বাইচুং ভুটিয়া এর জীবনী - Baichung Bhutia Biography in Bengali
বাইচুং ভুটিয়া এর জীবনী - Baichung Bhutia Biography in Bengali

বাইচুং ভুটিয়া এর জীবনী 

Baichung Bhutia Biography in Bengali

বাইচুং ভুটিয়া এর জীবনী – Baichung Bhutia Biography in Bengali : বাইচুং ভুটিয়া (Baichung Bhutia) ভারতের বিখ্যাত ফুটবল খেলোয়াড়দের একজন।  বিশ্বে ভারতীয় ফুটবল দলকে আলাদা পরিচয় দিয়েছেন তিনি।  বাইচুং ভুটিয়া (Baichung Bhutia) 11 বছর বয়সে তাশি নাঙ্গিয়াল একাডেমি গ্যাংটকে যোগ দেওয়ার জন্য প্রথম সাই স্কলারশিপ জিতেছিলেন।  তাশি নাঙ্গিয়াল থেকেই তাঁর শিক্ষা সমাপ্ত হয়।  ছোটবেলা থেকেই বাইচুং ভুটিয়া (Baichung Bhutia) সিকিমের অনেক স্কুল ও ক্লাবে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতেন।

 1991 সালে সুব্রটন কাপে তার পারফরম্যান্স তাকে আলোকিত করে।  এখান থেকে তিনি সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ পান।  এই খেলায় বাইচুং ভুটিয়াকে সেরা খেলোয়াড় ঘোষণা করা হয়।  1991 সালে সিকিম গভর্নরের কোল্ড কাপ টুর্নামেন্টে অংশ নেওয়ার সময়ই তার খেলার মাত্রা জানা যায়।  কারণ তখন তার বয়স ছিল মাত্র 17 বছর এবং তিনি পুরুষদের প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছিলেন।

  ভারতীয় প্রাক্তন পেশাদার ফুটবলার বাইচুং ভুটিয়া এর একটি সংক্ষিপ্ত জীবনী । বাইচুং ভুটিয়া এর জীবনী – Baichung Bhutia Biography in Bengali বা বাইচুং ভুটিয়া এর আত্মজীবনী (Baichung Bhutia Jivani Bangla. A short biography of Baichung Bhutia. Baichung Bhutia Birth, Place, Life Story, Life History, Biography in Bengali) বাইচুং ভুটিয়া এর জীবনী বা জীবন রচনা সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

বাইচুং ভুটিয়া কে ? Who is Baichung Bhutia ?

বাইচুং ভুটিয়া (Baichung Bhutia) একজন ভারতীয় প্রাক্তন পেশাদার ফুটবলার বাইচুং ভুটিয়া (Baichung Bhutia) স্ট্রাইকার হিসেবে খেলেছেন।  ভুটিয়াকে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ভারতীয় ফুটবলের মশাল বাহক হিসাবে বিবেচনা করা হয়।  ফুটবলে শ্যুটিং দক্ষতার কারণে বাইচুং ভুটিয়া (Baichung Bhutia) প্রায়ই সিকিমিজ স্নাইপার ডাকা হয়।  তিনবারের ভারতীয় বর্ষসেরা খেলোয়াড় I. M. Vijayan ভুটিয়াকে “ভারতীয় ফুটবলের জন্য ঈশ্বরের উপহার” বলে বর্ণনা করেছেন।

বাইচুং ভুটিয়া এর জীবনী – Baichung Bhutia Biography in Bengali :

নাম (Name) বাইচুং ভুটিয়া (Baichung Bhutia)
জন্ম (Birthday) ১৫ ডিসেম্বর ১৯৭৬ (15th December 1976)
জন্মস্থান (Birthplace) সিকিম, ভারত
পেশা ফুটবল খেলুয়ার
বর্তমান ক্লাব ইস্ট বেঙ্গল
মাঠে অবস্থান স্ট্রাইকার
উচ্চতা ৫ ফুট ৮ ইঞ্চি
জার্সি নম্বর ১৫

বাইচুং ভুটিয়া এর শুরুর জীবন – Baichung Bhutia Early Life :

বাইচুং ভুটিয়া (Baichung Bhutia) 15 ডিসেম্বর 1976 সালে সিকিমের একটি ছোট গ্রাম টিঙ্কিটামে জন্মগ্রহণ করেন।  তার চেওয়াং ভুটিয়া এবং বম-বোম ভুটিয়া নামে দুই ভাই রয়েছে।  তার একটি বোনও আছে যার নাম কালী ভুটিয়া।  ফুটবল ছাড়াও অন্যান্য খেলার প্রতিও তার আগ্রহ ছিল।  তাই স্কুল জীবনে তিনি ব্যাডমিন্টন, বাস্কেটবল এবং ক্রীড়াবিদ হিসেবেও স্কুলের প্রতিনিধিত্ব করেছেন।  বাইচুং ভুটিয়া (Baichung Bhutia) বাবা পেশায় একজন কৃষক ছিলেন।

 ভুটিয়া গ্যাংটকের তাশি নামগিয়াল একাডেমিতে যোগ দেওয়ার জন্য মাত্র 9 বছর বয়সে স্পোর্টস অথরিটি অফ ইন্ডিয়া থেকে একটি ফুটবল স্কলারশিপ জিতেছিল।  এর পরে তিনি তার সিকিমের অনেক স্কুল এবং স্থানীয় লোকদের হয়ে খেলা শুরু করেন।  1992 সুব্রতো কাপে তার ভাল পারফরম্যান্সের জন্য তিনি “সেরা খেলোয়াড়” পুরস্কারও পেয়েছিলেন।  2004 সালে তাদের বিয়ে হয় কিন্তু কোন কারণে 2015 সালে তাদের ডিভোর্স হয়ে যায়।  বাইচুং সম্প্রতি “হামারো সিকিম পার্টি” প্রতিষ্ঠা করেছেন।

বাইচুং ভুটিয়া এর ক্যারিয়ার – Baichung Bhutia Career :

1993 সালে, বাইচুং ভুটিয়া (Baichung Bhutia) তার স্কুল পড়া ছেড়ে দিয়ে কলকাতার ইস্ট বেঙ্গল ফুটবল ক্লাবে যোগ দেন।  1996 সালে, ভুটিয়া বর্ষসেরা ভারতীয় খেলোয়াড়ের খেতাব পেয়েছিলেন।  পেশাদার ফুটবলের জন্য, তিনি 1999 সালে ইউরোপে পাড়ি জমান।  প্রায় 3 বছর বিদেশী ক্লাবে খেলার পর তিনি ভারতে ফিরে আসেন।  বাইচুং ভুটিয়া (Baichung Bhutia) মূলত মোহনবাগান এবং ইস্টবেঙ্গলের সাথে ম্যাচ খেলেছেন।

 ভাইচুং ভুটিয়া হলেন ভারতীয় ফুটবল দলের সবচেয়ে বিখ্যাত ফুটবলার এবং বিশ্বজুড়ে ভারতীয় ফুটবল দলকে একটি আলাদা পরিচিতি দেওয়ার জন্য পরিচিত।  ফুটবলে তার শ্যুটিং দক্ষতার কারণে, তাকে সিকিমিজ স্ন্যাপার বলা হয়।  একই সময়ে, ভারতীয় খেলোয়াড় আইএম বিজয়ন ভুটিয়াকে ভারতীয় ফুটবলের জন্য ঈশ্বরের উপহার হিসাবে বর্ণনা করেছেন।

 ভাইচুং ভুটিয়া আই লিগ ফুটবল দল ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের সাথে তার ক্যারিয়ার শুরু করেন।  1999 সালে, তিনি ইংলিশ ক্লাব ভরিতে যোগ দেন।  ভুটিয়া হলেন প্রথম ভারতীয় ফুটবলার যিনি ইউরোপিয়ান ক্লাবের সাথে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন।  মালয়েশিয়ার ফুটবল ক্লাব পারকের হয়েও খেলেছেন।  ভাইচুং ভুটিয়াও অনেক ফুটবল টুর্নামেন্ট জিতেছেন।

 মাঠের বাইরে, তিনি টেলিভিশন অনুষ্ঠান ঝলক দিখলা জা-তেও অংশ নিয়েছিলেন এবং তাতেও তিনি জয়ী হন।  ভারতীয় ফুটবলে তাঁর গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য তাঁর সম্মানে ভুটিয়া নামে একটি ফুটবল স্টেডিয়ামও রয়েছে।  বাইচুং অর্জুন পুরস্কার এবং পদ্মশ্রীর মতো পুরস্কারেও সম্মানিত হয়েছেন।

 2010 সালে, তিনি দিল্লিতে ভাইচুং ভুটিয়া ফুটবল স্কুল প্রতিষ্ঠা করেন।  2011 সালে, তিনি আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে অবসরের ঘোষণা দেন।  যখন তার বিদায়ী ম্যাচ ছিল 10 জানুয়ারী 2012 দিল্লির জওহরলাল নেহরু স্টেডিয়ামে।

বাইচুং ভুটিয়া এর বিদেশী দলের হয়ে খেলা :

বিদেশে খেলার অনেক আমন্ত্রণ পেয়েছেন।  1999 সালের 30 সেপ্টেম্বর, তিনি ইংল্যান্ডের গ্রেটার ম্যানচেস্টারে বরির হয়ে খেলার জন্য বিদেশে যান।  ফলস্বরূপ, তিনি মোহাম্মদ সেলিমের পরে দ্বিতীয় ভারতীয় ফুটবলার যিনি পেশাদারভাবে ইউরোপে খেলেন।

[আরও দেখুন, মহেন্দ্র সিং ধোনির জীবনী – Mahendra Singh Dhoni Biography in Bengali]

 ইংল্যান্ডের ক্লাবটির সঙ্গে বাইচুং ভুটিয়া (Baichung Bhutia) ৩ বছরের চুক্তি ছিল।  তিনিই প্রথম ভারতীয় ফুটবলার যিনি কোনও বিদেশী ক্লাবের হয়ে খেলেন।  3 অক্টোবর 1999 তারিখে তিনি কার্ডিফ সিটির বিপক্ষে তার প্রথম ম্যাচ খেলেন।

 15 এপ্রিল 2000 এ ইংলিশ লিগে চেস্টারফিল্ডের বিপক্ষে একটি বিদেশী ক্লাবের হয়ে খেলার সময় ভুটিয়া প্রথম গোলটি করেন।  এরপর হাঁটুতে চোট পেয়ে আর তেমন ম্যাচ খেলা হয়নি তার।

 2002 সালে ভারতে ফিরে আসার পর, বাইচুং ভুটিয়া (Baichung Bhutia) 1 বছর মোহনবাগানের হয়ে খেলেন।  তবে মৌসুমের শুরুতে চোট পাওয়ায় তার প্রথম মৌসুম তেমন ভালো ছিল না।  কিছুদিন পর ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের হয়ে খেলা শুরু করেন।  এরপর ইস্টবেঙ্গল ও মোহনবাগানের মধ্যে স্থানীয় ডার্বিতে প্রথম হ্যাটট্রিক করার গৌরব অর্জন করেন তিনি।

[আরও দেখুন, সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের জীবনী – Sourav Ganguly Biography in Bengali]

বাইচুং ভুটিয়া এর জীবনী – Baichung Bhutia Biography in Bengali FAQ :

  1. বাইচুং ভুটিয়া কে ?

Ans: বাইচুং ভুটিয়া একজন ভারতীয় ফুটবল প্লেয়ার ।

  1. বাইচুং ভুটিয়া এর জন্ম কোথায় হয় ?

Ans: বাইচুং ভুটিয়া এর জন্ম হয় সিকিমে ।

  1. বাইচুং ভুটিয়া এর জন্ম কবে হয় ?

Ans: বাইচুং ভুটিয়া এর জন্ম হয় ১৫ ডিসেম্বর ১৯৭৬ সালে ।

  1. বাইচুং ভুটিয়া এর ক্লাবের নাম কী ?

Ans: বাইচুং ভুটিয়া এর ক্লাবের নাম ইস্ট বেঙ্গল ।

  1. বাইচুং ভুটিয়া এর উচ্চতা কত ?

Ans: বাইচুং ভুটিয়া এর উচ্চতা ৫ ফুট ৮ ইঞ্চি ।

  1. বাইচুং ভুটিয়া কত সালে বিদেশী দলের হয়ে খেলেন ?

Ans: বাইচুং ভুটিয়া ২০০০ সালে বিদেশী দলের হয়ে খেলেন ।

  1. বাইচুং ভুটিয়ার মাঠে অবস্থান কী ?

Ans: বাইচুং ভুটিয়ার মাঠে অবস্থান স্ট্রাইকার ।

  1. বাইচুং ভুটিয়া কত সালে ইস্ট বেঙ্গল ক্লাবে যোগ দেন ?

Ans: বাইচুং ভুটিয়া ১৯৯৩ সালে ইস্ট বেঙ্গল ক্লাবে যোগ দেন ।

[আরও দেখুন, বিরাট কোহলির জীবনী – Virat Kohli Biography in Bengali

আরও দেখুন, ইলন মাস্ক এর জীবনী – Elon Musk Biography in Bengali

আরও দেখুন, শচীন টেন্ডুলকারের জীবনী – Sachin Tendulkar Biography in Bengali

আরও দেখুন, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর জীবনী – Rabindranath Tagore Biography in Bengali]

বাইচুং ভুটিয়া এর জীবনী – Baichung Bhutia Biography in Bengali

  অসংখ্য ধন্যবাদ সময় করে আমাদের এই ” বাইচুং ভুটিয়া এর জীবনী – Baichung Bhutia Biography in Bengali  ” পােস্টটি পড়ার জন্য। বাইচুং ভুটিয়া এর জীবনী – Baichung Bhutia Biography in Bengali পড়ে কেমন লাগলো কমেন্টে জানাও। আশা করি এই বাইচুং ভুটিয়া এর জীবনী – Baichung Bhutia Biography in Bengali পোস্টটি থেকে উপকৃত হবে। এই ভাবেই BhugolShiksha.com ওয়েবসাইটের পাশে থাকো যেকোনো প্ৰশ্ন উত্তর জানতে এই ওয়েবসাইট টি ফলাে করো এবং নিজেকে  তথ্য সমৃদ্ধ করে তোলো , ধন্যবাদ।

Subscribe Our YouTube Channel

Join Our Telegram Channel

E-mail Subscription