্য। এই ভাবেই আমাদের ভূগোল শিক্ষা – Bhugol Shiksha – BhugolShiksha.com ওয়েবসাইটের পাশে থাকুন। ভূগোল বিষয়ে যেকোনো প্ৰশ্ন উত্তর জানতে এই ওয়েবসাইটটি ফলাে করুন এবং নিজেকে ভৌগোলিক  তথ্য সমৃদ্ধ করে তুলুন , ধন্যবাদ।

Subscribe Our YouTube Channel

Join Our Telegram Channel

E-mail Subscription