মৃত্তিকার স্তরায়ন (জীব ভূগোল - ভূগোল) | SOIL PROFILE - Biogeography Geography
মৃত্তিকার স্তরায়ন (জীব ভূগোল - ভূগোল) | SOIL PROFILE - Biogeography Geography

জীব ভূগোল – ভূগোল

মৃত্তিকার স্তরায়ন | SOIL PROFILE – Biogeography (Geography) Question and Answer in Bengali

মৃত্তিকার স্তারায়ন (জীব ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Soil Profile (Biogeography – Geography) : জীব ভূগোল – Biogeography (ভূগোল – Geography) মৃত্তিকার স্তারায়ন – Soil Profile প্রশ্ন ও উত্তর  নিচে দেওয়া হল। এই (মৃত্তিকার স্তারায়ন – Soil Profile – জীব ভূগোল Biogeography – ভূগোল Geography) প্রশ্নোত্তর গুলি স্কুল, কলেজ ও বিভিন্ন প্রতিযোগিতা মূলক পরীক্ষার জন্য খুব ইম্পর্টেন্ট। তোমরা যারা মৃত্তিকার স্তারায়ন – Soil Profile – জীব ভূগোল – Biogeography (ভূগোল – Geography) অতিসংক্ষিপ্ত প্রশ্ন ও উত্তর (Short Question and Answer) খুঁজে চলেছো, তারা নিচে দেওয়া প্রশ্নউত্তর ভালো করে পড়তে পারো।

মৃত্তিকার স্তরায়ন (SOIL PROFILE)

1. মৃত্তিকার স্তরায়ন বা পরিলেখ ( SOIL PROFILE ) । 

Ans: প্রখ্যাত মৃত্তিকাবিজ্ঞানী ডকুচেভ ( DOKUCHAIVE ) মৃত্তিকার স্তরায়ন কথাটি ব্যবহার করেন । মৃত্তিকার স্তরায়ন হল মৃত্তিকার এক পার্শ্বচিত্র । উপযুক্ত পরিবেশে সৃষ্ট পরিণত মৃত্তিকার ভূমির সমান্তরালে অবস্থিত সুস্পষ্ট স্তরযুক্ত , সুবিন্যস্ত গ্রথন ও বিন্যাসযুক্ত পরিণত মৃত্তিকার লম্বচ্ছেদকে মৃত্তিকার স্তরায়ন বলে । অর্থাৎ “ Profile is vertical section of soil from surface to parent material . ” একটি পরিণত মৃত্তিকার স্তরায়নে A , B ও C এই তিনটি স্তর বিদ্যমান । এর এক একটি স্তরের বৈশিষ্ট্যযুক্ত স্তরকে হোরাইজন বলে । মৃত্তিকার স্তরায়ন ব্যবহার করে উপযুক্তভাবে মৃত্তিকার শ্রেণীবিভাগ করা যায় ।

2. মৃত্তিকার হোরাইজন ( SOIL HORIZON ) । 

Ans: মৃত্তিকা স্তরায়নের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অংশ মৃত্তিকার স্তর বা হোরাইজন । মৃত্তিকার উপর থেকে নিচের দিকে মূল শিলা পর্যন্ত লম্ব বা খাড়াভাবে কাটলে কতকগুলি স্তর দেখা যায় । এই স্তরকে একত্রে মৃত্তিকার স্তরায়ন এবং এর এক একটি স্তরকে হোরাইজন বলে ।

বৈশিষ্ট্য : i ) স্তৱ : পরিণত মৃত্তিকার স্তরায়নে A , B , C এই তিনটি স্তর দেখা যায় । ii ) স্তরের বিশেষত্ব : A স্তরে লিচিং বা ধৌত প্রক্রিয়া হওয়ায় একে Zone of Eluviation ; B স্তরে A স্তর থেকে পদার্থ জমা হওয়ায় একে Zone of তাপ বিকিরণের ফলে ঠাণ্ডা হয়ে শক্ত পিণ্ডে পরিণত হয় , যা শিলা নামে পরিচিত । এই শিলারাশি কোটি কোটি বৎসর ধরে তাপ , শৈত্য , বায়ুপ্রবাহ দ্বারা চূর্ণবিচূর্ণ হয়ে মৃত্তিকা সৃষ্টি করে । মৃত্তিকা স্তরায়নের প্রারম্ভিক এই পর্যায়ে যে পাতলা স্তরবিশিষ্ট ( 3 4 সে.মি. ) মৃত্তিকার সৃষ্টি করে তাকে মৃত্তিকার মনোলিথ বলে । মৃত্তিকার চিহ্নিতকরণে এর গুরুত্ব সর্বাধিক ।

4. সোলাম ( SOLUM ) কি?

Ans: ‘ Solum ’ একটি ল্যাটিন শব্দ ; যার অর্থ ‘ মাটি ’ বা ‘ জমি ‘ । মৃত্তিকার ‘ A ’ ও ‘ B ’ স্তরে মৃত্তিকা গঠনের সমস্ত প্রক্রিয়া সক্রিয় থাকে এবং যার মধ্যে উদ্ভিদ ও প্রাণীর অস্তিত্ব সীমাবদ্ধ থাকে । সেই নরম , শিথিল , ঝুরঝুরে ও হিউমাস সমৃদ্ধ স্তরকে একত্রে সোলাম বলে ।

বৈশিষ্ট্য : i ) মৃত্তিকার জৈব ধ্বংসাবশেষ বা হিউমাস এখানে সংখ্যাগরিষ্ঠ । ii ) সোলাম সোলাম ধৌত প্রক্রিয়া , এলুভিয়েশন ইত্যাদি গঠনকারী প্রক্রিয়া দ্বারা গঠিত ।

গুরুত্ব : সোলামই উদ্ভিদ ও জীবাণুর আবাসস্থল । ইহা মৃত্তিকার জৈব রসায়নগার হিসাবে কাজ করে ।

5. প্যান ( PAN ) কাকে বলে? কত প্রকার?

Ans: মৃত্তিকার প্রধানত ‘ B ’ স্তরে অত্যন্ত ঘনবিন্যস্ত ও জল প্রবেশ করতে পারে না , সেই শক্ত ও কঠিন স্তরকে প্যান বলা হয় ।

A ) কর্দম প্যান ( CLAY PAN ) : কাদাকণা সমৃদ্ধ জল প্রবেশ করতে পারে না ।

B ) অনিবিড় প্যান ( FRAGI PAN ) : পলি ও বালি কণাসমৃদ্ধ । এই স্তরকে সিলিকা প্যান বঙ্গ হয় । আর্দ্র নাতিশীতোর অঞ্চলের গড়জল মাটিতে এই প্যান সৃষ্টি হয় । লোয়েস জাতীয় উপাদান । হতে এর সৃষ্টি ।

C ) নিবিড় প্যান ( HARD PAN ) : পৌঁহ অক্সাইড , ক্যালসিয়াম কার্বনেট দ্বারা গঠিত এই স্বর অত্যন্ত কঠিন । ইহা চার প্রকার— অরস্টিন , ল্যাটেরাইট আবরণী , লৌহ ও সিলিকা প্যান । আ অঞ্চলে গঠিত এই স্তর অত্যন্ত অনুর্বর ।

6. মাটেলড স্তর ( MUTTELED LAYER ) ।

Ans: ক্রান্তীয় আর্দ্র জলবায়ুযুক্ত অঞ্চল ও ভূমধ্যসাগরীয় জলবায়ু অঞ্চলে ধৌত প্রক্রিয়ার ফলে বৃষ্টির জলের সাথে বিভিন্ন লৌহ ও খনিজ পদার্থ সমূহ মাটির নিচের স্তরের দিকে চুঁইয়ে চুঁইয়ে নামতে থাকে । এর ফলস্বরূপ এই বিভিন্ন খনিজের ধৌতকরণের ফলে নিম্নের স্তরগুলিতে বিভিন্ন বর্ণের ছাপযুক্ত বিভিন্ন খনিজ মিশ্রিত পদার্থ দেখতে পাওয়া যায় । সেই স্তরগুলিকে মাটেলড স্তর C বলে ।

7. গিলগাই ( GILGAI ) মৃত্তিকা কি ?

Ans: ‘ GILGAI ’ একটি অস্ট্রেলিয়ান শব্দ , যার অর্থ ‘ তরঙ্গায়িত ক্ষুদ্র ভূমি ’ । প্রধানত বাৎসরিক গড় 500 মিমি বৃষ্টিযুক্ত স্থানে পলি বা কালো মৃত্তিকা অঞ্চলের মাটির উপরে কাদাকণার স্ফীতির ফলে তরঙ্গায়িত ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র ভূমি সৃষ্টি হয় , সেই মৃত্তিকাকে গিলগাই মৃত্তিকা বলে ।

বৈশিষ্ট্য : i ) পলি মৃত্তিকার সংকোচন ও স্ফীতির ফলে সৃষ্টি হয় । ii ) ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র ভূমি ( 1 মিটার উচ্চ ) puff’s নামে পরিচিত । iii ) ভূমি তরঙ্গায়িত ফলে ক্ষুদ্র উপত্যকা , ক্ষুদ্র বেসিন ও ক্ষুদ্র গর্ত দেখা যায় ।

বন্টন : আফ্রিকার সুদান , পূর্ব অস্ট্রেলিয়ার মধ্যাংশ ও ভারতের দাক্ষিণাত্যে গিলগাই মৃত্তিকা দেখা যায় ।

8. মাতৃশিলা বা জনক শিলা ( PARENT MATERIAL ) | 

Ans: মৃত্তিকা উদ্ভবের প্রধান উপাদান মাতৃ বা জনক শিলা । ভূ – ত্বকে কঠিন প্রাথমিক শিলা থেকে ধীরে ধীরে আবহাওয়ার মাধ্যমে যে মৃত্তিকার উদ্ভব হয় , তাকে মাতৃশিলা বলে ।

ভৌত – রাসায়নিক বৈশিষ্ট্য : ( i ) গ্রানাইট ও রায়োলাইট থেকে বেলেমাটি ; ( ii ) ব্যাসল্ট থেকে এঁটেল মাটি ; ( iii ) সিস্ট থেকে কাদামাটি ; ( iv ) আদিশিলার অসংহত শিলাস্তর ; ( v ) মাতৃশিলার উপরেই মৃত্তিকার প্রথন , গঠন ও রাসায়নিক বৈশিষ্ট্য নির্ভরশীল । গুরুত্ব : উদ্ভিদ কী প্রকার জন্মাবে তা মূল শিলার উপরে নির্ভরশীল ।

9. অবশিষ্ট মাটি কাকে বলে ?

Ans: যে মৃত্তিকা জনক শিলা ( Parent Material ) দ্বারা , আবহবিকারের আনুকূল্যে বিকশিত হয় এবং যা নিশ্চল স্থির অবস্থায় ওই স্থানেই স্থিত থাকে , তখন সেই মৃত্তিকাকে অবশিষ্ট মৃত্তিকা বলে । অবশিষ্ট মৃত্তিকার স্তর গভীরভাবে খনন করলে জনক শিলার ( Parent Rock ) সুস্পষ্ট প্রাধান্য দেখা যায় । তবে প্রাকৃতিক শক্তির দ্বারা কিছু অংশ স্থানান্তরিত হতে পারে ।

উদাহরণ : দাক্ষিণাত্যের ব্যাসন্ট সমৃদ্ধ কৃয় মৃত্তিকার স্তর এর প্রকৃষ্ট উদাহরণ । স্থানান্তরিত বা পরিবাহিত । যে মৃত্তিকা জনক শিলা থেকে সৃষ্টি হলেও নদী , হিমবাহ , বায়ুপ্রবাহ অথবা মহাকর্ষ দ্বারা চাপজনিত কারণে স্থানান্তরিত হয়ে পুঞ্জীভূত বা সজ্জিত হয়ে এক সম্পূর্ণ ভিন্নধর্মী মাটির রূপান্তর ঘটায় ; তাকে পরিবাহিত মাটি ( TRANSPORATED SOIL ) বলা হয় ।

উদাহরণসহ ব্যাখ্যা : সূক্ষ্ম সূক্ষ্ম লোয়েস কণা ( 0.02-0.05 মিমি কম ব্যাসযুক্ত ) বহুদূরে উড়ে গিয়ে লোয়েস মৃত্তিকা সৃষ্টি করে । ফ্রান্স , চীন , জার্মানী , U.S.A- তে এর নিদর্শন আছে ।

10. অপরিণত মৃত্তিকা ( IMMATURE SOIL ) বা অসম্পূর্ণ মৃত্তিকা কাকে বলে?

Ans: যেসব মৃত্তিকা সৃষ্টি হবার প্রক্রিয়াকালে সময় ও উপযুক্ত মৃত্তিকার অভাবে A , B ও C স্তরের কোন একটি স্তর সুস্পষ্টভাবে সৃষ্টি হয় না , সেই মৃত্তিকাকে অপরিণত মৃত্তিকা বলে । ( চিত্রে B স্তর অনুপস্থিত ) । শ্রেণী : অপরিণত মৃত্তিকা তিন প্রকার ।

যথা— ( A ) লিথোসোল ( হিমালয় , আন্দিজ , রকি পার্বত্য অঞ্চলে দেখা যায় ) । ( B ) রেগোসোল ( বায়ুবাহিত মৃত্তিকা , আগ্নেয়কণা মৃত্তিকা , হিমবাহ মৃত্তিকা ) । ( C ) পলিমৃত্তিকা ( নদী তীরবর্তী স্থানে দেখা যায় ) । অপরিনত মৃত্তিকা বন্টন : উত্তর আমেরিকার ল্যাব্রাডর মালভূমি , সাহারা ও আরব মরুভূমি , ভারতের উপকূলীয় পললরাশি ও বালুকারাশি এবং মহারাষ্ট্রের অগভীর কৃষ্ণমৃত্তিকা অপরিণত মৃত্তিকা ।

11. রেগোলিথ ( REGOLITH ) । 

Ans: ‘ Regolith ’ একটি গ্রীক শব্দ ; যার অর্থ ‘ Blanket ‘ । প্রধানত ক্রান্তীয় অঞ্চলে রাসায়নিক আবহবিকারের ফলে আদি শিলার উপর আবহাওয়ার বিভিন্ন উপাদান দ্বারা সৃষ্ট মৃত্তিকাময় অসমৃদ্ধ শিথিল স্তরকে রেগোলিথ বলে । আবার মৃত্তিকার A , B ও C হোরাইজনের স্তরগুলি যা পৃষ্ঠস্তর থেকে শিলামৃত্তিকার উপর বিস্তৃত ; তাকেই রেগোলিথ বলে ।

বৈশিষ্ট্য : i ) রেগোলিথের উপাদান হল আবহকৃত মৃত্তিকাময় শিথিল শিলাচূর্ণ । ii ) রেগোলিথের স্তরটি ছোট পাহাড়ের আকৃতি হয় বলে একে টরস ( Tors ) বলে ।

উদাহরণ : ক্রান্তীয় অঞ্চলের গভীর অববাহিকায় 50 মিটার এমনকি 150 মিটার পুরু রেগোলিে সঞ্চয় দেখা যায় ।

12. আদর্শ মৃত্তিকা বা সম্পূর্ণ মৃত্তিকা ( IDEAL OR MATURE SOIL ) ।

Ans: যৌবন থেকে পরিণত অবস্থায় দীর্ঘকাল ধরে বিবর্তনের মাধ্যমে উপযুক্ত জলবায়ু , নির্দিষ্ট আদিশিলা ও সর্বোপরি সময়ের সুসামঞ্জস্যের ফলে যখন মৃত্তিকার A , B , C এই তিনটি স্তর সুস্পষ্টভাবে গড়ে ওঠে , তাকে আদর্শ বা সম্পূর্ণ মৃত্তিকা বলে ।

উদাহরণসহ ব্যাখ্যা : পডজল একটি আদর্শ মাটির প্রকৃষ্ট উদাহরণ । কারণ Ao , Aoo, A1, A2 আদর্শ মৃত্তিকা হিসাবে B1 , B2 , C এই তিনটি স্তর অত্যন্ত সুস্পষ্ট । চারনোজেম ও ল্যাটেরাইট বিবেচ্য ।

13. এপিপেডন ( EPIPEDON ) । 

Ans: মৃত্তিকা হোরাইজনের উপরের স্তরে বা এলুভিয়েশন স্তরের উপরে জৈব স্তর সমৃদ্ধ অংশকে এপিপেডন বলা হয় । বৈশিষ্ট্য : i ) রঙ : জৈব পদার্থ সমৃদ্ধ থাকায় ইহা খুবই কালো রঙের হয় ।

ii ) উর্বরতা : ইহা মৃত্তিকার খুবই উর্বর অংশ ।

14. পলিপেডন ( POLYPEDON ) । 

Ans: পরস্পরের সাথে সঙ্ঘবদ্ধ কতকগুলি পেডনকে পলিপেডন বলা হয় । অর্থাৎ ‘ Two or more contiguous pedons are calls polypedon ‘ . কতকগুলি একই বৈশিষ্ট্যযুক্ত পেডনকে একত্রে প্রথন করা হয় বলে একে পলিপেডন বলা হয় । ইহাও একটি মৃত্তিকা শ্রেণীবিভাগের একক । এর আয়তনের কোন ঊর্দ্ধসীমা থাকে না । এটাই হল ক্ষুদ্রতম মৃত্তিকা একক যাকে মানচিত্রস্থ করা যায় ।

FILE INFO : মৃত্তিকার স্তারায়ন – Soil Profile | জীব ভূগোল – ভূগোল প্রশ্নোত্তর (Biogeography – Geography)

File Details:

PDF Name : মৃত্তিকার স্তারায়ন – Soil Profile | জীব ভূগোল – ভূগোল প্রশ্নোত্তর (Biogeography – Geography)

Price : FREE

Download Link : Click Here To Download

INFO : Geography – Biogeography – Question and Answer | ভূগোল – জীব ভূগোল – মৃত্তিকার স্তারায়ন (Soil Profile) প্রশ্নোত্তর

” ভূগোল (Geography) – জীব ভূগোল (Biogeography) – মৃত্তিকার স্তারায়ন – Soil Profile “ একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ টপিক বিভিন্ন শ্রেনীর পরীক্ষা (Class 5, 6, 7, 8, 9,  Madhyamik, Class 11, Higher Secondary – HS, College & University Exam) এবং বিভিন্ন চাকরির (WBCS, WBSSC) পরীক্ষায় এখান থেকে প্রশ্ন অবশ্যম্ভাবী । সে কথা মাথায় রেখে BhugolShiksha.com এর পক্ষ থেকে ভূগোল পরীক্ষা প্রস্তুতিমূলক প্রশ্নো ও উত্তর উপস্থাপনের প্রচেষ্টা করা হলাে। ছাত্রছাত্রী, পরীক্ষার্থীদের উপকারে লাগলে, আমাদের প্রয়াস  ভূগোল (Geography) জীব ভূগোল (Biogeography) – মৃত্তিকার স্তারায়ন – Soil Profile / মৃত্তিকার স্তারায়ন সংক্ষিপ্ত ছোট প্রশ্ন ও উত্তর / মৃত্তিকার স্তারায়ন (জীব ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Soil Profile (Biogeography – Geography)  SAQ / Short Question and Answer / মৃত্তিকার স্তারায়ন (জীব ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Soil Profile (Biogeography – Geography) Quiz / মৃত্তিকার স্তারায়ন (জীব ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Soil Profile (Biogeography – Geography) QNA / মৃত্তিকার স্তারায়ন (জীব ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Soil Profile (Biogeography – Geography) Question and Answer FREE PDF Download ) পরীক্ষা প্রস্তুতিমূলক প্রশ্নোত্তর সফল হবে।

মৃত্তিকার স্তারায়ন (জীব ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Soil Profile (Biogeography – Geography) Question and Answer in Bengali

আশা করি এই ” মৃত্তিকার স্তারায়ন (জীব ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Soil Profile – Biogeography Geography ”  পোস্টটি থেকে উপকৃত হয়েছেন। স্কুল, কলেজ ও বিভিন্ন ছাত্রছাত্রীদের পড়াশোনার ডিজিটাল মাধ্যম BhugolShiksha.com । এর প্রধান উদ্দেশ্য পঞ্চম শ্রেণী থেকে নবম শ্রেণী, মাধ্যমিকউচ্চ মাধ্যমিক সমস্ত বিষয় এবং গ্রাজুয়েশনের শুধুমাত্র ভূগোল বিষয়কে  সহজ বাংলা ভাষায় আলোচনার মাধ্যমে ছাত্রছাত্রীদের কাছে সহজ করে তোলা।

মৃত্তিকার স্তারায়ন (জীব ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Soil Profile (Biogeography – Geography)

আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ সময় করে আমাদের এই ” মৃত্তিকার স্তারায়ন (জীব ভূগোল – ভূগোল) প্রশ্ন ও উত্তর | Soil Profile (Biogeography – Geography) ” পােস্টটি পড়ার জন্য। এই ভাবেই আমাদের ভূগোল শিক্ষা – Bhugol Shiksha – BhugolShiksha.com ওয়েবসাইটের পাশে থাকুন। ভূগোল বিষয়ে যেকোনো প্ৰশ্ন উত্তর জানতে এই ওয়েবসাইটটি ফলাে করুন এবং নিজেকে ভৌগোলিক  তথ্য সমৃদ্ধ করে তুলুন , ধন্যবাদ।

Subscribe Our YouTube Channel

Join Our Telegram Channel

E-mail Subscription